পচা শামুকে পা কাটছে বিজেপির ! ব্রিগেড না গিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়ল সবং থেকে শালবনী, দল ছাড়লেন বিজেপি নেতারা

1838
পচা শামুকে পা কাটছে বিজেপির ! ব্রিগেড না গিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়ল সবং থেকে শালবনী, দল ছাড়লেন বিজেপি নেতারা 1

পচা শামুকে পা কাটছে বিজেপির ! ব্রিগেড না গিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়ল সবং থেকে শালবনী, দল ছাড়লেন বিজেপি নেতারা 2শশাঙ্ক প্রধান: পচা শামুকেই নাকি পা কাটছে বিজেপির। তৃনমূলের বাতিল নেতাকে প্রার্থী করায় হাতছাড়া হতে চেলেছে এমনই দাবি তুলে ব্রিগেডে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় যাওয়ার পরিবর্তে বিক্ষোভে ফেটে পড়লেন বিজেপির সভ্য সমর্থকরা। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা জুড়ে আগের দিনও ব্রিগেড যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন এঁরা কিন্তু হিসাব গোলমাল করে দিয়েছে আগের দিনের প্রার্থী তালিকা। প্রার্থী পছন্দ না হওয়ায় ব্রিগেড যাওয়ার পরিবর্তে রবিবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা সবং থেকে শালবনী  বিক্ষোভে ফেটে পড়ল বিজেপির বেশ কিছু নেতা কর্মী সমর্থকরা।

পচা শামুকে পা কাটছে বিজেপির ! ব্রিগেড না গিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়ল সবং থেকে শালবনী, দল ছাড়লেন বিজেপি নেতারা 3

এদিন বড়সড় বিক্ষোভ হয়েছে সবং বাজার এলাকায়। সদ্য তৃনমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়া অমূল্য মাইতিকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করার প্রতিবাদে অবরোধ করা হয় সবং রাজ্য সড়ক। ফলে ওই রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।পথ অবরোধ তুলতে গিয়ে পুলিশ বলপ্রয়োগ করেছে বলে অভিযোগ করেছে বিজেপির বিক্ষোভরত কর্মীরা।

পচা শামুকে পা কাটছে বিজেপির ! ব্রিগেড না গিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়ল সবং থেকে শালবনী, দল ছাড়লেন বিজেপি নেতারা 4

সবং বিজেপি দলের ঘাটাল সাংগঠনিক জেলা কমিটি আওতায় পড়ে। সেই কমিটির সদস্য নির্মল বালা সহ আরো কয়েকজনকে এই অবরোধে সামিল হয়ে পুলিশের হাতে মার খেয়েছেন বলে অভিযোগ। এদিন রুইনান বাসস্ট্যান্ডেও বিজেপির পক্ষ থেকে প্রতিবাদে পথ অবরোধ হয়। রবিবার বহু গাড়ি ওরা ঠিক করেছিল ব্রিগেড এর সভায় যাবে বলে। কিন্তু সমস্ত গাড়ি বাতিল করে নরেন্দ্র মোদীর সভায় না গিয়ে দলের প্রার্থী অমূল্য মাইতির প্রার্থী পদ তারা বাতিলের দাবি জানান।

নির্মল মাইতি জানিয়েছেন, ‘সবং এর বিভিন্ন জায়গায় বিজেপির প্রার্থী অমূল্য মাইতির প্রার্থী পদ প্রত্যাহার এর দাবিতে বিজেপি কর্মীরা সবং বিধানসভা জুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু করবেন তাঁরা।তাদের দাবি অবিলম্বে অমূল্য মাইতির নাম প্রার্থী হিসেবে বাতিল করতে হবে।” না হলে বিজেপির কর্মীরা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলে জানান। শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ তৃণমূল থেকে বিজেপি দলে যোগ দেওয়া অমূল্য মাইতি কে বিজেপি কর্মীরা তাদের প্রার্থী হিসেবে মেনে নেবে না বলে দলের জেলা নেতাদের তারা হুমকি দিয়েছেন ।যদি তাদের কথা না শুনে তাহলে তারা প্রয়োজনে অন্য সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবে বলে বিজেপির কর্মীরা জানান।

এদিন শালবনীতে ঘটনা আরও চমকপ্রদ। প্রার্থী না পসন্দ হওয়ায় রবিবার দল ছাড়লেন বলে জানিয়েদিলেন শালবনী বিধানসভার বেশ কয়েকজন বিজেপি নেতা। বিক্ষুব্ধদের নেতা পশুপতি দেবসিংহ জানান, যাঁকে দল প্রার্থী করেছে সেই রাজীব কুন্ডুর কোনও জন ভিত্তিই নেই। সাধারণ মানুষের সঙ্গে তিনি থাকেননা। তাঁর হয়ে লড়াই করা তাঁদের পক্ষে সম্ভব নয়।
এই দল ছাড়ার তালিকায় রয়েছেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ওবিসি মোর্চার সাধারণ সম্পাদক পশুপতি দেবসিংহ, রাজ‍্য কমিটির সদস্য ধীমান কোলে, রাজ‍্য ওবিসি মোর্চার সদস্য নিরাপদ মাহাত, জেলা নেতা সুনীল মাহাত, শালবনী উত্তর মণ্ডল সভাপতি সজল মাহাত, শালবনী ব্লকের ৬ নং অঞ্চলের উপপ্রধান বিমান মাহাত, পিংবনী অঞ্চলের প্রধান বিশ্বজিৎ মাহাত সহ প্রায় ৫০০ কর্মী সমর্থক।

এদিনই নিজেদের মধ্যে একটি বৈঠক সেরে ফেলেন এই বিক্ষুব্ধরা। শালবনী জয়পুরে সেই বৈঠক শেষে তাঁরা জানিয়ে দেন আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তাঁরা কুড়মি
সমন্বয় মঞ্চের প্রার্থীদের সমর্থন করবেন। এই বৈঠকে কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের নেতারা ছাড়াও হিন্দু জাগরণ মঞ্চের ঋজু কারক, তপন মাল, পলাশ দুলে ও কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের কয়েকজন নেতা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ বিজেপি নেতা প্রদীপ লোধা।

যদিও অন্যদিকে ঘাটাল সাংগঠনিক জেলার সভানেত্রী অন্তরা ভট্টাচার্য বলেন,” বিজেপি শৃঙ্খলাবদ্ধ দল। এখানে দলের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। কিছু ক্ষোভ ছিল।, ইতিমধ্যে সেই সমস্যা মিটে গেছে।” পশ্চিম  মেদিনীপুর বিজেপিরএক নেতা জানিয়েছেন, ‘সর্বত্রই এই বিক্ষোভে নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রবীণ নেতা কর্মীরাই। দলের অসময়ে থাকা এই ব্যক্তিদের এখন দলে গুরুত্ব নেই। কিন্তু এই পচা শামুকেই আমাদের পা কাটতে চলেছে।” উল্লেখ্য বিজেপির প্রার্থী ঘোষনার পর ওই দিন রাতেই দলীয় বিক্ষোভ প্রথম শুরু হয় নারায়নগড়ে। সদ্য বিজেপিতে আসা রমাপ্রসাদ গিরিকে প্রার্থী করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ হয় খোদ নারায়নগড় হাঁদলাতে।

Previous articleপ্রয়াগ ফিল্মসিটিতে আবর্জনার স্তূপে আগুন! দমকলের তৎপরতায় বেঁচে গেল কোটি কোটি টাকার সম্পদ
Next articleডিল ফাইনাল! ওয়াই নাকি জেড ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পাবেন মুনমুন? ভাবনা শুরু খড়গপুর নেতাকে নিয়ে