মারমূখী তৃনমূল কর্মীদের হাত থেকে ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে বাবার মৃত্যুর অভিযোগ! পটাশপুরে শুরু রাজনৈতিক তরজা

495
মারমূখী তৃনমূল কর্মীদের হাত থেকে ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে বাবার মৃত্যুর অভিযোগ! পটাশপুরে শুরু রাজনৈতিক তরজা 1

নিজস্ব সংবাদদাতা, পূর্ব মেদিনীপুর :- মারমূখী তৃনমূল কর্মীদের হাত থেকে বিজেপি কর্মী ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে এমনটাই দাবি করল বিজেপির পূর্ব মেদিনীপুর নেতৃত্ব। ঘটনাকে ঘিরে উত্তেজনার পরিবেশ তৈরি হয়েছে এলাকায়। যদিও তৃনমূলের তরফে দাবি করা হয়েছে একটি স্বাভাবিক মৃত্যুকে নিয়ে অযথা রাজনীতি করছে বিজেপি ৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে মৃত ব্যক্তির নাম অমূল্য মন্ডল (৮০)। মন্ডল পরিবারের বাড়ি পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পটাশপুরের গোপালপুর এলাকায়৷  মৃত অমুল্য বাবুর ছেলে শঙ্কর মণ্ডল বছর তিনেক আগেই বিজেপি তে যোগ দেন। ফলে তিনি এলাকায় বিজেপির সক্রিয় কর্মী বলে পরিচিত ছিলেন। পয়লা জানুয়ারী গোপালপুর এলাকায় একটি মিছিলের আয়োজন করেছিল বিজেপি। সেই মিছিলের নেতৃত্ব দেন শংকর মণ্ডল। এরপর শনিবার ওই মিছিলের পাল্টা মিছিল করে তৃণমূল একই এলাকায়।

মারমূখী তৃনমূল কর্মীদের হাত থেকে ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে বাবার মৃত্যুর অভিযোগ! পটাশপুরে শুরু রাজনৈতিক তরজা 2

মৃতের পরিবারের লোকের অভিযোগ, সেই মিছিল তাদের বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় কয়েক জন তৃণমূল কর্মী লাঠিসোঁটা নিয়ে বাড়িতে চড়াও হয়। শঙ্করকে বাড়ি থেকে টেনে এনে বেধড়ক মারধর করে। তখনই তৃণমূল কর্মীদের আক্রমণের হাত থেকে ছেলেকে বাঁচাতে ছুটে আসেন বৃদ্ধ অমূল্য।তখনই আক্রমণকারী দের ধাক্কায় দুরে ছিটকে পড়েন তিনি।

মাথায় আঘাত লাগায় জ্ঞান হারান। আশঙ্কাজনক অবস্থায় অমূল্যকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় হয় চিকিৎসার জন্য। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার ভোরে তাঁর মৃত্যু হয়। পরে ময়নাতদন্তের করে মৃতদেহ বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। মৃতদেহ বাড়িতে আসতেই এলাকায় চরম উত্তেজনা চরম দেখা দেয়৷

এদিকে এই হামলার ঘটনার কথা অস্বীকার করে পটাশপুর-১ নং ব্লকের তৃণমূল সভাপতি পীষূষ পণ্ডার দাবি, ‘‘মৃত অমূল্য বাবু ৫ বছর শয্যাশায়ী। রবিবার ভোরে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। তৃণমূল মিছিল করেছিল শনিবার বিকেলে। তবুও এই ঘটনার সাথে মৃত্যু যোগের চেষ্টা চালিয়ে নোংরা রাজনীতি করছে বিজেপি।’’ অন্যদিকে বিজেপির কাঁথি সাংগঠনিক জেলার সভাপতি অনুপকুমার চক্রবর্তী বলেন, ” তৃনমূলের সন্ত্রাসের প্রতিবাদে মুখ খুলেছে মানুষ।এই ঘটনার প্রতিবাদে তাঁরা বড়সড় আন্দোলনে নামবেন।”

দাবি আর পাল্টা দাবিকে ঘিরে নির্বাচনের প্রাক্কালে ঘটনাকে ঘিরে এলাকায় চাপা উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। দু’পক্ষের কর্মীদের মধ্যেই রয়েছে পারস্পরিক রেষারেষির ভাব। এলাকায় থমথমে পরিবেশ।  ঘটনাকে ঘিরে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি পরিবেশ না তৈরি হয় তা নজর রাখছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন।

Previous articleগুরুং বিরোধী সুর চড়ছে পাহাড়ে! কার্শিয়াংয়ে বিমলের বিরুদ্ধে পোষ্টার
Next articleআজকের রাশিফল।। ৪ঠা জানুয়ারি’২০২১