পুলিশ কি গৌতম দেবের দাস না কি? দলীয় কর্মীকে আটকের প্রতিবাদে ক্ষোভ উগড়ে প্রশ্ন বিজেপি প্রার্থী শিখা চ্যাটার্জীর 

236
পুলিশ কি গৌতম দেবের দাস না কি? দলীয় কর্মীকে আটকের প্রতিবাদে ক্ষোভ উগড়ে প্রশ্ন বিজেপি প্রার্থী শিখা চ্যাটার্জীর  1

নিউজ ডেস্ক: দলীয় কর্মী গ্রেফতার হওয়ায় ক্ষুব্ধ বিজেপি প্রার্থী শিখা চ্যাটার্জী পৌঁছে গেলেন এনজিপি থানায়। তিনি জানান, বিনা দোষে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে দলের কর্মীকে। ভোট কেন্দ্রের সামনে বিজেপির স্লিপ ভোটারদের বন্টন করার অভিযোগে শিলিগুড়ির ঠাকুরনগর থেকে কার্তিক কবিরাজ নামের এক বিজেপি কর্মীকে আটক করে এনজেপি থানার পুলিশ।

পুলিশ কি গৌতম দেবের দাস না কি? দলীয় কর্মীকে আটকের প্রতিবাদে ক্ষোভ উগড়ে প্রশ্ন বিজেপি প্রার্থী শিখা চ্যাটার্জীর  2

অভিযোগ নাকোচ করেছেন ফুলবাড়ি-ডাবগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শিখা। তিনি জানান, কার্তিক কবিরাজ নির্দোষ, তাকে ফাঁসানো হয়েছে। তিনি হুংকারের সুরে বলেন, পুলিশ গৌতম দেবের দাস না কি? কেন ছাড়া হবে না তার দলের কর্মীকে? প্রশ্ন তোলেন তিনি। তার আরও অভিযোগ ভোটের দিন তৃণমুল কর্মীরা ভোট চাইছেন।সে বেলায় পুলিশ নীরব দর্শক।

পুলিশ কি গৌতম দেবের দাস না কি? দলীয় কর্মীকে আটকের প্রতিবাদে ক্ষোভ উগড়ে প্রশ্ন বিজেপি প্রার্থী শিখা চ্যাটার্জীর  3

শিখা চ্যাটার্জী জানান, যাকে ধরে নিয়ে আসা হয়েছে, তিনি অতি স্বজ্জন ব্যক্তি। তিনি অভিযোগ করেন,প্রাক্তন মন্ত্রী তথা বতৃণমুল প্রার্থী গোতম দেব তাদের কর্মীকে বারংবার হুমকি দিয়েছে যে, ঠাকুরনগরে থেকে বিজেপিকে ভোট দেওয়া যাবে না। পাশাপাশি শিখা চ্যাটার্জী জানান, পুলিশ জানিয়েছেন, তারা দেখছেন।

তাঁর দাবী অবশ্যই তাদের কর্মীকে ছাড়া হবে, কারণ তিনি কোনও চুরি করেননি। সেইসঙ্গেই তিনি জানান, যদি তাদের কর্মীকে ছাড়া না হয়, তবে বৃহত্তর আন্দোলনে নামবেন তারা। এমন আন্দোলন হবে, যা দেখে তৃণমূল প্রার্থী গৌতম দেব চমকে যাবে বলেও তিনি হুঁশিয়ারি দেন এদিন।

উল্লেখ্য, পঞ্চম দফার নির্বাচনে স্পর্শকাতর কেন্দ্র ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্র। এই কেন্দ্রে বরাবরই রাজত্ব চলে এসেছে মন্ত্রী গৌতম দেবের। এবারেও তিনি তৃণমুলের প্রার্থী এই কেন্দ্র থেকে। প্রতিপক্ষ বিজেপির শিখা চ্যাটার্জী ও সংযুক্ত মোর্চার বাম প্রার্থী দিলীপ সিং। মন্ত্রীর সব থেকে বেশি মাথা ব্যাথার কারণ শিখা চ্যাটার্জী। কারণ রাজ্যজুড়ে গেরুয়া ঝড়ের দাপট অব্যাহত। এরই মধ্যে এদিন বিজেপি কর্মী আটক হওয়ায় তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠেন শিখা চ্যাটার্জী। পৌঁছে যান এনজেপি থানায়। কথা বলেন থানার ওসির সঙ্গে। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তার অভিযোগ,পুলিশ তৃণমুলের দলদাস, যা গৌতম দেব বলছে তাই করছে।

Previous articleবিজেপির এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে
Next article২০হাজার সংক্রমনের পথে পশ্চিম মেদিনীপুর! ২দিনে চল্লিশের বেশি আক্রান্ত খড়গপুরে, ভ্যাকসিন না পেয়ে ফিরল মানুষ, বিক্ষোভে ‘আমরা বামপন্থী’