দশমীর রাতে বিজেপি কর্মীকে গুলি করে খুন, চাঞ্চল্য দিনহাটায়

315
Advertisement

ওয়েব ডেস্ক : রাজ্যে গেরুয়া শিবিরে একের পর এক কর্মী খুনের ঘটনা প্রকাশ্যে আসছে। দশমীর রাতে বাড়ির সামনেই গুলি করে খুন করা হল এক বিজেপি কর্মীকে। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার জেলার সিতাই গ্রামে। জানা গিয়েছে, মৃত ওই বিজেপি কর্মীর দাম রুইদাস বিশ্বাস। তিনি বিজেপির সক্রিয় সদস্য ছিলেন। ঘটনায় অভিযোগের তির শাসকদলের বিরুদ্ধে। বছর ঘুরলেই বিধানসভা নির্বাচন, এর আগে রাজ্যে একাধিকবার বিজেপি কর্মীদের নৃশংস খুনের ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই বেশ খানিকটা চাপের মধ্যেই রয়েছেন গেরুয়া শিবির।

Advertisement

জানা গিয়েছে, কোচবিহারের দিনহাটার ব্রহ্মত্তরচাতরা গ্রামে রুইদাস বিশ্বাসের বাড়িতে প্রতি বছরই দুর্গাপুজো পালন করা হয়। সে অনুযায়ী সোমবার রাতেও বাড়িতেই বিজয়া দশমী পালন করা হচ্ছিল। সেখানেই উপস্থিত ছিলেন রুইদাসবাবু। এরপর রাতের দিকে তাকে দেখতে না পেয়ে পরিবারের লোকেরা খোঁজ শুরু করলে আচমকা বাড়ির সামনে তাঁকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। বিষয়টি নজরে আসতেই সকলে ছুটে আসতেই দেখা যায় তাঁর চোখের নীচে গুলি করা হয়েছে৷ ঘটনায় রুইদাস বিশ্বাসের পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, এলাকায় রুইদাসবাবু বিজেপি সক্রিয় সদস্য হিসেবে বেশ পরিচিত। তবে কে বা কারা রুইদাস বিশ্বাসকে গুলি করেছে তা কেউ না দেখলেও পরিবারের সদস্যদের অনুমান রাজনৈতিক কারণেই তাকে খুন করা হয়েছে।

Advertisement
Advertisement

এদিকে, ঘটনার পর পরিবারের তরফে রক্তাক্ত অবস্থায় দ্রুত রুইদাস বিশ্বাসকে দিনহাটা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এদিকে ঘটনার বেশ কয়েকঘন্টা পর খবর পেয়ে সিতাই থানার আইসি সৌর্যদীপ্ত ভট্টাচার্য, দিনহাটা থানার আইসি সঞ্চয় দত্ত ও দিনহাটার এসডিপিও মানবেন্দ্র দাস ঘটনাস্থলে যান। কে বা কারা কি উদ্দেশ্যে রুইদাস বাবুকে খুন করলো? এর পিছনে কোনো রাজনৈতিক যোগ আছে কিনা তা নিয়ে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

ওয়েব ডেস্ক : রাজ্যে গেরুয়া শিবিরে একের পর এক কর্মী খুনের ঘটনা প্রকাশ্যে আসছে। দশমীর রাতে বাড়ির সামনেই গুলি করে খুন করা হল এক বিজেপি কর্মীকে। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার জেলার সিতাই গ্রামে। জানা গিয়েছে, মৃত ওই বিজেপি কর্মীর দাম রুইদাস বিশ্বাস। তিনি বিজেপির সক্রিয় সদস্য ছিলেন। ঘটনায় অভিযোগের তির শাসকদলের বিরুদ্ধে। বছর ঘুরলেই বিধানসভা নির্বাচন, এর আগে রাজ্যে একাধিকবার বিজেপি কর্মীদের নৃশংস খুনের ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই বেশ খানিকটা চাপের মধ্যেই রয়েছেন গেরুয়া শিবির।

জানা গিয়েছে, কোচবিহারের দিনহাটার ব্রহ্মত্তরচাতরা গ্রামে রুইদাস বিশ্বাসের বাড়িতে প্রতি বছরই দুর্গাপুজো পালন করা হয়। সে অনুযায়ী সোমবার রাতেও বাড়িতেই বিজয়া দশমী পালন করা হচ্ছিল। সেখানেই উপস্থিত ছিলেন রুইদাসবাবু। এরপর রাতের দিকে তাকে দেখতে না পেয়ে পরিবারের লোকেরা খোঁজ শুরু করলে আচমকা বাড়ির সামনে তাঁকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। বিষয়টি নজরে আসতেই সকলে ছুটে আসতেই দেখা যায় তাঁর চোখের নীচে গুলি করা হয়েছে৷ ঘটনায় রুইদাস বিশ্বাসের পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, এলাকায় রুইদাসবাবু বিজেপি সক্রিয় সদস্য হিসেবে বেশ পরিচিত। তবে কে বা কারা রুইদাস বিশ্বাসকে গুলি করেছে তা কেউ না দেখলেও পরিবারের সদস্যদের অনুমান রাজনৈতিক কারণেই তাকে খুন করা হয়েছে।

এদিকে, ঘটনার পর পরিবারের তরফে রক্তাক্ত অবস্থায় দ্রুত রুইদাস বিশ্বাসকে দিনহাটা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এদিকে ঘটনার বেশ কয়েকঘন্টা পর খবর পেয়ে সিতাই থানার আইসি সৌর্যদীপ্ত ভট্টাচার্য, দিনহাটা থানার আইসি সঞ্চয় দত্ত ও দিনহাটার এসডিপিও মানবেন্দ্র দাস ঘটনাস্থলে যান। কে বা কারা কি উদ্দেশ্যে রুইদাস বাবুকে খুন করলো? এর পিছনে কোনো রাজনৈতিক যোগ আছে কিনা তা নিয়ে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।