মুম্বাইয়ের থানেতে বেসরকারি হাসপাতালে বিধ্বংসী আগুন; ৪ রোগীর মৃত্যু, প্রায় ১২ জনের আটকে থাকার সম্ভাবনা

89
মুম্বাইয়ের থানেতে বেসরকারি হাসপাতালে বিধ্বংসী আগুন; ৪ রোগীর মৃত্যু, প্রায় ১২ জনের আটকে থাকার সম্ভাবনা 1

নিউজ ডেস্ক: মহারাষ্ট্রের থানের বেসরকারি হাসপাতালে বিধ্বংসী আগুন। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় ৪ রোগীর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার ভোর ৩ টে ৪০ মিনিট নাগাদ এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। জানা যায়, এদিন থানের মুম্ব্রা এলাকার কৌসায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে আগুন লেগে যায়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সূত্রে খবর হাসপাতালে কোনও করোনা আক্রান্ত রোগী ছিল না।

মুম্বাইয়ের থানেতে বেসরকারি হাসপাতালে বিধ্বংসী আগুন; ৪ রোগীর মৃত্যু, প্রায় ১২ জনের আটকে থাকার সম্ভাবনা 2

অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দমকলের ৩ টি ইঞ্জিন এবং ৫ টি অ্যাম্বুলেন্স। দমকলবাহিনী তৎপরতার সঙ্গে আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগায় এবং সেখানে থাকা রোগীদের দ্রুত সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় অন্য হাসপাতালে। সূত্রের খবর, সেই সময় আইসিইউতে ৬ জন সহ মোট ২০ জন রোগী সেসয় হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন, অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সময়েই ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

মুম্বাইয়ের থানেতে বেসরকারি হাসপাতালে বিধ্বংসী আগুন; ৪ রোগীর মৃত্যু, প্রায় ১২ জনের আটকে থাকার সম্ভাবনা 3

এই দুর্ঘটনা প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে মুম্বাই পুলিশ আধিকারিক মধুকর শিবাজি কার বলেন, “ঘটনায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে, তবে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ ময়নাতদন্তের পরেই জানা যাবে। সেইসঙ্গেই আমরা প্রাথমিকভাবে এও খবর পেয়েছি যে,হাসপাতালের ভেতরে আরও ১২ জন মত রয়েছেন, যদিও সংখ্যাটা কম-বেশি হতে পারে। পুলিশ তদন্ত হবে এবং দ্রুত অ্যাকশন নেওয়া হবে।“

স্থানীয় এমএলএ এবং মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী জিতেন্দ্র আওহাদের কথানুযায়ী, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনার খবর পেয়েছে, তিনি মৃতদের পরিবারের জন্য ৫ লক্ষ এবং আহতদের পরিবারের জন্য ১ লক্ষ টাকার অর্থ সাহায্য ঘোষণা করেছেন।

সেই সঙ্গেই তিনি এও জানান, কীভাবে হাসপাতালে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল, সেই বিষয়ে উচ্চ পর্যায়ের তদন্তকারী কমিট গঠন করা হবে। এই কমিটিতে থানে মিউনিসিপাল কর্পোরেশন, পুলিশ আধিকারিক ও মেডিকাল অফিসারেরা থাকবেন।

উল্লেখ্য, চলতি মাসেই ২৩ তারিখ মহারাষ্ট্রের পালঘরে কোভিড হাসপাতালে মারাত্মক অগ্নিকাণ্ডে ঝলসে মৃত্যু হয় ১৫ জন করোনা রোগীর। ঘটোনাস্থলে প্রথমে ১৩ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়, পরবর্তীতে আরও ২ জনের মৃত্যুর খবর মেলে। বিরার পশ্চিমে বিজয় বল্লভ হাসপাতালের আইসিইউ-তে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। দমকলের ১০ টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনে। এই অগ্নিকাণ্ডের কারণ সম্পর্কে সরকারিভাবে এখনও কিছু জানা যায়নি। তবে সূত্রের খবর, শর্ট সার্কিটের কারণেই আইসিইউ-তে আগুন ধরে যায়, যার ফল হয় এমন মারাত্মক। মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে বিজয় বল্লভ কোভিড কেয়ার হাসপাতালের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রীর দফতর সূত্রে এক বিবৃতিতে একথা জানানো হয় এদিন।

Previous articleবেলাগাম সংক্রমন, বাড়ছে মৃত্যু! রামপুরহাটে অক্সিজেনের অভাবে ৪ জনের মৃত্যুর অভিযোগ
Next articleসাত সকালেই ভূমিকম্পে দুলে উঠল উত্তরবঙ্গ-অসম! গুয়াহাটিতে বাড়িঘরে ফাটল, আতঙ্ক ছড়ালো শহর জুড়ে