এখন খবর

১১ দিনে মৃত ৬ টি হাতি, ছত্তিশগড়ে রাতারাতি রদবদল মুখ্য বনপাল সহ ৯ বনাধিকারিকের

ওয়েব ডেস্ক : কিছুদিন আগেই কেরলে একটি গর্ভবতী হাতির মৃত্যুতে তোলপার হয়েছিল গোটা দেশ তথা সোশ্যাল মিডিয়া। ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছিলেন বলিউড-টলিউডের তাবর তাবর সেলিব্রিটিরা। এই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের হাতি মৃত্যুর ঘটনায় তোলপাড় ছত্তিশগড়। ১১ দিনে মোট ৬ টি হাতির মৃত্যুতে ইতিমধ্যেই ৯ জন উচ্চপদস্থ আধিকারিকের রদবদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ছত্তিশগড় সরকার। পাশাপাশি,বদলি করা হয়েছে বলরামপুর ও ধরমজয়গড়ের বিভাগী বনাধিকারিকদেও।

জানা গিয়েছে, গত ১১ দিনে ছত্তিশগড়ের সূরযপুর, বলরামপুর, ধামতারি ও রায়গড় সহ একাধিক জেলায় মোট ৬টি হাতি মারা গিয়েছে। গত সপ্তাহে সূরযপুর জেলার প্রতাপপুর জঙ্গল থেকে উদ্ধার হয় দুটি দাঁতাল হাতির দেহ। ওইদিনই পাশের বলরামপুর জেলা থেকে আরও একটি পুরুষ হাতির দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ধামতারি জেলায় একটি ডোবায় পড়ে গিয়ে পাঁকে ডুবে মারা যায় একটি শিশু হাতি। একইদিনে রায়গড় জেলার একটি গ্রামে বিদুৎপৃষ্ট হয়ে মারা গিয়েছে একটি দাঁতাল। জঙ্গলে চোরা শিকারীর উপদ্রব লেগেই থাকে। করোনা আবহে সেই উপদ্রব আরও বেড়েছে। এই পরিস্থিতিতে বনদফতের চূড়ান্ত আরও সতর্ক হওয়ার প্রয়োজন ছিল। তাদের চূড়ান্ত গাফিলতির জেরেই এতগুলি হাতির প্রাণ গিয়েছে বলেই মনে করছেন ছত্তিশগড় প্রশাসন।

সরকারী নির্দেশ অনুসারে মুখ্য বনপাল সহ মোট ৯ জন উচ্চপদস্থ আধিকারিককে ইতিমধ্যেই বদলি করেছেন সরকার। মুখ্য বনপাল ১৯৮৬ সালের ব্যাচের আইএফএস অতুল কুমার শুক্লাকে বদল করে সেই জায়গায় ১৯৮৭ সালের আইএফএস ব্যাচের আধিকারিক পি ভি নরসিংহ রাওকে আনা হয়েছে৷ অতুল কুমার শুক্লাকে রায়পুরের ছত্তিশগড় রাজ্য অরণ্য গবেষণা ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের রাজ্য মুখ্য বনপাল (গবেষণা) পদে বহাল করা হয়েছে। এ ছাড়া আরও ৯ জন বনাধিকারিককে বদলি করা হয়েছে। শনিবার এবিষয়ে ছত্তিশগড়ের এক শীর্ষআধিকারিক জানান, “কয়েক জন বনাধিকারিককে হাতির মৃত্যুর কারণে সরানো হয়েছে বাকিদের রুটিন মাফিক বদলি করা হয়েছে।”

ইদানীং দেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রায়শই হাতি মৃত্যুর ঘটনা নজরে আসছে৷ তারওপর করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউনের জেরে চোরা শিকারীদের উপদ্রবও বেড়েছে। এর জেরে প্রতিদিন মৃত্যু হচ্ছে বহু হাতি৷ ফলে স্বাভাবিকভাবেই বনদফতের গাফিলতি নজরে আসছে। এই পরিস্থিতিতে ছত্তিশগড় সরকারের রাতারাতি মুখ্য বনপাল সহ ৯ বনকর্তার রদবদলের সিদ্ধান্ত দেশবাসীর নজর কেড়েছে।

বিজ্ঞাপন
Live Corona Update
error: Content is protected !!
Close
Close