এবার ঘর ভাঙল বিজেপির, সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী এলেন তৃনমূলে! বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিশ পাঠাবেন সৌমিত্র

724
এবার ঘর ভাঙল বিজেপির, সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী এলেন তৃনমূলে! বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিশ পাঠাবেন সৌমিত্র 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: বর্ষ শেষের সব চেয়ে অবাক করা কান্ড কী তাহলে এটাই? বিজেপির দাপটে যখন একের পর এক সাংসদ আর বিধায়ক তৃনমূলের ঘর ছেড়ে পদ্মশিবিরে ভিড় করছেন তখন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে চললেন রাজ্য বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতির ঘরণী! হ্যাঁ অবিশ্বাস্য এই ঘটনা ঘটল সোমবার। সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী সুজাতা যোগ দিলেন তৃণমূলে। এদিকে সুজাতা প্রেস মিট করে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করতেই সৌমিত্র খাঁ তাঁকে বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

২০১৯ শে একাধিক মামলায় জেরবার সৌমিত্র যখন নিজের লোকসভা কেন্দ্র বিষ্ণুপুরে ঢুকতেই পারছিলেন না ভোটের প্রচারে তখন একাই ভোটে কার্যত একাহাতে স্বামীর হয়ে প্রচার চালিয়েছিলেন তিনি। বিষ্ণুপুরে পদ্মফুল ফোটানোর অন্যতম কারিগর ছিলেন সৌমিত্র খাঁ’র স্ত্রী সুজাতা মণ্ডল খাঁ। আর সেই সুজাতা এবার যোগ দিলেন তৃণমূল কংগ্রেস। জানালেন, তৃণমূলে যোগ দিয়ে ‘নিঃশ্বাস’ নিতে পারছেন।

এবার ঘর ভাঙল বিজেপির, সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী এলেন তৃনমূলে! বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিশ পাঠাবেন সৌমিত্র 2

সোমবার তৃণমূল ভবনে যোগদানের আগে সুজাতা বলেন, ‘দিনের শেষে আমরা সম্মান চাই। যোগ্যতার প্রকৃত বিচার-মর্যাদা চাই। কোনও দলে যদি যোগ্যতাই ক্ষুণ্ণ হয়, মর্যাদা পাওয়া না যায়, সেখানে থাকা মানে মূর্খামি।’ কিন্তু বিষয়টা কি শুধুমাত্র রাজনৈতিক নাকি রয়েছে সৌমিত্র আর সুজাতার পারস্পরিক সম্পর্কের অবনতি? রাজনীতির বাইরে গিয়ে এই প্রশ্ন তাড়া করে বেড়াচ্ছে কৌতূহলি মানুষকে। যদিও সেই প্রশ্নের উত্তর দেননি সুজাতা। বলেছেন, ‘ঘরের বিষয়টি ঘরেই থাক তাকে রাজনীতির মধ্যে আনবনা।’ বলেছেন, ‘সৌমিত্রের যেদিন শুভবুদ্ধি উদয় হবে সেদিন ও নিজেও তৃণমূলে আসবে।”

সুজাতা বলেছেন, ‘২০১৯ য়ের পর ৯ই জানুয়ারি সৌমিত্র বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর নির্মম অত্যাচার সহ্য করেছি। আমার বাপের বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। আমরা যারা রক্ত ঘাম ঝরিয়ে রাজনীতি করেছি তাঁদের কোনও জায়গা নেই। তার জায়গায় অন্য দলের পচা আলু আনা হচ্ছে বিজেপিতে। বিজেপি কাউকে মূখ্যমন্ত্রী আর উপ মূখ্যমন্ত্রীর লোভ দেখিয়ে দলে আনা হচ্ছে। এখনি বিজেপিতে ৬জন মূখ্যমন্ত্রী আর ১৩জন উপমূখ্যমন্ত্রী হয়ে বসে আছেন। এই দলে কোনও মুখ নেই। তাই এই দলে থাকার কোনও প্রয়োজন মনে করছি।”

সুজাতা বলেছেন মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী আর অভিষেক ব্যানার্জীর নেতৃত্বে লড়াই করব এবার। শুভেন্দু অধিকারীর দলত্যাগকে তিনি তৃনমূলের মঙ্গল হয়েছে বলে জানান, ‘দুষ্ট গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভাল। যত ওই ধান্দাবাজ, লোভী,ভোগীরা দল ছেড়ে যাবেন ততই দল পবিত্র হবে। বিজেপি আজ তৃনমূলের ওই ধান্দাবাজ, লোভী,ভোগীদের নিয়েই ক্ষমতায় আসার চেষ্টা করছে।”  অন্যদিকে সুজাতার এই প্রেসমিট করার পরই সৌমিত্র একটি প্রেসমিট করে জানিয়ে দিয়েছেন, কিছুক্ষনের মধ্যেই সুজাতাকে বিবাহ বিচ্ছেদের আইনি নোটিশ পাঠাতে চলেছেন।