এখন খবরপূর্ব মেদিনীপুর

বন্যপ্রানী রক্ষা আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দেদার কচ্ছপ বিক্রি, শিক্ষকের উদ্যোগে বাজার থেকে উদ্ধার বিরল প্রজাতির কচ্ছপ

কৌশিক কঁচ

: বন্যপ্রান রক্ষা আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে মাছের বাজারে দেদার বিক্রি চলছে কচ্ছপ এমন কি বিরল প্রজাতির কচ্ছপও। প্রকাশ্যে এই বেআইনি কাজ চলছে জনসমক্ষেই। লোকে রীতিমত কিনছেন এবং রান্না করে খাচ্ছেন। এরকমই এক দৃশ্যের দেখা  মিলল পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পটাশপুর থানার অন্তর্গত ১ নং অঞ্চলের অযোধ্যাপুর বাজারের সোমবার সকালের । কাছের গ্রাম নৈপুরের স্কুল শিক্ষক ও সামাজিক সংগঠন মেদিনীপুর ছাত্রসমাজের সভাপতি কৃষ্ণগোপাল চক্রবর্তী খবর পেয়ে কচ্ছপটি উদ্ধার করেন।

এই কচ্ছপটি Indian flapshel turtle।যা বিরল প্রজাতির।তিনি বাজারের সকল মৎস্য ব্যবসায়ীদের এই ধরনের অসাধু ব্যবসায়ীদের এধরনের কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকার কথা বলেন এবং বিক্রয় করলে সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী সর্বোচ্চ তিন বছর পর্যন্ত জেল ও ১০ থেকে ২০ হাজার পর্যন্ত জেল হতে পারে।কৃষ্ণগোপাল চক্রবর্তী আরও বলেন এলাকার পরিবেশ প্রেমী মানুষজনের সাহায্য নিয়ে প্রশাসনের দ্বারা সাধারন মানুষজনের ভিতর সচেতনতা বৃদ্ধি এবং সেই সাথে স্থানীয় বাজারগুলোতে কড়া নজরদারি দু’য়ের মাধ্যমে বাঁচানো সম্ভব এই বিরল প্রজাতিটিকে।

বন্যপ্রান রক্ষা বিষয়ক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলি জানিয়েছেন, যে কোনও ধরনেরই কচ্ছপ ধরা বিক্রি করা এবং কেনা দন্ডনীয় অপরাধ কিন্তু ঘটনা হল এ ব্যাপারের বাজারগুলিতে নজরদারি করার জন্য পুলিশ বা বনদপ্তরের ভূমিকা নেই বললেই চলে।

পূর্ব মেদিনীপুর বা দক্ষিন ২৪পরগনার মত উপকূলীয় অঞ্চল যা কিনা জৈব বৈচিত্রের বহুমুখী ভান্ডার তা শেষ হয়ে যেতে বসেছে মানুষের লোভের কারনেই। মানুষ সব সময় নিজে থেকে সচেতন হয়না এর জন্য সচেতনতা তৈরির পাশাপাশি আইনের কঠিন প্রয়োগ দরকার।

বিজ্ঞাপন
error: Content is protected !!
Close
Close