এখন খবরপশ্চিম মেদিনীপুরমেদিনীপুর

‘আজকে এসে কালকে বস্’ মানতে নারাজ পুরানোরা, গড়বেতায় রাজ্য সভাপতির উপস্থিতিতেই হাতাহাতি নতুন আর পুরানো বিজেপির

নিজস্ব সংবাদদাতা: “আজকে এসে কালকে বস্ ! আর আমরা কী পার্টির ছাঁট?” এই নিয়ে রাজ্য সভাপতির দিলীপ ঘোষের সামনেই হাতাহাতি জড়িয়ে পড়লেন বিজেপির দুই গোষ্ঠী। পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতায় বৃহস্পতিবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সভায় ঢুকতে না পেরে বিক্ষোভ দেখালেন বিজেপি কর্মীরা। বৃহষ্পতিবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ গড়বেতা ও শালবনি দুই বিধানসভা কেন্দ্রে গৃহ সম্পর্ক অভিযান ও দলীয় কার্যালয়ের উদবোধন অনুষ্ঠানে অংশ নেন। দলের কার্যকর্তাদের নিয়ে বৈঠকও করেন রাজ্য সভাপতি।

১০ দিন ধরে চলা গৃহ সম্পর্ক অভিযানের এদিন ছিল শেষ দিন। শেষ দিনে অভিযানে সামিল হন দলের রাজ্য সভাপতি সাংসদ দিলীপ ঘোষ। তার আগে গড়বেতায় একটি দলীয় কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন। দিলীপ ঘোষের সভায় ঢুক্তে না পেরে শুরু হয় বিক্ষোভ। বচসায় জড়িয়ে পড়েন দুই গোষ্ঠীর কর্মীরা। হাতাহাতি পর্যন্ত গড়ায়। পরে দিলীপ ঘোষের নির্দেশে কর্মীদের জন্য গেট খুলে দেওয়া হয়। এরপর পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়।

বিক্ষোভ প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘যাঁদের মিটিংয়ে ডাকা হয়েছে তাঁরাই থাকবেন। দলের কর্মী হলেও অন্য কেউ থাকার কথা নয়। এখানে কোন গোষ্ঠীর ব্যাপার নেই। যারা কার্যকর্তা আছেন তাঁরাই ডাক পেয়েছেন। নতুন পুরাতন বিজেপি কর্মী বলে কিছু নেই।’
বিজেপির পুরানো নেতা কর্মীদের বক্তব্য, যখন দল পড়ে পড়ে মার খাচ্ছিল তখন কেউ ছিলনা আর আজ দল যখন ক্ষমতার দুয়ারে তখন সব জুটেছে মাখন খেতে আর তারাই এখন দলের বস হয়ে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
error: Content is protected !!
Close
Close