টানা ৩ দিন জেরার পরেও বয়ানে অসঙ্গতি, রিয়া-সৌভিকের পলিট টেস্ট করাতে চান সিবিআই

175

ওয়েব ডেস্ক : শুক্রবার থেকে টানা ৩ দিন লাগাতার জেরা করা হয়েছে রিয়া চক্রবর্তী ও তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তীকে। কিন্তু এর আগের দু’দিন অর্থাৎ শুক্রবার ও শনিবার দুজনকে টানা ১৪ ঘন্টা জেরা করা হলেও তাদের থেকে সেভাবে আশাপ্রদ কোনও উত্তর পায়নি সিবিআই। সেকারণে রবিবার ফের তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়। জানা গিয়েছে, এদিনও রিয়া চক্রবর্তীকে একাধিক বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তার বয়ানে সন্তুষ্ট নন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। সেকারণে এবার সত্য উদঘাটনে দুজনের পলিট টেস্ট করার কথা ভাবছেন সিবিআই আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন -  প্রতিবাদের আড়ালে কি সমাজ বিরোধিরাই দাপিয়ে বেড়াচ্ছে, মুর্শিদাবাদে একের পর এক ট্রেনে আগুন, চেষ্টা হল ক্যাশ লুটের

তবে রিয়া-সৌভিকের পলিট টেস্ট করানোর আগে তাদের আরও একবার জিজ্ঞাসাবাদ করতে চান সিবিআই আধিকারিকরা। সেকারণে সোমবার ফের তাদের ডেকে পাঠানো হয়েছে। এদিকে রবিবার শুধুমাত্র রিয়া-সৌভিক নয়, একই সাথে এদিন সিদ্ধার্থ পাঠানি ও স্যামুয়েল মিরান্ডা, এমনকি সুশান্তের দিদি মিতু সিংকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেন সিবিআই আধিকারিকরা৷ এদিকে গত কয়েকদিন আগেই সিবিআইয়ের তরফে রিয়ার মুছে দেওয়া হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট উদ্ধার করা হয়। তাতে দেখা যায় ২০১৭ সালে গোয়ার হোটেল ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত গৌরব আর্যর সাথে চ্যাটে একাধিক নিষিদ্ধ মাদকের খোঁজ করেছেন রিয়া চক্রবর্তী। এর থেকেই অনুমান রিয়ার সাথে মাদক যোগ রয়েছে৷

পাশাপাশি, মনে করা হচ্ছে সুশান্ত রিয়াকে নিয়মিত মাদক দিত। এই ধরণের বেশ কিছু অজানা তথ্য জানতে ইডির তরফে গৌরব আর্যকে মুম্বাই ডেকে পাঠানো হয়েছে৷ রবিবারই সে গোয়া থেকে মুম্বাইয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন। এদিকে রবিবার, গৌরব আর্য গোয়া থেকে মুম্বই আসার জন্য রওনা দিতেই গোয়া বিমানবন্দরে তাকে সাংবাদিকরা ঘিরে ফেলেন। এরপরই তাকে সুশান্তের বিষয়ে একাধিক প্রশ্ন করা হয়। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে গৌরব বলেন, ”এই মামলার সঙ্গে আমার কোনও সম্পর্ক নেই। সুশান্তের সঙ্গে কোনওদিনই আমার আলাপ হয়নি। আমি রিয়াকে চিনতাম। ২০১৭তে রিয়ার সঙ্গে আমার আলাপ হয়।”

টানা ৩ দিন জেরার পরেও বয়ানে অসঙ্গতি, রিয়া-সৌভিকের পলিট টেস্ট করাতে চান সিবিআই 1