মদ নেই তাই হোমিওপ্যাথির ‘র’ অ্যালকোহল খেয়েই পূর্ব মেদিনীপুরে ২জনের মৃত্যুর দাবি, অসুস্থ আরও তিন

558
Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: লক ডাউনের সময় মদ দোকান গুলি বন্ধ বিশেষ করে মিলছেনা দেশি মদ আর চুল্লু। ফলে চূড়ান্ত সমস্যায় মদ্যপায়ীর দল। সেই মদের বদলে হোমিওপ্যাথি ওষুধ তৈরিতে ব্যবহৃত র অ্যালকোহল খেয়েই খেতে না পেয়েই পূর্ব মেদিনীপুরের মারিশদা এলাকায় ২জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে অসুস্থ হয়েছেন তিন। যদিও ঠিক কী কারনে মৃত্যু তা এখনও নিশ্চিত করা হয়নি প্রশাসনের তরফে। তবে মৃত ও অসুস্থরা যে অতিরিক্ত অ্যালকোহল পান করেছিলেন তা চিকিৎসকরা প্রাথমিক ভাবে অনুমান করছেন।

Advertisement

জানা গেছে মারিশদার শিল্লিবাড়ি গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। শনিবার সন্ধ্যায় এবং রাতের দিকে গেছেন পঙ্কজ দাস(৪২) ও ভরত দাস(৩৩)। বাকিদের কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অসুস্থদের মধ্যে একজন মহিলাও রয়েছেন। জানা যায়, একটি সুত্রে দাবি করা হয়েছে তাঁরা ব্রেনলিয়ার বোতল থেকে র অ্যালকোহল মিশ্রিত তরল পান করেছিলেন। এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকায় পুলিস পৌঁচেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

Advertisement
Advertisement

পুলিশের একটি সুত্র জানিয়েছে, আদৌ তাঁরা হোমিওপ্যাথির র অ্যালকোহল নাকি অন্য কিছু পান করেছিলেন দেখা হচ্ছে। এলাকায় গোপনে চোলাই তৈরি বা বাইরে থেকে যোগান আসছে কিনা তাও দেখা হচ্ছে। আর যদি তাঁরা হোমিওপ্যাথির র অ্যালকোহল খেয়েই থাকেন তবে তা এল কোথা থেকে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। তবে এলাকা সুত্রে জানা গেছে মদের যোগান না থাকলেও লকডাউনে ওষুধে ছাড় রয়েছে আর সেই সুযোগ ব্যবহার করে হোমিওপ্যাথির র অ্যালকোহল নিয়ে এসে কেউ কেউ ব্যাবসা করছে। এতে যথেষ্ট নেশাও হয়। মদে আসক্তরা তাই পান করছে। পুলিশ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট য়ের পরই সব জানতে পারা যাবে বলেই মনে করছে।