প্রশাসক পদ থেকে অপসারণ,রাজ্য সরকারকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে হাইকোর্টে মামলা শুভেন্দুর ভাইয়ের

146
প্রশাসক পদ থেকে অপসারণ,রাজ্য সরকারকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে হাইকোর্টে মামলা শুভেন্দুর ভাইয়ের 1

নিউজ ডেস্ক:গোপনে আতাঁত রয়েছে বিজেপির সঙ্গে।দাদা শুভেন্দু অধিকারীর জনসভায় লোক পাঠান।এই অভিযোগের ভিত্তিতে কাঁথি পুরসভার প্রশাসক পদ থেকে সৌমেন্দু অধিকারীকে সরিয়ে দেওয়া হয় পুরদপ্তরের পক্ষ থেকে।এবার কাঁথি পুরসভার প্রশাসক পদ থেকে অপসারণ নিয়ে রাজ্য সরকারের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ অধিকারী পরিবারের কনিষ্ঠ পুত্র সৌমেন্দু অধিকারী।

ওই নির্দেশিকা জারির পদ্ধতিতে আইনগত ত্রুটি রয়েছে, এই অভিযোগ তুলেই মামলা দায়ের করেছেন সৌমেন্দু অধিকারীর আইনজীবী। আগামী ৪ জানুয়ারি মামলাটির শুনানি হবে বলে খবর। চলতি সপ্তাহেই কাঁথি পুরসভার প্রশাসক বোর্ড ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে চিঠি পাঠানো হয় রাজ্য সরকারের তরফে। সেই অনুযায়ী, প্রশাসকের পদ থেকে শুভেন্দু অধিকারীর ভাই সৌমেন্দুকে অপসারণ করা হয়। নতুন বোর্ডে সিদ্ধার্থ মাইতি নামে আরেক ব্যক্তিকে বসানো হবে,এমনই উল্লেখ ছিল। এই চিঠি মেনে নিতে পারেনি অধিকারী পরিবার। তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী এবং বর্ষীয়ান সাংসদ তথা পরিবারের অভিভাবক শিশির অধিকারী রাজ্যের পুর দপ্তরের এই সিদ্ধান্ত মোটেই ভালভাবে নেননি।

প্রশাসক পদ থেকে অপসারণ,রাজ্য সরকারকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে হাইকোর্টে মামলা শুভেন্দুর ভাইয়ের 2

শিশিরবাবু এবং দিব্যেন্দুবাবু এও জানিয়েছিলেন যে সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না করা হলে, তাঁরাও পুরসভায় নিজেদের কাজে যাবেন না। এরমধ্যে জল্পনা জোরালো হয়েছে, দাদা শুভেন্দুর পথে হেঁটে শিগগিরই বিজেপিতে যোগ দেবেন সৌমেন্দু। পুরপ্রশাসক পদ থেকে তাঁকে সরানোর রাজ্য সরকারি নির্দেশিকাকে চ্যালেঞ্জ করে সোজা আইনের পথ ধরলেন অধিকারী পরিবারের কনিষ্ঠ পুত্র।

রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দপ্তরের কাঁথি পুরসভার প্রশাসক বোর্ড ভেঙে দেওয়া কতটা আইনি, সেই প্রশ্ন তুলে মামলা দায়ের করেছেন সৌমেন্দু বলে খবর। এদিকে, কেন এমনটা করা হল, তা বিস্তারিত জানতে চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখতে পারেন তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী।