তিন সাংসদকে ফের প্রার্থী বিজেপির, শিল্পী পাড়ায় বাবুলকে এনে মহানগরে ঝড় তুলতে চায় বিজেপি

483
তিন সাংসদকে ফের প্রার্থী বিজেপির, শিল্পী পাড়ায় বাবুলকে এনে মহানগরে ঝড় তুলতে চায় বিজেপি 1

অশ্লেষা চৌধুরী: তৃতীয় ও চতুর্থ দফার প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে গিয়ে নজির বিহীন সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য বিজেপির নির্বাচনী কমিটি। লোকসভায় জয়ী হওয়া তিন সাংসদকে ফের বিধানসভায় প্রার্থী করা হল যার মধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় রয়েছেন। রবিবার দিল্লিতে দলীয় সদর দফতর থেকে তৃতীয় ও চতুর্থ দফার ভোটের প্রার্থীতালিকা প্রকাশ করেছে বিজেপি। তৃতীয় দফায় ৩১টির মধ্যে ২৭টি ও চতুর্থ দফায় ৪৪-এর মধ্যে ৩৬টি আসনের প্রার্থীতালিকা ঘোষণা করে বিজেপি।

তিন সাংসদকে ফের প্রার্থী বিজেপির, শিল্পী পাড়ায় বাবুলকে এনে মহানগরে ঝড় তুলতে চায় বিজেপি 2

আর প্রার্থী তালিকা প্রকাশ্যে আসতেই দেখা যায় বেশ কিছু চমক, যার মধ্যে প্রথম চমক হল, তালিকায় তিন সাংসদ- লকেট, নিশীথ ও বাবুল, যিনি আবার এক এদিকে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীও। সেইসাথেই ডোমজুরে তৃণমূল ত্যাগী বিজেপি নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, সিঙ্গুরে রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য, আলিপুরদুয়ারে অশোক লাহিড়ি (অর্থনীতিবিদ),
কসবায় ইন্দ্রনীল খাঁ (চিকিৎসক), শ্যামপুরে তনুশ্রী চক্রবর্তী, বেহালা পূর্বে পায়েল সরকার, চণ্ডীতলায় যশ দাশগুপ্ত সহ তারকা প্রার্থীদের টিকিট দিয়ে চমক দিল গেরুয়া শিবির।

তিন সাংসদকে ফের প্রার্থী বিজেপির, শিল্পী পাড়ায় বাবুলকে এনে মহানগরে ঝড় তুলতে চায় বিজেপি 3

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হয়ে গিয়েছে, সেই ৫ তারিখে, আর প্রথম ও দ্বিতীয় দফার পর এদিন তৃতীয় ও চতুর্থ দফায় প্রার্থী ঘোষণা করে বিজেপি। খুব ভেবে চিন্তেই যে এই তালিকা প্রকাশ করেছে তারা সেকথা বলা বাহুল্য। একদিকে যেমন দিনহাটায় উদয়ন বধে দাঁড় করানো হয়েছে সাংসদ নিশীথ প্রামাণিককে, তেমনই চুঁচুড়ায় মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের বিপরীতে সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়কে প্রার্থী করেছে বিজেপি। সেক্ষেত্রে লড়াইটা যে জোরদার হবে তা বিঝতে বাকি নেই কারও। অপরদিকে টালিগঞ্জ থেকে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী তথা আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়কে প্রার্থী করা হয়েছে। যেই টালিগঞ্জে বাবুলের প্রতিপক্ষ রয়েছে অসিত মজুমদার (তপন)। এছাড়াও টলিপাড়ায় সব শিল্পী দের বসবাস, আর শিলী পাড়ায় ঝড় তুলতেই যে বিজেপি বাবুলকে সেখান থেকে প্রার্থী করেছে, সে আলোচনাই এখন সর্বত্র।

এছাড়া সিঙ্গুরের মাস্টারমশাই, যিনি টিকিট না পেয়ে তৃণমূল ছেড়ে পদ্ম শিবিরে ভিড়েছেন মাত্র দু-চারদিন আগে, তাকেও নিরাশ করেনি বিজেপি। বেচারামের বিপক্ষে তাকেই সেখানে লড়াইয়ের সুযোগ দিয়েছে গেরুয়া শিবির। নিরাশ করেনি রাজীবকেও, যার হুঁশিয়ারি আগের থেকেই ছিল যে তৃণমূল ছেড়ে দিলেও প্রার্থী হয়ে সেখান থেকেই লড়বেন, কারণ তিনি সেখানকার ভূমিপূত্র।

এর আগে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে শুভেন্দুকেও মমতার বিপরীতে লড়াইয়ের সুযোগ দিয়েছে বিজেপি, যেই নন্দীগ্রামেই এখন সবার নজর টিকে। সেই সাথেই টালিগঞ্জ থেকে সিঙ্গুর ও ডোমজুড় থেকে দিনহাতা কেন্দ্র প্রার্থী নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশ বুঝে শুনে গুটি সাজিয়েছে বিজেপি বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

Previous articleনন্দীগ্রাম দিবসের দিনেই শুভেন্দুর বিরুদ্ধে পোস্টার; শাসক বনাম গেরুয়া শিবিরের সংঘাতে উত্তপ্ত সোনাচূড়া
Next articleখেলা দেখালো আইএসএফ! ২তৃনমূল নেতা সহ ৫০০ সমর্থক ভিড়লেন আব্বাস শিবিরে