উত্তরে নাগাড়ে বৃষ্টি, ভ্যাপসা গরমে নাজেহাল দক্ষিণবঙ্গ, বঙ্গোপসাগরে ফের নিম্নচাপের ভ্রুকুটি

290
উত্তরে নাগাড়ে বৃষ্টি, ভ্যাপসা গরমে নাজেহাল দক্ষিণবঙ্গ, বঙ্গোপসাগরে ফের নিম্নচাপের ভ্রুকুটি 1
উত্তরে নাগাড়ে বৃষ্টি, ভ্যাপসা গরমে নাজেহাল দক্ষিণবঙ্গ, বঙ্গোপসাগরে ফের নিম্নচাপের ভ্রুকুটি 2

ওয়েব ডেস্ক : ভাদ্র মাসের শেষদিন অথচ দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির দেখা নেই। তবে আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস বলছে আপাতত দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে এমন আবহাওয়াই চলবে। হাওয়া অফিসের তরফে জানানো হয়েছে, বঙ্গোপসাগরে ফের নতুন করে নিম্নচাপ তৈরি হচ্ছে। তবে তাতেও দক্ষিণবঙ্গে খুব একটা স্বস্তি নেই বলেই মনে করছে আবহাওয়া দফতর। জানা গিয়েছে, মৌসুমী অক্ষরেখা ক্রমশ উত্তর দিকে সরে যাচ্ছে। এর ফলে নাগাড়ে বৃষ্টি হচ্ছে উত্তরবঙ্গে। তবে উত্তরে বৃষ্টি হলেও বঙ্গোপসাগরে নতুন করে নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ায় প্রচুর পরিমাণে জলীয় বাষ্প ঢুকছে দক্ষিণবঙ্গে। এর জেরে বাতাসে বাড়ছে আর্দ্রতা।

এদিকে আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, ইতিমিধ্যেই অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূলেও একটি ঘূর্ণাবর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপটি ঘূর্ণাবর্তের সঙ্গে মিশে নিজের শক্তি বৃদ্ধির চেষ্টা করছে। ফলে মৌসুমী অক্ষরেখা দক্ষিণবঙ্গের দিকে সরে আসছে। জানা গিয়েছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে আগামী ১৯ শে সেপ্টেম্বরের পর একটা ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে। তবে বৃষ্টি হলেও তা মূলত পশ্চিমের জেলাগুলিতে হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই স্বাভাবিকভাবেই দক্ষিণবঙ্গের ভরসা সেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি।

উত্তরে নাগাড়ে বৃষ্টি, ভ্যাপসা গরমে নাজেহাল দক্ষিণবঙ্গ, বঙ্গোপসাগরে ফের নিম্নচাপের ভ্রুকুটি 3

এদিকে আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী বুধবার উত্তরবঙ্গের তিন জেলা অর্থাৎ জলপাইগুড়ি, কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। জানা গিয়েছে এই তিন জেলাতেই বৃষ্টির পরিমাণ হতে পারে ৭০ থেকে ২০০ মিলিমিটার। পাশাপাশি দার্জিলিং, কালিম্পংয়ে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সেখা বৃষ্টির পরিমাণ ৭০ থেকে ১১০ মিলিমিটারের পাশাপাশি হতে পারে। তবে উত্তরবঙ্গের অন্যান্য জেলাগুলিতে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত হলেও উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদহে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে গত সপ্তাহের শেষ দিন থেকেই উত্তরবঙ্গ জুড়ে নাগাড়ে বৃষ্টি চলছে৷ আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস বলছে আরও বেশ কিছুদিন এভাবেই চলবে বৃষ্টি। তবে উত্তরে টানা বৃষ্টি হলেও পচা ভাদ্রের গরমে নাজেহাল দক্ষিণবঙ্গবাসী।