এখন খবর

‘অহম সম্প্রদায়’ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, ‘বাংলা পক্ষ’-র গর্গ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতারের নির্দেশ অসম মুখ্যমন্ত্রীর

ওয়েব ডেস্ক: বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য পরিচিত মুখ ‘বাংলা পক্ষ’র প্রধান গর্গ চট্টোপাধ্যায়। আজকাল বাঙালী বিরোধী কোনো ঘটনা ঘটলেই সর্বপ্রথম যে বা যাদের গর্জে উঠতে দেখা যায় তারা বাংলা পক্ষ ও গর্গ চট্টোপাধ্যায়। তার বিতর্কিত মন্তব্যের শেষ নেই৷ এবার অসমের সিউকাফা এবং ‘অহম সম্প্রদায়’এর বিরুদ্ধে আপত্তিকর মন্তব্যের অভিযোগে তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিলেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল। শুক্রবার অসম পুলিশকে কলকাতার উদ্দেশে রওনা হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

গত বুধবার একটি টুইটবার্তায় বাংলা পক্ষের গর্গ চট্টোপাধ্যায় লেখেন, “সর্বানন্দ সোনওয়াল কেন নিয়মিত একজন চিনা অনুপ্রবেশকারী এবং তাঁর সেনাকে নিয়ে মাতামাতি করেন? কেন নিষিদ্ধ বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন আলফাও চিনা অনুপ্রবেশকারীকে নিয়ে মাতামাতি করেন? সত্যিকারের ভারতীয়রা কি জানেন যে করের টাকা দিয়ে বিজেপি অসমে চিনা অনুপ্রবেশকারীর মূর্তি তৈরি করেছে?” এছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি আপত্তিকর টুইট করেন গর্গ। স্বাভাবিকভাবেই তার লেখা টুইটগুলি নিয়ে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়৷ চলে নানান বিতর্ক।

এই পরিস্থিতিতে শুক্রবার ভাষ্কর গগৈ নামে অসমের এক বাসিন্দা গর্গের বিরুদ্ধে অসমের ডিব্রুগড় থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। ওই ব্যক্তির অভিযোগ, বুধবার ‘অহম দিবস’ পালনের জন্য অসমের মুখ্যমন্ত্রীর সর্বানন্দ সোনেওয়ালের বিরুদ্ধে টুইটারে নানান মন্তব্য করেন গর্গ চট্টোপাধ্যায়। একইসঙ্গে গর্গ সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজেপি এবং অসমকেও বদনাম করার চেষ্টা করেন। এখানেই থেমে থাকেননি তিনি, এরপর একের পর এক টুইটের মাধ্যমে অসমের প্রথম রাজা সিউকাফা এবং তাঁর বংশধরদের অপমান করেন গর্গ। ঘুরিয়ে ‘অসম সম্প্রদায়’ এবং ‘গ্রেটার আসামিজ’ সোসাইটিকে চিনা অনুপ্রবেশকারী হিসেবেও চিহ্নিত করা হয়। ফলে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও অসমের সংস্কৃতিকে এভাবে অপমান করায় গর্গ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির দাবি করেন ওই ব্যক্তি।

অন্যদিকে, গর্গের এমন মন্তব্য চোখে পড়ে অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনেওয়ালের। তারপর গর্গকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর এমন সিদ্ধান্তে খুশী হয়ে শুক্রবার দুপুর তিনটে নাগাদ একটি টুইটবার্তায় ভাষ্কর গগৈ বলেন, ” আমি এফআইআর দায়ের পর ছাওলাং সিউকাফার বিরুদ্ধে মন্তব্যের জন্য গর্গ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতারের নির্দেশ দেওয়ায় ধন্যবাদ সর্বানন্দ সোনেওয়াল।”

অহম সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে প্রতিবছর ২ ডিসেম্বর চুকাফ দিবস বা অসম দিবস পালিত হয়। সেই অনুষ্ঠান নিয়েই টুইটারে অসমের মুখ্যমন্ত্রীকে নানারকম মন্তব্য করেন গর্গ চট্টোপাধ্যায়। তার এই মন্তব্যে চটে যান মুখ্যমন্ত্রী। যদিও, ওই টুইটগুলি করার পর মুছে দিয়েছেন গর্গ। এবিষয়ে ডিব্রুগড়ের পুলিশ সুপার জানান, গর্গ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯এ, ১৫৩এ, ৫০০, ৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তবে এই প্রথম নয় এর আগে বহুবার গর্গ নানান বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন৷ বিজেপি অসমের থাকা বাঙলীদের নাগরিকত্ব দেবে না বলেও সোচ্চার হয়েছিলেন তিনি। যদিও গর্গের বক্তব্য,” অসমের বাঙালিদের হয়ে বারবার সরব হওয়ার কারণে সেখানকার বিজেপি আমাকে খুন করার ষড়যন্ত্র করেছে।” গর্গের এমন আচরণে স্বাভাবিকভাবেই ক্ষুব্ধ অসমে বসবাসকারী বাঙালীরা। ইতিমধ্যেই গর্গ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সমলোচনার ঝড় উঠেছে।

বিজ্ঞাপন
Live Corona Update
error: Content is protected !!
Close
Close