পর পর দু’দিন জামিন মিলল না অর্ণব গোস্বামী-র, শনিবার ফের মামলার শুনানি বম্বে হাইকোর্টে

172
পর পর দু'দিন জামিন মিলল না অর্ণব গোস্বামী-র, শনিবার ফের মামলার শুনানি বম্বে হাইকোর্টে 1
পর পর দু'দিন জামিন মিলল না অর্ণব গোস্বামী-র, শনিবার ফের মামলার শুনানি বম্বে হাইকোর্টে 2

ওয়েব ডেস্ক : ২০১৮-য় আর্কিটেক্ট অন্বয় নায়েক ও তাঁর মা কুমুদ নায়েকের মৃত্যু মামলায় বৃহস্পতিবারের পর শুক্রবারও অন্তর্বর্তী জামিন পেলেন না রিপাবলিক টিভি-র সম্পাদক অর্ণব গোস্বামী। যেহেতু এই মামলায় এদিন সবপক্ষের সওয়াল হয়নি, সেকারণে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলায় শুক্রবার কোনও রায় দিল না বম্বে হাইকোর্ট। জানা গিয়েছে, শনিবার ফের বম্বে হাইকোর্টে সেই মামলার শুনানি হবে।

জানা গিয়েছে, ২০১৮ সালে অন্বয় নায়েকের আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলায় অর্ণব গোস্বামীকে ‘অবৈধ গ্রেফতার’ এর চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ইতিমধ্যেই বম্বে হাইকোর্টে পিটিশন দাখিল করেছেন অর্ণব গোস্বামী। পাশাপাশি, আলিবাগ থানার মহিলা পুলশ অফিসারকে হেনস্তার অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে যে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে তা খারিজ করে দেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। শুধু তাই নয়, একইসঙ্গে এই মামলার তদন্ত আপাতত স্থগিত রাখার জন্য জরুরি ভিত্তিতে নির্দেশ জারির আর্জির পাশাপাশি অবিলম্বে তাঁকে মুক্তি দেওয়ার আবেদন করেছেন খোদ রিপাবলিক টিভি-র সম্পাদক অর্ণব গোস্বামী।

পর পর দু'দিন জামিন মিলল না অর্ণব গোস্বামী-র, শনিবার ফের মামলার শুনানি বম্বে হাইকোর্টে 3

জানা গিয়েছে, শুক্রবার এই মামলার দ্বিতীয় দিনের শুনানিতে অর্ণবের পক্ষে সওয়াল করেন হরিশ সালভে এবং অবধ পন্ডা। এদিন হরিশ সালভে দাবি করেন, যেহেতু অভিযুক্ত এবং মৃতের মধ্যে কোনও ব্যক্তিগত সম্পর্ক ছিল না, পুরোটাই আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত সম্পর্ক ছিল সেহেতু মৃত অন্বয় নায়েকের আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার বিষয়টি সর্বদা ‘সরাসরি এবং প্রত্যক্ষ’ হতে হবে। শুক্রবার প্রায় দু’ঘন্টা সওয়ালের পর এস এস শিন্দে এবং বিচারপতি এম এস কার্নিকের বেঞ্চ বলেছে, “আমরা বলছি যে আমরা আগামিকাল শুনানি চালাব। অপর পক্ষের সওয়াল শোনা আজ সম্ভব নয়। আগামিকাল আর কিছু নেই। আমরা ১১ টার সময় শুরু করব।” তবে বিচারক বেলা ১১ টায় শুনানি শুরুর কথা বললেও শেষপর্যন্ত সালভের আর্জিতে তা একঘণ্টা পিছিয়ে বেলা ১২ টায় শুনানির সময় দেওয়া হয়। এদিন বিচারপতি শিন্দে বলেন, “আমরা আশ্বস্ত করছি। আমরা সবার সওয়াল শুনব। আমরা সবার সওয়াল না শুনে কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছই না।”

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে কনকর্ড ডিজাইনসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ৫৩ বছর বয়সী অন্বয় নায়েক ও তাঁর মা কুমুদ নায়েক আলিবাগে আত্মঘাতী হয়েছিলেন। মৃত্যুর আগে সুইসাইড নোটে অন্বয় নায়েক অভিযোগ করেছিলেন, অর্ণব গোস্বামী, ফিরোজ শেখ এবং নীতেশ সারদার থেকে তিনি ৫.৪০ কোটি টাকা পান। সেই টাকা না পাওয়ায় বাধ্য হয়ে আত্মহত্যা করেন অন্বয় নায়েক ও মা কুমুদ নায়েক। তবে এই ঘটনায় সেসময় তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন রিপাবলিক সম্পাদক অর্ণব। এর দুবছর পর চলতি বছর মে মাসে মহারাষ্ট্র স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশে এই ঘটনায় আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলা দায়ের করে মুম্বাই পুলিশ। এরপর সিআইডির তরফে এই মামলা তদন্ত শুরু হয়। এরপরই তদন্তের স্বার্থে বুধবার সকালে গ্রেফতার করা হয়েছে অর্ণব গোস্বামীকে।