প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার ১৩ দিন পার, কেন্দ্রের ‘ফ্রি’ রেশন নিয়ে প্রশ্ন তুললেন রেশন ডিলাররা!

98
Advertisement

বিশ্বজিৎ দাস: কেন্দ্রের মোদি সরকার এই বছরের ফ্রেব্রুয়ারি মাসেই ঘোষণা করে কোভিডের সময়ে আরও দু’মাস বিনামূল্যে কেন্দ্রের তরফে রেশন দেওয়া হবে। সেই মোতাবেক ফুড করপোরেশন অফ ইন্ডিয়ার সমস্ত রাজ্যের ইউনিটকে নির্দেশ দেওয়া হয়৷ তাদের মাধ্যমে এই প্রকল্পের কথা জানানো হয় রেশন ডিলার অ্যাসোসিয়েশনকে। তারা রেশন দোকানগুলিকেও প্রস্তুতি নিতে বলে। কিন্তু মে মাসের ১৩ দিন পেরিয়ে গেলেও রেশন বন্টন শুরু করতে পারা যায়নি এই রাজ্যের কোনও প্রান্তে।

Advertisement

এখন করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে নাজেহাল ভারতবাসী। দেশের তথা রাজ্যের অর্থনীতি কোভিড সংক্রমণের জেরে বিধস্ত। পশ্চিমবঙ্গেও প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। এমতাবস্থায় প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন। মে ও জুন মাসে ৫ কেজি করে খাদ্যশস্য দেওয়ার ঘোষণা করে কেন্দ্র সরকার। এতে করে উপকৃত হবে দেশের ৮০ কোটি মানুষ। করোনার উত্তরোত্তর বৃদ্ধির মাঝেই নিঃসন্দেহে কেন্দ্রের একটি বড় ঘোষণা। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের এরপরও তেরো দিন পার হয়ে গেলেও রাজ্যে চালু করা গেল না কেন্দ্রের বিনামূল্যের রেশন পরিষেবা।

Advertisement
Advertisement

প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনা প্রকল্পে মে ও জুন মাসে মাথাপিছু ৫ কেজি করে রেশন দেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। অন্যান্য রাজ্যে যা চালু হলেও, এই রাজ্যে ১৩ দিন হয়ে গেলেও তা চালু হয়নি বলে জানাচ্ছে রেশন ডিলারদের সংগঠন।

রেশন ডিলারদের অভিযোগ, এই রাজ্যের জন্যে বরাদ্দকৃত ধানই এখনও কিনে উঠতে পারেনি ফুড করপোরেশন অফ ইন্ডিয়া। ফলে কোভিডের কারণে পিছিয়ে গেল রাজ্যে কেন্দ্রের রেশন দেওয়ার পরিকল্পনা। রেশন ডিলারদের অনেকেই অবশ্য গোটা ঘটনাকে রাজ্যের প্রতি বঞ্চনা বলে অভিযোগ তুলেছেন। প্রসঙ্গত, ফুড করপোরেশন অফ ইন্ডিয়া সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্যে তাদের একাধিক কর্মী করোনা আক্রান্ত। একাধিক আধিকারিক আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। ফলে প্রসেসের কাজ আটকে আছে।

উল্লেখ্য, দেশে ক্রমশ ভয়াবহ হয়ে উঠেছে করোনা সংক্রমণ। লাফিয়ে লাফিয়ে দৈনিক সংক্রমণ রোজই আগের সব রেকর্ড ভেঙে দিচ্ছে। এই অবস্থায় গোটা দেশজুড়েই হাসপাতালের শয্যা সমস্যা ও হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের জন্য প্রয়োজনীয় অক্সিজেনের অভাব চিন্তা বাড়াচ্ছে। চিকিৎসক মহলের ব্যাখ্যা যেভাবে সংক্রমণ বাড়ছে তাতে সংক্রমণের চেন ভাঙতে সম্পূর্ণ লকডাউন ছাড়া আর কোন পথ এখন অজানা। দেশে করোনা পরিস্থিতি এখন ভয়ানক। এই পরিস্থিতিবে আগামী মে ও জুন মাসে ‘প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনা’য় বিনামূল্যে দেশবাসীকে খাদ্যশস্য দেওয়ার বড়সড় ঘোষণা করে কেন্দ্র। তবে এতদিন পেরিয়ে গেলেও পশ্চিমবঙ্গে সে প্রক্রিয়া শুরু না হওয়ায় প্রশ্ন তোলেন রেশন ডিলারেরা।