শুভেন্দু দল ছাড়ছেই ধরে নিয়ে হলদিয়ায় তুরুপের তাস সামনে আনল তৃনমূল, শিল্প শহরে অভিষেকের ছবিতে ছবিতে ছয়লাপ

1279
শুভেন্দু দল ছাড়ছেই ধরে নিয়ে হলদিয়ায় তুরুপের তাস সামনে আনল তৃনমূল, শিল্প শহরে অভিষেকের ছবিতে ছবিতে ছয়লাপ 1
শুভেন্দু দল ছাড়ছেই ধরে নিয়ে হলদিয়ায় তুরুপের তাস সামনে আনল তৃনমূল, শিল্প শহরে অভিষেকের ছবিতে ছবিতে ছয়লাপ 2

নিজস্ব সংবাদদাতা: মন্ত্রীত্ব আর কিছু গুরুত্বপূর্ণ সরকারি পদ ছাড়লেও এখন ইস্তফা দেননি বিধায়ক পদে, রয়ে গেছে দলের সদস্যপদও। শুভেন্দু অধিকারী দল ছাড়বেন কি ছাড়বেননা পরিষ্কার করেননি এখনও কিন্তু তার আগেই তুরুপের তাস অস্তিন থেকে বের করে দিল তৃনমূল কংগ্রেস। মাত্র এক রাতের নোটিশে রবিবার, ২৯শে নভেম্বর হলদিয়ায় মহামিছিল ও সমাবেশের ডাক দিয়েছে যুব তৃনমূল। সেই উপলক্ষ্যে যুবর সর্বাধিনায়ক অভিষেক ব্যানার্জীর ছবিতে ছবিতে ছয়লাপ শিল্প শহর।

বেশ কিছুদিন আগে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার প্রাক্তন যুব সভাপতি শুভেন্দু ঘনিষ্ট সংগ্রামজিৎ দলুইকে সরিয়ে জেলার সভাপতি করা হয়েছিল পার্থপ্রতিম মাইতিকে। সেই ঘটনার পর জেলা শহর তমলুকে দেখা গিয়েছিল অভিষেক ব্যানার্জীর ছবি। তার কদিন আগেই শহরে পড়েছিল শুভেন্দু অধিকারীর ফ্লেক্স। সেই ফ্লেক্সের গা ঘেঁষেই কার্যত অভিষেকের ফ্লেক্স দিয়ে চ্যালেঞ্জ জানানো হয়েছিল শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বকে। কিন্তু হলদিয়ার বুকে, খোদ শুভেন্দু অধিকারীর গড়ে অভিষেক ব্যানার্জীর এত ছবি আগে দেখা যায়নি। রবিবার মহিষাদলে শুভেন্দুর পাল্টা সভা হিসাবে হলদিয়ায় সভার ডাক দিয়েছে তৃনমূল, তার আগেই মমতা ব্যানার্জী পাশাপাশি অভিষেক ব্যানার্জীর ছবিতে ছেয়ে গেছে হলদিয়ার সিটি সেন্টার থেকে কদমতলা অবধি প্রায় সাড়ে তিন কিলোমিটার পথ। উল্লেখ্য এই পথেই মহামিছিল যাবে যুব তৃণমূলের।

শুভেন্দু দল ছাড়ছেই ধরে নিয়ে হলদিয়ায় তুরুপের তাস সামনে আনল তৃনমূল, শিল্প শহরে অভিষেকের ছবিতে ছবিতে ছয়লাপ 3

উল্লেখ্য ২০২১র নির্বাচনের প্রাক্কালে তৃণমূলের অভ্যন্তরে শুভেন্দু অধিকারীর বিদ্রোহ মূলত অভিষেক ব্যানার্জীর সর্বময় কর্তৃত্ব হয়ে ওঠার বিরুদ্ধেই। তিনি যুব তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি থাকাকালীনই অভিষেক ব্যানার্জী তৈরি করেছিলেন সমান্তরাল সংগঠন তৃনমূল যুবা। শুভেন্দুর ধারনা তাঁর কর্তৃত্ব কেড়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যেই এই সংগঠন করা হয়েছিল। হয়েছিলও তাই। অভিষেক ব্যানার্জী পরবর্তীকালে যুব তৃণমূলের সর্বাধিনায়ক হওয়ার পরই তৃনমূল যুবার অস্তিত্ব বিলোপ করে দেওয়া হয়।

এরপর দুজনেই একই সাথে সাংসদ নির্বাচিত হন। দ্বিতীয় মন্ত্রিসভা গঠনের আগে মমতা ব্যানার্জী শুভেন্দুকে মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান তাই সাংসদ পদ ত্যাগ করে বিধায়ক হন শুভেন্দু। শুভেন্দু অনুগামীদের ধারনা সাংসদদের মধ্যে অভিষেকের অবিসংবাদিত নেতৃত্ব কায়েম করার উদ্দেশ্য নিয়েই তাঁকে মন্ত্রীত্বের কথা বলে সাসংদ থেকে সরানো হয়েছে। এভাবেই যতদিন গিয়েছে অভিষেক সামনে এসেছে আর শুভেন্দু হটেছেন পিছনের সারিতে। পরবর্তীকালে একেবারে চূড়ান্ত পর্যায়ে জেলাগুলোর পর্যবেক্ষক পদগুলি থেকে শুভেন্দুকে সরানো এবং তাঁর অনুগামীদের অপসারণ এই সবই ইঙ্গিত দিয়েছে মমতা ব্যানর্জীর পর অভিষেককে প্রোজেক্ট করা আগামী মূখ্যমন্ত্রী হিসাবে।

ফলে ‘মমতা ব্যানার্জী ছাড়া অন্য কারও নেতৃত্ব মানতে অস্বীকার করা শুভেন্দুও তাঁর নিজের মত করে ভাবনা ভেবেছেন। সরে এসেছেন একের পর এক দলীয়সভা, এড়িয়ে গেছেন সরকারি কর্মসূচি। নিয়েছেন স্বাধীন কর্মসূচি। এরপর নন্দীগ্রাম, নিমতৌড়ি, খেজুরি রামনগরে একের পর অরাজনৈতিক কর্মসূচি। এরকমই এক কর্মসূচি রবিবার মহিষাদলে। আর তারই পাল্টা হলদিয়ায় তৃণমূলের সভা যেখানে রাজ্যের দুই মন্ত্রী রাজীব ব্যানার্জী, সুজিত বসু উপস্থিত থাকবেন। তার আগে অভিষেক ব্যানার্জীর ছবিতে মুড়ে দেওয়া হল শুভেন্দুর গড়। এর অর্থ খুবই পরিস্কার যে তৃনমূল ধরেই নিয়েছে শুভেন্দু দল ছাড়ছেন নচেৎ হলদিয়ায় আজ তারই ছবি থাকার কথা ছিল।