করোনায় বেহাল শিক্ষাব্যবস্থা, আগামী শিক্ষাবর্ষে সিবিএসই-র সিলেবাস কমানোর সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের

174
করোনায় বেহাল শিক্ষাব্যবস্থা, আগামী শিক্ষাবর্ষে সিবিএসই-র সিলেবাস কমানোর সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের 1

ওয়েব ডেস্ক : করোনায় গোটা দেশের শিক্ষাব্যবস্থার বেহাল পরিস্থিতি। দীর্ঘ ৪ মাস যাবৎ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ৷ অনলাইন ক্লাস চললেও অনেকক্ষেত্রেই নানা সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে পড়ুয়াদের। এই পরিস্থিতিতে কিভাবে সিলেবাস শেষ হবে তা নিয়ে চিন্তিত পড়ুয়ারা। অনেকক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে অনলাইন ক্লাস না করতে পারায় সিলেবাস শেষ না করতে পারার অবসাদে আত্মহত্যার পথ বেছেছেন অনেক পড়ুয়া। সেকারণেই আগামী শিক্ষাবর্ষে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের সিলেবাস কমানোর সিদ্ধান্ত নিল সিবিএসই বোর্ড৷ তবে এটি শুধুমাত্র ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ক্ষেত্রেই প্রয়োজ্য বলে জানালেন কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ ও উন্নয়নমন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তে অনেকটাই স্বস্তিতে সিবিএসই পড়ুয়ারা।

মঙ্গলবার এবিষয়ে টুইটারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল বলেন, এই মূহুর্তে দেশের অবস্থা এতটাই সঙ্কটজনক। ফলে এই পরিস্থিতিতে পড়ুয়াদের সিলেবাসের বোঝা কমাতে সিবিএসইকে পাঠক্রম সংশোধন করতে বলা হয়েছিল। সেই অনুযায়ী, সিলেবাস কমানোর বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কয়েক সপ্তাহ আগে শিক্ষাবিদদের কাছ থেকে পরামর্শ চাওয়া হয়েছিল। এর মধ্যে ১,৫০০-এর বেশি শিক্ষাবিদ নানা গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিয়েছেন। সেজন্য শিক্ষাবিদদের ধন্যবাদও জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় উন্নয়ন মন্ত্রী। সেই পরামর্শের ভিত্তিতেই কেন্দ্রের তরফে নবম এবং দ্বাদশ শ্রেণির ৩০% পর্যন্ত সিলেবাস কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘বিশ্ব এবং দেশে বর্তমান পরিস্থিতি অভূতপূর্ব। সেজন্য সিবিএসইকে পাঠ্যক্রম সংশোধন এবং নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়ুয়াদের উপর ভার কমানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। শিক্ষা অর্জনের গুরুত্ব বিবেচনা করে মূল ধারণাগুলি রেখে ৩০ %সিলেবাস কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

করোনায় বেহাল শিক্ষাব্যবস্থা, আগামী শিক্ষাবর্ষে সিবিএসই-র সিলেবাস কমানোর সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের 2

পরে সিবিএসই বোর্ডের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়, করোনা পরিস্থিতিতে বহুদিন স্কুল বন্ধ থাকায় পড়ুয়াদের সিলেবাস শেষ করতে অসুবিধা হচ্ছে৷ সেই কথা মাথায় রেখে বোর্ডের পাঠ্যক্রম কমিটি এবং গভর্নিং কমিটির মিলিত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে সিলেবাস কমানো হচ্ছে। এবিষয়ে বোর্ডের তরফে বলা হয়েছে, “যে সকল বিষয়গুলি কমানো হয়েছে, তার সঙ্গে অন্যান্য বিষয়গুলির যোগসূত্র রাখতে যতটা প্রয়োজন, ততটা সেই কমানো বিষয় পড়ানো নিশ্চিত করতে পারেন স্কুলগুলির প্রধান শিক্ষক এবং শিক্ষকরা। তবে যে সিলেবাস কমানো হয়েছে, তা ইন্টারনাল অ্যাসেসমেন্ট এবং বছর শেষের পরীক্ষায় থাকবে না।”

Previous articleগোটা বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে ব্রাজিল, করোনা সংক্রমিত ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জৈর বলসোনারো
Next articleফাঁস হচ্ছে যোগীর পুলিশের গ্যাংস্টার দোস্তি! ডিএসপি সহ ৮ পুলিশ কর্মী খুনের পেছনে পুরো থানাই, ৫৮ পুলিশ কর্মীকে পাঠানো হল রিজার্ভ লাইনে, শুরু তদন্ত