হাতের মাঝেই ফুটেছে পদ্ম, সেই সাথেই রয়েছেন অধীর; পোস্টার ঘিরে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি

327
হাতের মাঝেই ফুটেছে পদ্ম, সেই সাথেই রয়েছেন অধীর; পোস্টার ঘিরে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি 1

অশ্লেষা চৌধুরী: ‘খবর এটাই তলে তলে, অধীর এখন পদ্মদলে।”এবারে পদ্ম শিবিরের সাথে গোপনে যোগসাজেশের অভিযোগ উঠল অধীর রঞ্জন চৌধুরীর। তাঁর সঙ্গে বিজেপির যোগ নিয়ে পোস্টার পড়েছে মুর্শিদাবাদের ডোমকলে, যা নিয়ে তোলপাড় বঙ্গ রাজনীতি। কংগ্রেসের হাত প্রতীকের মাঝে বিজেপির পদ্মফুল দেওয়া প্রায় অর্ধশত ছাপানো পোস্টারে ছেয়ে গিয়েছে ডোমকলের এলাকা। ওই পোস্টারে লেখা রয়েছে, ‘খবর এটাই তলে তলে, অধীর এখন পদ্মের দলে।’ এই পোস্টার পড়তেই প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি এবার বাম–কংগ্রেস ভোট বিজেপিতে গিয়ে পড়বে?

স্থানীয় সূত্রে খবর, বিভিন্ন দেওয়ালে প্রায় ৫০টি পোস্টার সাঁটানো হয়েছে বলে অভিযোগ। এই পোস্টার দেখে স্থানীয়রা খবর দেন কংগ্রেস নেতৃত্বকে। ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে হাত মিলিয়ে পোস্টারগুলি ছিঁড়ে ফেলেন কংগ্রেস নেতারা। ডোমকল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তাঁরা। এই বিষয়ে এলাকার কংগ্রেস নেতা আব্দুস সালাম বলেন, ‘আমি খবর পেয়ে ছুটে গিয়ে দেখি, বিভিন্ন বাজার এলাকায় একাধিক পোস্টার মারা হয়েছে। আমাদের দলনেতার নামে ছড়া কেটে পোস্টার দেওয়া হয়েছে। তৃণমূলের নেতারা মানুষকে ভুল বোঝানোর জন্য এই কাজ করেছে।’

হাতের মাঝেই ফুটেছে পদ্ম, সেই সাথেই রয়েছেন অধীর; পোস্টার ঘিরে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি 2

এই বিষয়ে বিজেপির জেলা সভাপতি গৌরীশংকর ঘোষ বলেন, ‘বিজেপিকে ভয় পেয়ে শাসক তৃণমূল কংগ্রেস এই নোংরা খেলায় মেতে উঠেছে। বিজেপি আসছে জেনেই এই কাজ করেছে।’ আর তৃণমূলে কংগ্রেসের জেলা সভাপতি আবু তাহের বলেন, ‘তৃণমূল কংগ্রেস এই ধরনের নোংরা খেলার সঙ্গে জড়িত নয়। বিশ্বাসও করে না।’

তবে এই পোস্টারগুলিতে অধীর নাম থাকলেও নামের পাশে পদবি উল্লেখ ছিল না। তবে পদবি না থাকলেও এই ইঙ্গিত যে আসলে মুর্শিদাবাদের ‘রবিন হুড’অধীর রঞ্জন চৌধুরীর দিকে, সেটাই মনে করা হচ্ছে। যদিও কংগ্রেস নেতৃত্বের দাবী, দলের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করতেই বিরোধী দল বিভ্রান্তিকর এই পোস্টার ছড়িয়েছে। ডোমকল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ডোমকল ব্লক যুব কংগ্রেসের পক্ষ থেকে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে বাম–ডান জোট, দল পরিবর্তন সহ নানা জল্পনা মাঝেই এই পোস্টার ঘিরে রীতিমত সরগরম এলাকা।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জনসভা থেকে অভিযোগ করেছিলেন, কংগ্রেস–বামেরা এবং বিজেপি হাত মিলিয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে গেরুয়া শিবিরের যোগ নিয়ে প্রায়ই অভিযোগ করতেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী। আর আজ তার সাথেই পদ্মের যোগ নিয়ে পোস্টার পড়ল এলাকা জুড়ে।

Previous article৫০ বছরের বেশি বয়স? মার্চেই পেয়ে যাবেন করোনার ভ্যাকসিন, জানালেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী
Next articleহেঁসেলিয়ানা, কোপ্তাকারির বাহার: সুজাতা বন্দ্যোপাধ্যায়