বাংলার কৃষকরা পেলেন কৃষক নিধির টাকা! সাফল্যের ভাগ নিতে বাকযুদ্ধ তৃণমূল-বিজেপির

111
Advertisement

নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধির প্রথম কিস্তির টাকা পেলেন বাংলার কৃষকেরা। এদিন প্রথম কিস্তির ২ হাজার টাকা প্রকল্পে নথিভুক্ত বাংলার ৭ লক্ষ কৃষকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা পৌঁছালো শুক্রবার। রাজ্য স্বরাষ্ট্র দফতর ট্যুইট করে এদিন লিখেছে, রাজ্য সরকার কৃষকদের জন্য লড়াই চালিয়ে যাবে।

Advertisement

কিষাণ নিধির টাকা দেওয়া হবে বলে বৃহস্পতিবারই জানানো হয়েছিল কেন্দ্রের তরফে। এদিন জানানো হয়, বাংলার ৭ লক্ষ কৃষকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে প্রথম কিস্তির টাকা জমা করা হবে অক্ষয় তৃতীয়ার শুভ দিনেই। জানা গিয়েছে, বাংলার মোট ৪০ লক্ষ কৃষক কিষাণ সম্মান নিধির জন্য আবেদন করেছিলেন। এদের মধ্যে ৭ লক্ষ কৃষকদের অ্যাকাউন্টে প্রথম কিস্তির ২,০০০ টাকা ঢুকবে। এই বিষয়ে কৃষকদের সঙ্গে শুক্রবার ভার্চুয়াল বৈঠকও করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেও জানানো হয়েছিল। আর সেই মোতাবেক এদিন শুক্রবার, ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলার প্রায় ৭ লক্ষ কৃষককে সেই কিষাণনিধি প্রকল্পের প্রথম কিস্তির টাকা প্রদান করলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। প্রায় ১৯ হাজার কোটি টাকা দেশের কৃষকদের খাতে জমা করা হল বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

Advertisement
Advertisement

তার আগেই এদিন সকালে কিষাণ নিধি প্রকল্প নিয়ে বাংলার কৃষকদের খোলা চিঠি লেখেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতে লেখা হয়েছে তিনি লড়াই না করলে বাংলার কৃষকরা এই টাকা পেতেন না। কেন্দ্রীয় প্রকল্পের টাকা কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পড়ার আগে এক খোলা চিঠিতে এই দাবী করেন মুখ্যমন্ত্রী। কৃষকদের উদ্দেশ্যে চিঠি দিয়ে তিনি বলেন, “দীর্ঘ টালবাহানা ও নানা অজুহাত দেখিয়ে দিল্লির সরকার প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান প্রকল্পের টাকা দিচ্ছিল না। আপনাদের প্রাপ্য ছিল ১৮ হাজার টাকা। কিন্তু এইটুকুও পেতেন না যদি না আমরা আপনাদের হয়ে লড়াই করতাম।” চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী আরও লিখেছেন, আপনারা চিন্তা করবেন না। আমরা আপনাদের প্রাপ্য বকেয়া আদায়ের জন্য লড়াই করব।

উল্লেখ্য, তৃতীয় বারের জন্য বাংলার মসনদে আসীন হতেই কেন্দ্রের কাছে কৃষকদের জন্য বরাদ্দ ১৮,০০০ করে টাকা চান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে জানান, পিএম কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্পের আওতায় কৃষকদের নাম পোর্টালে তুলে দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, কৃষকদের ১৮,০০০ টাকা করে দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী ভোটের আগে এ কথা বলেছিলেন, এবার কৃষকদের টাকা দিন।’

প্রসঙ্গত, বঙ্গে নির্বাচনী প্রচার চলাকালীন কিষান নিধি প্রকল্প নিয়ে বার বার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তোপ দেগেছিলেন প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে বিজেপির অন্যান্য নেতৃত্বরা। খোদ প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করে বলেছিলেন, কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্পের সুবিধা এ রাজ্যের কৃষকরা পাননি। মুখ্যমন্ত্রী চাননি বলেই বাংলার কৃষকেরা এই সুবিধা থেকে বঞ্চিত বলেও অভিযোগ করেছিলেন তিনি।

এমনকি, হুগলির হরিপালের সভা থেকে মোদি বলেছিলেন, বাংলায় বিজেপিই সরকার গড়বে। রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকেই কৃষকদের সুবিধা দানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে এবং দুর্গাপুজোর আগে এই প্রকল্পে গত তিন বছরে যে টাকা কৃষকরা পাননি, সেই ১৮ হাজার টাকা কৃষকদের অ্যাকাউন্টে দেওয়া হবে। সেই মতো এখন থেকেই বিজেপি সরকারের জন্য রাজ্য সরকারি কর্মীদের কাজ শুরু করে দিতে বলেছিলেন তিনি। উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি’ প্রকল্পটি মোদি সরকার ২৪ শে ফেব্রুয়ারী ২০১৯- এ প্রচলন করেছিলেন এবং এটি ১ লা ডিসেম্বর, ২০১৮ থেকে এর প্রভাব কার্যকর হয়েছিল।

তবে বঙ্গে ক্ষমতায় আসার সেই স্বপ্ন প্রধানমন্ত্রীর পূরণ না হলেও, ক্ষমতায় ফিরেই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া সেই প্রতিশ্রুতি মনে করিয়ে দিতে খুব বেশি সময় নিলেন না। আর শুধু যে মনে করিয়ে দিলেন তা নয়, এ ব্যাপারে ২১,৭৯ লক্ষ কৃষকের নাম পোর্টালে তোলা হয়েছে বলেও জানিয়ে দেন তিনি। এবার সেই মতো কেন্দ্রীয় প্রকল্পের প্রথম কিস্তির টাকা পেলেন বাংলার কৃষকরা।