করোনা আক্রান্ত প্রায় ৭০ জন সন্ন্যাসী ও কর্মী, অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ বেলুড় মঠ

208
করোনা আক্রান্ত প্রায় ৭০ জন সন্ন্যাসী ও কর্মী, অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ বেলুড় মঠ 1

ওয়েব ডেস্ক : করোনা আক্রান্ত বেলুর মঠের একাধিক সন্ন্যাসী ও মঠ কর্মীরা। সেকারণে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কায় সোমবার থেকে ফের অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে গেল বেলুড় মঠ। জানা গিয়েছে, বর্তমানে বেলুড় মঠের সন্ন্যাসী ও মঠ কর্মী মিলিয়ে অন্তত ৭০ জনের দেহে মারণ ভাইরাসের হদিশ মিলেছে৷ ইতিমধ্যেই বেলুড় মঠের তিনতলায় কোয়ারেন্টাইন সেন্টার তৈরি করা হচ্ছে। জানা গিয়েছে সেখানেই আপাতত সকলকে রাখা হবে। এদিকে মঠের প্রায় ৫৪ জন সন্ন্যাসী ও ১৬ জন কর্মীর দেহে মারণ ভাইরাসের থাবা বসানোর পর মঠ কর্তৃপক্ষের তরফে বৈঠক ডাকা হয়। বৈঠকের পরই আপাতত অনির্দিষ্টকালের জন্য বেলুড় মঠ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আরও পড়ুন -  একদা মাওবাদী এলাকায় 'এরিয়া ডোমিনেশন' নিয়ে দুই হাতির ধুন্দুমার লড়াইয়ে ত্রস্ত শালবনী

লকডাউন ঘোষণার পর থেকে চলতিবছর ২৫ শে মার্চ থেকে জুন মাস পর্যন্ত বন্ধ ছিল বেলুড় মঠ। এরপর আনলক পর্যায়ে সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী, একাধিক বিধিনিষেধ মেনে খোলা হয়েছিল বেলুড় মঠ। কিন্তু তার কিছুদিনের মধ্যে কয়েকজন সন্ন্যাসী করোনা আক্রান্ত হওয়ায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল শতাব্দী প্রাচীন বেলুড় মঠ। তবে কিছুদিনের মধ্যে ফের খুলেও যায়। সংক্রমণ এড়াতে মঠে বসানো হয় স্যানিটাজেশন ট্যানেল। কিন্তু বেলুড় মঠের অন্দরে এতজন একসঙ্গে করোনা আক্রান্ত হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কায় সকলের সুরক্ষার স্বার্থে অনির্দিষ্টকালের জন্য বেলুড় মঠ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মঠ কর্তৃপক্ষ।

করোনা আক্রান্ত প্রায় ৭০ জন সন্ন্যাসী ও কর্মী, অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ বেলুড় মঠ 2

এদিকে, ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে বাড়ানো হয়েছে দক্ষিণেশ্বর মন্দির দর্শনের সময়বিধি। জানা গিয়েছে, লকডাউন পরবর্তীতে মন্দির খোলার পর প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে ১০ টা এবং বিকেল সাড়ে ৩টে থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত মন্দিরে প্রবেশ করা যেত। কিন্তু ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে নতুন সময়সূচী অনুযায়ী আগের মতো প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৬’টা থেকে বেলা সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত মন্দিরে প্রবেশ করা যাচ্ছে। এরপর বিকেলে সাড়ে ৩টে থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টা পর্যন্ত মন্দিরে প্রবেশ করতে পারছেন দর্শণার্থীরা।