করোনা বুলেটিন, দেশ ও রাজ্য

635
Advertisement

২২এপ্রিল, রাত ১১: ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪৮৬ জন কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হয়েছেন । কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২২ এপ্রিল, বুধবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২০৪৭১ । ইতিমধ্যেই কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হয়ে ৬৫২ জনের মৃত্যু হয়েছে । অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু বেড়েছে ৪৯ । অবশ্য এর মধ্যে ৩৯৬০ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন । একদিনে সুস্থ হয়েছেন ৭০০ জন । অর্থাৎ এই মুহূর্তে দেশে কোভিড অ্যাকটিভ ১৫৮৫৯ জন ।কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে এই পরিসংখ্যান ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চের পরিসংখ্যানের সঙ্গে মিলিয়ে দেখা হচ্ছে ।

Advertisement

এই বুলেটিন অনুযায়ী দেশে আক্রান্তের সংখ্যায় শীর্ষে মহারাষ্ট্র । এই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়িয়েছে । মহারাষ্ট্রে এই মুহূর্তে আক্রান্তের সংখ্যা ৫২২১ । করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে গুজরাট । এই রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২২৭২ । দিল্লিতে ২১৫৬ জন কোভিড ১৯ পজিটিভ রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছে ।
মৃতের সংখ্যাও সবথেকে বেশি মহারাষ্ট্রেই । এই রাজ্যে ২৫১ জনের মৃত্যু হয়েছে । গুজরাতে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে । মধ্যপ্রদেশের মারা গিয়েছে ৮০ জন ।
এছাড়াও আরও ৫ রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে । অরুণাচল প্রদেশে ১ জন, মেঘালয়ে ১২ জন, ত্রিপুরাতে ২জন, ঝাড়খণ্ডে ৪৫ জন ও অসমে ৩৫ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন । অসমে ১ জনের, ঝাড়খণ্ডে ৩ জনের এবং মেঘালয়ে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। অরুণাচল প্রদেশে ১ জন, ত্রিপুরাতে ১ জন ও অসমে ১৯ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে খবর ।

Advertisement
Advertisement

পশ্চিম বাংলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন । রাজ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে এখন ৩০০ । কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, শিলিগুড়ি থেকে নতুন পজেটিভ কেস এসেছে । তবে মালদায় করোনার কোনও পজেটিভ কেস নেই । মোট ৮৫টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল । সবকটি-ই নেগেটিভ এসেছে ।
এদিকে আরজি করে করোনা আতঙ্ক । কার্ডিওলজি বিভাগের এক চিকিৎসকের শরীরে নোভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণের আশঙ্কার খবর মিলতেই, ৯ জন চিকিৎসককে কোয়ারেন্টাইনে পাঠাল হাসাপাতাল কর্তৃপক্ষ । আরজিকর সূত্রে খবর, ওই চিকিৎসক সহ মোট ৬ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ হয়েছে বলে আশঙ্কা ।