এখন খবরখড়গপুরমহানগর

খড়গপুরে সেতু থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা রেল সুরক্ষা বাহিনীর অবসাদগ্রস্থ আধিকারিকের

নিজস্ব সংবাদদাতা: ফের এক রেল সুরক্ষা বাহিনী তথা আর.পি.এফ কর্মীর রেললাইনে ঝাঁপ দিয়ে পড়ার ঘটনা ঘটল খড়গপুর শহরে এবং এবার মারাই গেলেন বাহিনীর ওই আধিকারিক। বুধবার দুপুরে খড়গপুর রেললের নিমপুরা ইয়ার্ড সংলগ্ন আরামবাটি রেলসেতুর ওপর থেকে ঝাঁপ দিয়ে পড়েন আরপিএফের আ্যসিস্টেন্ট সাব ইন্সপেক্টর বিজয় কুমার পন্ডা এবং ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলেই জানা গেছে।

রেলপুলিশের (জিআরপি) কর্তারা জানিয়েছেন, ৪৮ বছরের বিজয় কুমার ওড়িশার সোরো এলাকায় বাড়ি, কর্মসূত্রে তিনি রেল সেটেলমেন্ট এলাকার সাউথ সাইডে রেল আবাসনে থাকতেন। খড়গপুর রেলস্টেশনের দক্ষিনপ্রান্তে আরপিএফ আউটপোস্টে কর্মরত ছিলেন। খুব সম্ভবত পারিবারিক কারনে গভীর মানসিক অবসাদের মধ্যে চলে গিয়েছিলেন।

এদিন বেলা ১২টার কিছু পরে নিজের এলাকা থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দুরে একটি রেলসেতুর নিচের অংশে রেললাইনের ওপর থেকে তাঁর দেহ উদ্ধার করে রেলপুলিশ। তাঁর মাথার খুলি ও মুখমন্ডল থেঁতলে গিয়েছিল।
স্থানীয় আরামবাটি ও আয়মা সংলগ্ন এলাকার মানুষ তাঁকে কিছুক্ষন আগে ওই এলাকায় উদভ্রান্তের মত ঘোরাঘুরি করতে দেখেছিলেন। জিআরপি মৃতদেহটি উদ্ধার করে খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠায়। সেখানেই ময়নাতদন্তের পরে মৃতদেহ তাঁর ওড়িশার দেশের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে।

উল্লেখ্য খড়গপুর শহরে প্রায় আড়াইমাস আগে সিএমই গেট সংলগ্ন এলাকায় রেললাইনের গভীর খাদে আরেক আরপিএফ কর্মীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছিল। স্থানীয়রা জানিয়েছিলেন ওই ব্যক্তিও ঝাঁপ দিয়েছিলেন আত্মহত্যার উদ্দেশ্যে। যদিও প্রানে বেঁচে যাওয়া ওই আরপিএফ কর্মী অসাবধানতা বশত পড়ে গিয়েছিল বলেই রেলের দাবি।

বিজ্ঞাপন
error: Content is protected !!
Close
Close