সংক্রমণ বাড়তেই টানা ৪ দিনের সম্পূর্ণ লকডাউনের পথে হাঁটলেন ত্রিপুরা সরকার

74
image credit"istockphoto.com"

ওয়েব ডেস্ক : মারণ ভাইরাসের সংক্রমণে এদিকে যখন গোটা দেশ ধুঁকছে সেই সময় ত্রিপুরায় উল্লেখযোগ্যভাবে অনেক কম মানুষ সংক্রমিত হয়েছিল। এর জেরে স্বাভাবিকভাবেই আশার আলো দেখেছিল ত্রিপুরা সরকার৷ কিন্তু আনলক পর্যায়ে বদলেছে নানা নিয়ম, পেশার টানে বিভিন্ন রাজ্যে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকরাও একে একে ঘরে ফিরেছে। এর জেরে আচমকা উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়ে গিয়েছে করোনা সংক্রমণ। এর ফলে আগামী সপ্তাহের ২৭ থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত ফের সম্পূর্ণ লকডাউনের পথে হাঁটলো ত্রিপুরা সরকার। একই সঙ্গে প্রতি বাড়ি ঘুরে ঘুরে করা হবে স্ক্রিনিং এমনটাই জানিয়েছে প্রশাসন।

আরও পড়ুন -  মাএ ৪৫ মিনিটের মধ্যেই ৫ লক্ষ পর্যন্ত ঋন নিতে পারবেন এসবিআই গ্ৰাহকরা

এবিষয়ে ত্রিপুরা সরকারের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তি অনুসারে জানানো হয়েছে, ” ত্রিপুরা বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের রাজ্য একজিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান বিপর্যয় মোকাবিলা আইনের ২২(২) ধারায় প্রাপ্ত ক্ষমতা অনুসারে সমগ্র ত্রিপুরা রাজ্যে ২৭ জুলাই ২০২০ সোমবার সকাল ৫টা থেকে ৩০ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত সম্পূর্ণ লকডাউন আরোপ করা হয়েছে। এর জেরে ২৬ জুলাই রাত ৯টা থেকে রাত্রিকালীন কারফিউ যথারীতি পালন করা হবে।”

পাশাপাশি ত্রিপুরা সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, লকডাউন চলাকালীন সোমবার থেকে রাজ্যজুড়ে প্রত্যেক বাড়ি ঘুরে অ্যান্টিজেন ডিটেক্টরের মাধ্যমে করোনা রোগীর সন্ধানে সমীক্ষা শুরু করা হবে। একই সঙ্গে যে সমস্ত রোগীরা করোনায় সংক্রমিত, তাদের চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি প্রয়োগ করা হবে বলেই জানানো হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ত্রিপুরায় মোট করোনায় আক্রান্ত ৩,৬৭৫ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২,১২৫ জন। এখনও পর্যন্ত সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছেন ১১ জন।

সংক্রমণ বাড়তেই টানা ৪ দিনের সম্পূর্ণ লকডাউনের পথে হাঁটলেন ত্রিপুরা সরকার 1