জেলায় ১২৯ টি কন্টেনমেন্ট জোনের মধ্যে খড়গপুর শহরেই ২৬টি, সর্বাধিক কন্টেনমেন্ট রেল এলাকায়

261

নিজস্ব সংবাদদাতা: ২৮ জুলাই নতুন করে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কন্টেনমেন্ট জোন ঘোষনা করা হয়েছে। এর আগে কন্টেনমেন্ট হয়ে ছিল এমন এলাকায় বিগত ১৪দিনের মধ্যে যদি কোনো নতুন আক্রান্ত না পাওয়া গিয়ে থাকে তবে তাকে এই তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে এবং ২৭তারিখ পর্যন্ত নতুন করে আক্রান্তর তালিকা পাওয়ার ভিত্তিতে নতুন করে সাজানো হয়েছে কন্টেনমেন্ট জোনের তালিকা। দেখা যাচ্ছে খড়গপুর পৌর এলাকাতেই রয়েছে ২৬টি জোন। আর তার মধ্যে সর্বাধিক কন্টেনমেন্ট জোন রয়েছে রেল অধ্যুষিত ২৬নম্বর ওয়ার্ডেই। ৬টি কন্টেনমেন্ট জোন রয়েছে শুধু ২৬ নম্বর ওয়ার্ডেই।

অবশ্য এটা হওয়াই স্বাভাবিক কারন এই ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যেই আরপিএফ ব্যারাক, ডিআরএম অফিসের কর্মীরা থাকেন বিভিন্ন বাংলো এবং আবাসনে। আক্রান্তের ঘটনা এই এলাকাতেই বেশি হয়েছে তাই কন্টেনমেন্ট জোন এখানেই বেশি হয়েছে এটাই স্বাভাবিক। তবে মনে রাখতে হবে এই তালিকা ২৭তারিখের আগে পর্যন্ত আক্রান্ত ধরে। এরপরে আক্রান্তের সংখ্যা আরও বেড়েছে। ফলে ২৮ জুলাই সরকারি ঘোষণার বাইরে গিয়ে নতুন নতুন কন্টেনমেন্ট জোন হয়েছে। অর্থাৎ বর্তমানে জোনের তালিকা বেড়েছে। তবুও যেহেতু নোটিফিকেশন ২৮ জুলাই হয়েছে তাই আপাতত সেই দিন ধরেই এই তালিকা দেওয়া হল।

এখানে কোনও জায়গা উল্ল্যেখ করা হয়েছে মানে সেই সংলগ্ন এলাকাটি বোঝানো হচ্ছে সরাসরি সেই জায়গা নয়। যেমন কোনও একটি ক্লাবের নাম উল্লেখ করা হয়েছে মানে ওই ক্লাব সংলগ্ন এলাকাকে বোঝানো হচ্ছে। সাধারন ভাবে যে বাড়িটির কেউ আক্রান্ত হচ্ছেন সেই বাড়ির ১৫০ মিটার বৃত্ত ধরেই কন্টেনমেন্ট জোন করা হচ্ছে। অনেক সময় ওই বৃত্তের মধ্যে একাধিক আবাসন আক্রান্ত হলে তাকে একই জোনের আওতায় আনা হচ্ছে।
এবার দেখে নেওয়া যাক খড়গপুর পৌর এলাকায় কোথায় কোথায় রয়েছে এই ২৬টি কন্টেনমেন্ট জোন

আরও পড়ুন -  অসহনীয় হয়ে উঠছে লকডাউন, ক্ষুদায় কাঁদছে জঙ্গল, পাশে দাঁড়াল কেন্দ্রীয় বাহিনী

১নম্বর ওয়ার্ডের রামকৃষ্ণপল্লী, এলআইসি অফিস সংলগ্ন এলাকা ও খড়্গেশ্বর মন্দির সংলগ্ন এলাকা। ২নম্বর ওয়ার্ডের আনন্দ নগর ও উত্তর রামকৃষ্ণপল্লী। ৮ নম্বর ওয়ার্ডে র খরিদা বাঙালি পাড়া, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের নয়াপাড়া খরিদা, ১২নম্বর ওয়ার্ডের নতুন পল্লী নিমপুরা, গুরুদুয়ারা সংলগ্ন এলাকা, ১৪নম্বর ওয়ার্ডের মালঞ্চ এলাকার ছোট প্রজাপতি ঘর ও রাজলক্ষ্মী সুইটস সংলগ্ন এলাকা। ১৫নম্বর ওয়ার্ডের মথুরাকাটি, ১৭নম্বর ওয়ার্ডের বিধান পল্লী, গোপীচক, মালঞ্চ এলাকা, ১৮নম্বর নিউ সেটেলমেন্ট বয়েজ আ্যসোসিয়েশন ক্লাব সংলগ্ন এলাকা, ২০ নম্বর ওয়ার্ডের সুভাষ পল্লী গ্রীন একাডেমি সংলগ্ন এলাকা,

আরও পড়ুন -  সেপ্টেম্বরেই কি খুলবে স্কুল-কলেজ? মুখ্যমন্ত্রীর ইঙ্গিতে জল্পনা তুঙ্গে

২২নম্বর ওয়ার্ডের গোলবাজারের জনতা মার্কেট ও বড় মসজিদ এলাকা। ২৫নম্বর ওয়ার্ডের বুলবুল চটি গ্যাস গোডাউন সংলগ্ন এলাকা এবং বারবেটিয়া মনসা মন্দির সংলগ্ন এলাকা। ২৬ নম্বর ওয়ার্ড রেলের সর্বাধিক সংক্রামিত এলাকা সাউথ সাইড বাংলো, ঝাপেটাপুরের পেছন দিক, ডেভলপমেন্ট অভিযাত্রী ক্লাব সংলগ্ন, রেলের অফিসার ক্লাব সংলগ্ন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের বাংলো সংলগ্ন, রানিং রুম সংলগ্ন। ২৯নম্বর ওয়ার্ডের ঝুলি, পোস্ট অফিস সংলগ্ন এলাকা। ৩২ নম্বর ছোট আয়মার একটি এলাকা।

জেলায় ১২৯ টি কন্টেনমেন্ট জোনের মধ্যে খড়গপুর শহরেই ২৬টি, সর্বাধিক কন্টেনমেন্ট রেল এলাকায় 1