ফেরানো হচ্ছেনা জিতেন্দ্রকে,আসানসোল পুর প্রশাসক অমরনাথ,ফেরানো হবেনা দলের জেলা সভাপতির পদে

626
ফেরানো হচ্ছেনা জিতেন্দ্রকে,আসানসোল পুর প্রশাসক অমরনাথ,ফেরানো হবেনা দলের জেলা সভাপতির পদে 1

নিউজ ডেস্ক: আসানসোলের প্রাক্তন মেয়র তথা পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারির ওপর আর আস্থা রাখতে পারছেনা রাজ্য তৃনমূল ফলে কোনো পদেই ফেরানো হচ্ছেনা তাঁকে এমনটাই স্পষ্ট করে দিয়েছে দল। গেরুয়া শিবিরে প্রবেশের লক্ষ্যে জিতেন্দ্র তিওয়ারি ইস্তফা দিয়েছিলেন আসানসোলের পুর প্রশাসক পদ থেকে। কিন্তু বাবুল সুপ্রিয়দের প্রবল আপত্তিতে আটকে যায় তাঁর গেরুয়া করন। রাতারাতি ফের তৃনমূলেই আছেন বলে ঘোষণা করেন তিনি। কিন্তু জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে আর প্রশাসক পদে বসাল না রাজ্য সরকার। শনিবার নতুন প্রশাসকের নাম ঘোষণা করে জারি হয় বিজ্ঞপ্তি। শনিবার আসানসোল পুরনিগমের নতুন পুর প্রশাসক পদে এলেন অমরনাথ চট্টোপাধ্যায়। সোমবার থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন তিনি।

গত ১৪ ডিসেম্বর তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেন আসানসোল পুরনিগমের পদত্যাগী প্রশাসক তথা দলের প্রাক্তন জেলা সভাপতি জিতেন্দ্র তিওয়ারি। আসানসোলের অনুন্নয়নের জন্য পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে কাঠগড়ায় তুলেছিলেন তিনি। দাবি করেছিলেন, রাজনৈতিক কারণে স্মার্টসিটি প্রকল্পের ২,০০০ কোটি টাকা আসানসোলকে নিতে দেয়নি রাজ্য সরকার। এমনকী বর্জ্য প্রক্রিয়াকরণের ১,৫০০ কোটি টাকাও একই কারণে পাননি আসানসোলবাসী। বদলে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা বললেও তা রাখেননি ফিরহাদ হাকিম।

ফেরানো হচ্ছেনা জিতেন্দ্রকে,আসানসোল পুর প্রশাসক অমরনাথ,ফেরানো হবেনা দলের জেলা সভাপতির পদে 2

পরের দিন জিতেন্দ্রকে কলকাতায় তলব করে তৃণমূল। কিন্তু তিনি যাননি। এসব যখন চলছে তখন উত্তরবঙ্গে ছিলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৮ ডিসেম্বর কলকাতায় ফিরে তিনি জিতেন্দ্র তিওয়ারির সঙ্গে বৈঠকে বসবেন বলে জানান। তার আগে ১৭ ডিসেম্বর সমস্ত পদ থেকে ইস্তফা দেন জিতেন্দ্র। যদিও আর কোনও পদেই তাঁকে ফেরানো হচ্ছেনা বলে ইঙ্গিত দিল তৃনমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেতৃত্ব।

গত ১৫ অক্টোবর পুর প্রশাসক পদে বসানো হয় প্রাক্তন মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে। পুর প্রশাসক বোর্ড তৈরি হয়েছিল, তার অন্যতম সদস্য ছিলেন অমরনাথ চট্টোপাধ্যায়। শুভেন্দুর নীতিতে অনুপ্রাণিত হয়ে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে প্রস্তুত ছিলেন জিতেন্দ্র। নাটকীয়ভাবে ঘটনার ঠিক দু’দিন পরেই আবার তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে আসেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি। কলকাতায় তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

অন্যদিকে তৃণমূল সূত্রে এও খবর যে পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূল সভাপতির পদও ফেরানো হচ্ছে না। আসলে তৃনমূলের মনে হচ্ছে যে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব বাবুল সুপ্রিয় সহ জিতেন্দ্র বিরোধী বিজেপি নেতাদের ম্যানেজ করার চেষ্টা করে যাচ্ছে। সেই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে ফের গেরুয়া শিবিরে ঝাঁপ দেবেন তিনি। তাই আর কোনও ঝুঁকি নিতে চাইছেনা ঘরপোড়া তৃনমূল।

Previous articleলাদাখ সীমান্তে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মাঝেই ভারতীয় সেনার হাতে আটক চীনের সেনা জওয়ান
Next articleএকুশতম বইমেলার হাত ধরেই যেন শীত ফিরল খড়গপুরে, করোনা ক্রান্তিকাল পেরিয়ে উৎসবের মেজাজে খড়গপুর