বর্ধমানে বোমা বিস্ফোরনে মাথার অর্ধাংশ উড়ে মৃত্যু শিশুর! রাজনৈতিক কারণেই কী বোমা মজুত? খতিয়ে দেখছে পুলিশ

196
বর্ধমানে বোমা বিস্ফোরনে মাথার অর্ধাংশ উড়ে মৃত্যু শিশুর! রাজনৈতিক কারণেই কী বোমা মজুত? খতিয়ে দেখছে পুলিশ 1

নিউজ ডেস্ক: বল ভেবে বোমা নিয়ে খেলতে গিয়ে বিস্ফোরণ, ঘটনাস্থলেই মৃত ১ শিশু। আশঙ্কাজনক অবস্থায় বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আরও একজন শিশু। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে, বর্ধমান শহরের তিন নম্বর ওয়ার্ডের রসিক পুর সুভাষ পল্লী মোড়ের কাছে। জানা গিয়েছে মৃত শিশুর নাম শেখ আফরোজ, বয়স ৭বছর। অপরদিকে জখম শেখ ইব্রাহিমের বয়স ৮বছর; জানা গিয়েছে ইব্রাহিমের বাড়ি মেমারিতে। সে মামার বাড়ি বেড়াতে এসেছিল।

বর্ধমানে বোমা বিস্ফোরনে মাথার অর্ধাংশ উড়ে মৃত্যু শিশুর! রাজনৈতিক কারণেই কী বোমা মজুত? খতিয়ে দেখছে পুলিশ 2

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার সকালে রসিকপুর যুব ওয়েলফেয়ার সোস্যাইটির সামনে পৌরসভার জলের কলের পাশে একটি উঁচু জায়গা থেকে শেখ আফরোজ মাটি নিচ্ছিল। সেই সময় মাটির নিচে বলের মত কোন বস্তু তার হাতে আসে। সেটিকে বল মনে করে মাটিতে ফেলতেই বিকট আওয়াজে এলাকা কেঁপে ওঠে। ঘটনাস্থলেই রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে যায় আফরোজ। ছিটকে পনিউজ ডেস্ক: ড়ে সঙ্গে থাকা শেখ ইব্রাহিম। কারও কিছু বোঝার আগেই এই ঘটনা ঘটে যাওয়ায় গোটা এলাকা জুড়ে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় এলাকাবাসীরা ছুটে আসেন শিশু দুটিকে উদ্ধার করতে। তাদের উদ্ধার করে বর্ধমান হাসপাতালে নিয়ে গেলে আফরোজকে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। বোমা বিস্ফোরণে শেখ আফরোজ নামের সেই শিশুর মাথায় প্রবল আঘাত লাগে। এমনকি তাঁর মাথার একটা পাশ বোমার আঘাতে উড়ে গিয়েছে বলেও খবর রবং জন্যই ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। শেখ ইব্রাহিম বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন।

বর্ধমানে বোমা বিস্ফোরনে মাথার অর্ধাংশ উড়ে মৃত্যু শিশুর! রাজনৈতিক কারণেই কী বোমা মজুত? খতিয়ে দেখছে পুলিশ 3

ঘটনাস্থলে পৌঁছে কীভাবে এই বোমা এল তা নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত শুরু করেছে বর্ধমান জেলা পুলিশ আধিকারিকেরা। এলাকায় এসেছেন বোম ডিসপোজাল স্কোয়াড-এর কর্মীরা। তাঁরা খতিয়ে দেখছেন, কী ধরণের বোমা সেখানে রাখা ছিল। এমনকী আশেপাশে আর কোথাও বোমা রাখা আছে কি না তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ভোটের আগে ভোটারদের মন থেকে ভয় দূর করতে আধা সামরিক বাহিনী নামানো হয়েছে। তারা এলাকায় এলাকায় রুট মার্চ করছে। কিন্তু শহরের কোথায় কোথায় বোম রাখা আছে তার খবর প্রশাসনের কাছে নেই? এই প্রশ্নই তুলছেন এলাকাবাসীরা। উল্লেখ্য এই রসিকপুর এলাকায় এর আগেও বহুবার বোমা উদ্ধার হয়েছে। একাধিকবার তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়েছে এলাকা। গ্রেফতার হয়েছে এলাকারই একাধিক যুবক। এদিনের এই ঘটনা কি তেমনই কোনও রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণ, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ আধিকারিকেরা। তবে একেবারে নির্বাচনের মুখে এমন বোমা বিস্ফোরণের ঘটায় নতুন করে উত্তেজনা ও আতঙ্ক ছড়াল এলাকায়।

Previous articleফের পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ নিহাঙ্গ শিখদের! এলোপাথাড়ি তরবারির কোপে হাত কাটল দুই পুলিশ আধিকারিকের
Next articleপ্রার্থী অপছন্দ ; বাংলা জুড়ে দফায় দফায় বিক্ষোভ অব্যাহত বিজেপি কর্মী সমর্থকদের