বিজেপির ডাকা বনধ ঘিরে ফের উত্তপ্ত শিলিগুড়ি; ছিঁড়ে ফেলা হল মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সহ সরকারি পোস্টার, ব্যাপক হাতাহাতি দু’পক্ষের

328
বিজেপির ডাকা বনধ ঘিরে ফের উত্তপ্ত শিলিগুড়ি; ছিঁড়ে ফেলা হল মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সহ সরকারি পোস্টার, ব্যাপক হাতাহাতি দু’পক্ষের 1

অশ্লেষা চৌধুরী: গতকাল সোমবারের পর আজ মঙ্গলবারও ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল শিলিগুড়িতে। বিজেপির ডাকা ১২ ঘন্টার বনধ ঘিরে আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠল শহর। ছিঁড়ে ফেলা হল মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সহ সরকারি পোস্টার। সেই নিয়ে শাসক দল ও বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে হয় তুমুল হাতাহাতি, ওঠে মারধরের অভিযোগ।

আজ দেশ জুড়ে নয়া কৃষি আইন বাতিলের দাবীতে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে কৃষক সংগঠনগুলো। সেই বনধের প্রভাব পড়েছে বাংলাতেও। দক্ষিণবঙ্গের পাশাপাশি বনধের প্রভাব পড়েছে উত্তরবঙ্গেও। তার ওপর উত্তরবঙ্গে আজ জোড়া বনধ। একে তো কৃষি আইনের প্রতিবাদের ডাকা বনধ সমর্থন করেছ ডান-বাম সহ সকল দলগুলো, তার ওপর উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে ধুন্ধুমার কাণ্ডে পুলিশের লাঠি চার্জে দলীয় কর্মীর মৃত্যুর প্রতিবাদে ১২ ঘন্টা উত্তরবঙ্গ বনধের ডাক দিয়েছে বিজেপি। তবে কৃষি বিল প্রত্যাহারের দাবীতে বিক্ষোভে তেমন কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটলেও বিজেপির ডাকা বনধ ঘিরে আজ ফের উত্তাল হয়ে উঠল শিলিগুড়ি।

বিজেপির ডাকা বনধ ঘিরে ফের উত্তপ্ত শিলিগুড়ি; ছিঁড়ে ফেলা হল মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সহ সরকারি পোস্টার, ব্যাপক হাতাহাতি দু’পক্ষের 2

মঙ্গলবার দুপুরে মৃত দলীয় কর্মীর বাড়ীতে গিয়ে তাঁর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করে সমবেদনা জানান বিজেপি-র চার সাংসদ ডঃ জয়ন্ত রায়, রাজু বিস্ত, নিশীথ প্রামাণিক, সুকান্ত মজুমদার এবং বিজেপি-র রাজ্য সাধরণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু ও রথীন্দ্র বসু প্রমুখ। পুলিশ দিয়ে উলেন রায়কে হত্যা করা হয়েছে বলে বিজেপির অভিযোগ। সোমবার রাতে উলেন রায়ের মৃতদেহ ময়নাতদন্তে অনিয়মের অভিযোগে বিজেপি ফের ময়নতদন্ত ও সিবিআই তদন্তের দাবী তুলেছে। সেই সাথে উলেন রায়ের তিন সন্তান সহ গোটা পরিবারের ভরন-পোষনের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেয় বিজেপি।

একদিকে যখন এই পর্ব চলছিল, অন্যদিকে তখন এই দলীয় কর্মীর মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিল বিজেপির অন্যান্য সমর্থক ও নেতা-কর্মীরা। তারা রাস্তায় লাগানো মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ছবিসহ পোস্টার ছিঁড়ে আগুন লাগিয়ে প্রতিবাদ জানাতে থাকে। একে ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয় হিলকার্ট রোডে। এই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটন পুলিশের বিশাল পুলিশবাহিনী। পাশাপাশি ঘটনার খবর শুনে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় তৃণমূল কর্মীরা। পরিস্থিতি হাতাহাতির পর্যায়ে পৌছে যায়। এক বিজেপি সমর্থককে ধরে বেধড়ক মারধর করে এক তৃণমূল সমর্থক। তবে মারধরের ঘটনা অস্বীকার করেছে জেলা তৃণমূল। পরিস্থিতি সামাল দিতে আটক করা হয় বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী ও সমর্থকদের।

অপরদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ওয়ালা সরকারি পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে পথে নামে দার্জিলিং জেলা তৃণমূল কংগ্রেস। শহরের এদিন এক প্রতিবাদ মিছিল বের করা হয় তৃণমূলের পক্ষ থেকে। পাশাপাশি রাস্তায় থাকা বিজেপির দলীয় পতাকা খুলে দেয় তৃণমূল সমর্থকরা। এদিনের তৃণমূলের প্রতিবাদ মিছিলে বেশ কয়েকজন তৃণমূল সমর্থকদের হাতে লাঠিও লক্ষ্য করা যায়।

শিলিগুড়িতে মুখ্যমন্ত্রীর পোস্টার ছিঁড়ে এই আগুন লাগানোর ঘটনায় দার্জিলিং জেলা তৃণমূল কংগ্রেস পক্ষ থেকে শিলিগুড়ি থানায় জানানো হল অভিযোগ। অবিলম্বে অভিযুক্তদের শাস্তির দাবী জানান জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রঞ্জন সরকার। পাশাপাশি তিনি অভিযোগ করেন, কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপি রাজ্যে অপসংস্কৃতি বহন করছে। তার রাজনৈতিক ভাবে মোকাবিলা করা হবে। বিজেপির এই ধরনের আচার-আচরণ রাংলার মানুষ ভালো চোখে দেখছে না বলেও দাবী সভাপতি রঞ্জন সরকারের।

সব কিছু মিলে আজও শিলিগুড়ি জুড়ে দিনভর উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে এরই মাঝে আসে আরও একটি খবর, উলেন রায়ের ময়নাতদন্তে যে অনিয়মের অভিযোগ এনেছিল বিজেপি, তাতে জলপাইগুড়ি জেলা আদালত পুলিশকে নির্দেশ দেয় নিহত বিজেপি কর্মী উলেন রায়ের মৃতদেহের পুনরায় ময়নাতদন্তের জন্য।

ময়নাতদন্তের রিপোর্টে কি ফলাফল আসে এবং তা ঘিরে আবার কাকে কোন সঙ্কটের মুখোমুখি হতে হয়, তা সময় বলবে।