পটাশপুরে ভোটের দিন কাটারি হাতে পাড়া দাপালো বিজেপি কর্মী! দেখা নেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর, অভিযোগ তৃণমূলের

223
পটাশপুরে ভোটের দিন কাটারি হাতে পাড়া দাপালো বিজেপি কর্মী! দেখা নেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর, অভিযোগ তৃণমূলের 1

নিউজ ডেস্ক: ভোটের দিন কাটারি হাতে এলাকায় দাপিয়ে বেরাচ্ছেন ব্যক্তি, এমনই চিত্র ধরা পড়ল পটাশপুরের চক গোপালপুর এলাকায়। অভিযোগ ওই ব্যক্তি এলাকায় বিজেপি কর্মী বলেই পরিচিত। ভোট চলাকালীন অস্ত্র নিয়ে রীতিমতো নজরদারি চালাতে দেখা যায় ওই ব্যক্তিকে। শুধু তাই নয়, অভিযোগ, কাটারি হাতে তিনি ভোটারদের বলছেন ‘ভোট দিতে গেলেই কেটে ফেলব।’

অভিযোগ, এদিন সকাল থেকেই ঐ এলাকায় বিজেপি কর্মী কৃষ্ণগোপাল দাসকে কাটারি হাতে ঘোরেফেরা করতে দেখা যায়। বুথের কাছে ধারাল অস্ত্র নিয়ে দাঁড়িয়ে থেকে তৃণমূল কর্মীদের ভয় দেখানোর অভিযোগ ওঠে ওই বিজেপি কর্মীর বিরুদ্ধে। তৃণমূলের অভিযোগ, দলীয় কর্মীদের বুথে আসা আটকাতে অস্ত্র নিয়ে ঘুরছিলেন এলাকার বিজেপি কর্মী কৃষ্ণগোপাল দাস। পটাশপুরের চকগোপালপুরের তৃণমূল কর্মী বলেন, ‘‘আমাদের মারধর করছে, যেতে দিচ্ছে না, কাটারি নিয়ে ঘুরছে। কী করছে কেন্দ্রীয় বাহিনী?’’

পটাশপুরে ভোটের দিন কাটারি হাতে পাড়া দাপালো বিজেপি কর্মী! দেখা নেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর, অভিযোগ তৃণমূলের 2

এমন বিতর্ক সামনে আসতেই ভয় তো দুরস্ত, উল্টে অভিযুক্ত বিজেপি কর্মীর হুঁশিয়ারি, ‘‘বাঁশ কাটতে গেলে কাটারির দরকার হয়, গাছের ডাল কাটছি, একটার পর খেলা শুরু হবে ৷’’ এরপর সংবাদমাধ্যমে খবর ছড়িয়ে পড়তেই দ্রুত কেন্দ্রীয় বাহিনী ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। তখন অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি জানান ভোটের দিন ছুটি বলে কাটারি হাতে গাছ কাটতে বেড়িয়েছেন।

প্রসঙ্গত, রাজ্যে পাঁচ জেলার ৩০টি আসনে শনিবার সকাল থেকে চলছে প্রথম দফার ভোটগ্রহণ। সকাল থেকেই বিভিন্ন জেলা থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষ, অশান্তির খবর এসেছে। বুথ জ্যাম থেকে শুরু করে ভোটে কারচুপি বাদ নেই কিছুই। আর পটাশপুরে তো শুক্রবার রাত থেকেই অশান্তির আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ব্যাপক বোমাবাজি ও তাতে ওসির আহত হওয়ার ঘটনায় উত্তপ্ত পটাশপুর। আর এদিন ভোটগ্রহন পর্ব শুরু হতেই ফের কাটারি হাতে দাপিয়ে বেরানোর খবরে উত্তেজনা ছড়ায়।

নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে করার জন্য প্রায় এক মাস আগে রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী ঢুকিয়েছে নির্বাচন কমিশন। নজিরবিহীন ভাবে প্রথমবার প্রায় সমস্ত বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে দিয়ে হতে চলেছে ভোট। কিন্তু রাজ্যে প্রথম দফা বিধানসভা নির্বাচনের দিনই হাজার রকমের অশান্তির চিত্র ধরা পড়ছে।