১ সপ্তাহের মাথায় ফের ৬০০ছুঁয়ে পশ্চিম মেদিনীপুর খড়গপুর মেদিনীপুর ৩০০ছড়িয়ে! দৈনিক সংক্রমনে প্রায় ১০০ আক্রান্ত নিয়ে রেকর্ড রেলের

On dated 12/5/2021 total positive case 581( RTPCR : 326, Antigen 219, Trunat 36) among this Kharagpur city 160 and Midnapur town 150. The Kharagpur division of the South Eastern Railway has also recorded the day in terms of daily attacks. After breaking all the records of Corona period, 96 people came positive for the railway family in last 14months! With this huge amount this affected about 160 people were affected in Kharagpur citya little ahead of Midnapur town. In the city of Kharagpur, the northern part is most affected. Inda area including Newtown, Saratpalli, Vidyasagarpur, Goalapara and Bamunpara where 10 people were affected. Six people were found infected from Talbagicha and at least five from Bulbulchati, Chhotatangra, Mathurakati, Malanch, Nimpura, Jhapetapur with Gopalnagar, Kharida area with Phatakbazar, Nayapara, Sardapalli, Rajgram and Ramandir with Golbazar areas. Three victims were found from Hijli Telephone Exchange, Sonamukhi Jhuli, IIT Campus, Sanjowal, Debalpur, Padmapukur, Subhash Palli and Bhavanipur. At least two victims were found from small Ayma, Chandmari, Kaushalya, New Settlement and Old Settlement areas. At least 1 person is infected Joyhindnagar, Barobetia, Rabindra Palli, Traffic, South Side, Dhyan Singh Maidan, Gate Bazar, Purigate, Old Bazar, South Inda, Sanjowal, Arambati, Prembazar, Panchberia areas.

175
Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: একেবারে যেন নিক্তি মেপেই ৭ দিনের মাথায় ফের প্রায় ৬০০ জন আক্রান্ত হলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায়। গত ৫ই মে জেলার দৈনিক সংক্রমন ছিল ৫৮৮ জন। করোনা কালের মধ্যে এটাই এখনও অবধি সর্বোচ্চ রেকর্ড। ১২ই মে সেই রেকর্ড ছুঁতে না পারলেও দৈনিক সংক্রমন ঠেকল ১৯ জন কম ৬০০ জনে। যদিও এদিন বেশ কয়েকটি নতুন রেকর্ড হয়েছে। যেমন জেলার মোট সংক্রমনের ৫২ শতাংশই পাওয়া গেছে খড়গপুর ও মেদিনীপুর শহর থেকে। অন্যদিকে দুই শহরের সঙ্গে যদি খড়গপুর ও মেদিনীপুরের গ্রামীন অংশ যুক্ত করা হয় তবে জেলার ৫৯% নিয়ে রয়েছে এই এলাকা। সবমিলিয়ে খড়গপুর আর মেদিনীপুরই এখন করোনার ‘হটবেড’।
দৈনিক আক্রান্তের নিরীখে এদিন রেকর্ড করেছে দক্ষিণপূর্ব রেলের খড়গপুর ডিভিশনও। করোনা কালের যাবতীয় রেকর্ড ভেঙে ১২ইমে রেলপরিবার পজিটিভ এসেছে ৯৬জনের! রেলের এই বিপুল পরিমাণ আক্রান্ত নিয়েই এদিন মেদিনীপুর শহরের থেকে কিছুটা এগিয়ে খড়গপুরের দৈনিক আক্রান্ত প্রায় ১৬০জন। অন্যদিকে মেদিনীপুর শহর জুড়ে এদিন প্রায় ১৫০ জন নতুন আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে।

Advertisement

খড়গপুর শহরে এদিন সর্বাধিক আক্রান্ত সেই উত্তরপ্রান্তেই। নিউটাউন, শরৎপল্লী, বিদ্যাসাগরপুর, গোয়ালাপাড়া, বামুনপাড়া ও ইন্দা মিলিয়ে আক্রান্ত ১০জন। তালবাগিচা থেকে ৬ জন ও বুলবুলচটি, ছোটট্যাংরা, মথুরাকাটি, মালঞ্চ, নিমপুরা, গোপালনগর সহ ঝাপেটাপুর, ফটকবাজার, নয়াপাড়া, সারদাপল্লী, রাজগ্রাম সহ খরিদা এবং রামন্দির সহ গোলবাজার এলাকা থেকে নূন্যতম ৫জন করে আক্রান্ত পাওয়া গেছে। ৩ জন করে আক্রান্ত পাওয়া গেছে হিজলি টেলিফোন এক্সচেঞ্জ,সোনামুখী ঝুলি, আইআইটি ক্যাম্পাস, সাঁজোয়াল, দেবলপুর, পদ্মপুকুর সহ সুভাষপল্লী ও ভাবনীপুর থেকে। ন্যূনতম ২জন আক্রান্ত পাওয়া গেছে ছোট আয়মা, চাঁদমারি, কৌশল্যা, নিউ সেটেলমেন্ট এবং ওল্ড সেটেলমেন্ট এলাকা থেকে। অন্ততঃ ১জন আক্রান্ত রয়েছেন জয়হিন্দনগর, বারোবেটিয়া, রবীন্দ্র পল্লী, ট্রাফিক, সাউথ সাইড, ধ্যান সিং ময়দান, গেট বাজার, পুরীগেট, পুরাতন বাজার, সাউথ ইন্দা, সাঁজোয়াল, আরামবাটি, প্রেমবাজার, পাঁচবেড়িয়া এলাকায়।
গ্রামীন খড়গপুরের বড়কলা সামরাই়পুর ও গোপালীতে ২ জন করে আক্রান্ত পাওয়া গেছে। নতুন আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে সাদাতপুর,নোশুটিং. কলাইকুন্ডা , চাঙ্গুয়াল, ভুরকুন্ডি ডিমৌলি, ঘাগরা, মাতকাতপুর, আঁধারকুলি থেকে।

Advertisement
Advertisement

মেদিনীপুর শহরের ৪০জন আক্রান্তের সঠিক বাসস্থান উল্লেখ করা হয়নি। এদিনও কুইকোটাতেই শহরের সর্বাধিক আক্রান্ত, ১০জন। তাঁতিগেড়িয়া, হবিবপুরে ৬জন করে আক্রান্ত। নজরগঞ্জ, শেখপুরা, আবাস এবং ধর্মায় ৫জন করে আক্রান্ত।মিঞাবাজার, সিপাইবাজার, পাটনা বাজার ও তলকুই এলাকায় ৪জন করে আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে। খাপরেল বাজার, রাঙ্গামাটি, ক্ষুদিরাম নগর, অলিগঞ্জে ৩জন করে আক্রান্ত। নূন্যতম ২জন করে আক্রান্ত হয়েছেন কোতবাজার, মিত্র কম্পাউন্ড, কেরানিচটি, মির্জাবাজার, বার্জটাউন, মুফতি মহল্লায়। অন্ততঃ ১জন নতুন আক্রান্ত হয়েছেন কেরানিতলা, হাতার মাঠ, অরবিন্দ নগর, বক্সীবাজার, সঙ্গতবাজার, তোড়াপাড়া, চিড়িমারসাই, কর্নেলগোলা, নেতাজী নগর, রবীন্দ্রনগর, নতুনবাজার, ডাকবাংলো রোড এলাকাতে।

মেদিনীপুর সদর গ্রামীনের বেড়াপাল এবং
বাগডুবি গ্রামে ৩ জন করে আক্রান্ত। ২জন করে আক্রান্ত খয়রুল্লাচক, বিরবিরা এবং গুড়গুড়িপালে। এছাড়াও আক্রান্ত পাওয়া গেছে কালগাঙ, মালিয়াড়া, বাড়ুয়া, এল্লাবনী, কেশাশোল, চাঁদাবিলা, কঙ্কাবতী, সাপকাটা, ভুঞাহাটা, গোয়ালডাঙা, কেলিয়ামারি, মধুপুর, আমড়াতলা, শিরসি, নয়াগ্রাম, গোপগড়, কিসমৎ আঙ্গুয়া, , মড়াডাঙা,

শহর বাদ দিয়ে মেদিনীপুর সদর মহকুমায় সর্বাধিক আক্রান্ত হয়েছেন গড়বেতা থানা এলাকায়। গড়বেতা সদরেই আক্রান্ত ৬জন। চড়কাডাঙায় ৪ জন, রাধানগর ও সারগায় ৩ জন করে আক্রান্ত হয়েছেন। বাঁধগোড়া ও আমলাগোড়ায় ২ জন করে আক্রান্ত। এছাড়াও আক্রান্ত পাওয়া গেছে চাঁদাবিলা, জুনশোল, রসকুন্ডু, শুকনাতোড়, লাপুরিয়া, আমকোপা, অপর্নাপল্লী, নয়াবসত, আগরি নয়াবসাত, তারা, রাউলিয়া, হাবরা, বিলা, কিয়াবনী, খাঁদিবাঁধ, সরবেড়া, পাতপুর, বীরসিংপুর এলাকায়।

শালবনী থানার শালবনী সদরে আক্রান্ত হয়েছেন ৭জন। এছাড়া ১জন করে আক্রান্ত পাওয়া গেছে ট‍্যাঁকশাল
মঙ্গলমাড়ি, পোড়াডিহা যাত্রা বিষ্ণুপুর, ধবাগ্রাম, রাউতাড়ায় আক্রান্ত একজন করে। গোয়ালতোড় বালিবাঁধ ২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। একজন করে আক্রান্ত হয়েছেন গোয়ালতোড়, কাঁটাপাল, ধামাচা, ধরমপুর, মেটালডোবা, কারিশোল, কাঁকরিশোল,দেরাপুরে।
কেশপুর থানার জদুবাড়ে ২জন আক্রান্ত ছাড়াও আক্রান্ত পাওয়া গেছে দুলেবাড় বড়াতেঘরি, কেশপুর, মহিষদা থেকে।

খড়গপুর মহকুমার গ্রামীণ অংশের দাঁতনে এদিন সর্বাধিক আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে। দাঁতন সদরে আক্রান্ত ১জন। এছাড়া উত্তররায়বাড়, তকিনগর, বলভদ্রপুর , বামনবেরুয়ায় ২জন করে আক্রান্ত। ৫ আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে, দক্ষিণারবনা মেনকাপুর এলাকায়। করঞ্জি কাজিপুর, মালকোড়া ললিতপুর, করকাই উঁচুডিহা, সারতা, দাহরদা তুরকা, খানিপুর, কৃষ্ণনগর উত্তররায়বাড়, , শতসিপাহীবাড় ১জন করে আক্রান্ত হয়েছেন।

বেলদা সদর থেকে ৬জন আক্রান্ত হয়েছেন। ওই থানার আসন্দায় ৩জন , সাউরি ও বড় মাতকাতপুরে ২জন করে এবং জলহরি, খাকুড়দা, শশিন্দা, গোপীনাথপুরে ১জন করে আক্রান্ত হয়েছেন। মোহনপুর থানার বোরাই, নিলদা, মোহনপুর এবং নারায়নগড়ের কোতাই, গাইতা থেকে আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে। কেশিয়াড়ী থানার কুসুমপুর ২, কাঞ্চনপুর , সিঞাকুল সুকারোল ও গোপালপুর থেকে ২জন করে আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে। এছাড়া আক্রান্ত মিলেছে বেতলতা বাঁশগেড়িয়া, হাসিমপুর,ঢেরাছেড়া এলাকা থেকে।                                                             ডেবরা থানার বালিচক, নারানগড়, নিজপাপন, বিশ্রীগেড়িয়া, মহেশপুর, চককুমার এবং পিংলা থানার পিংলা সদরে ৩জন ছাড়া হারাকান্দি, গোকুলচক, পূর্নগ্রাম, জামনা, গঙ্গাদাসপুর, ধনেশ্বরপুর থেকে ১জন করে সংক্রমিত হয়েছেন।  সবংয়ের সবং, জাঙ্গিচক, বলরামপুর, লুটুনিয়া, বুড়ালে ১জন করে এবং রুইনানে ২ জন আক্রান্ত।

ঘাটাল মহকুমার ৩টি থানায় প্রায় ৮০ জন আক্রান্ত। এরমধ্যে সর্বাধিক ৫০জন আক্রান্ত চন্দ্রকোনা থানা এলাকায়। এরমধ্যে আবার ক্ষীরপাই পৌর এলাকাতেই আক্রান্ত ১১জন। তারপরই রয়েছে বাঁকা আক্রান্ত ৭জন। ধুলিয়াডাঙায় ৫ ও খড়িকায় আক্রান্ত ২জন। নূন্যতম ১ জন করে আক্রান্ত হয়েছেন এমন এলাকা গুলি হল কালাকড়ি, কুয়াপুর, ডালিমাবাড়ি, চান্দা টুকুরিয়া, বাবুরবেড়, গোপালপুর, হরসিংপুর, গোপসাই , রঘুনাথপুর, ঠাকুরবাড়ি গাজীপুর, মানিক কুন্ডু, গোবিন্দপুর, শ্যামগঞ্জ, ছত্রগঞ্জ, বেরাবেড়িয়া, কামারবাড়িয়া, রামজীবনপুর, রাধানগর, বাড়নমনি, খড়ার, খড়িগেড়িয়া, শোনপুর, আমর, মিত্রসেনপুর।

দাসপুর থানার রাধকান্তপুর ও সয়লাতে ২জন করে আক্রান্ত। ১জন করে আক্রান্ত দাসপুর, দরিঅযোধ্যা, কুলটিকরি, নবীনমনুয়া, কলাগাছিয়া, সামাট, কেলেগোদা, , কমলপুর বাগবাড়ে।
ঘাটাল থানার কুশপাতায় ৪জন, কাতানে ৩, জয়কৃষ্ণপুর ও কোন্নগরে ২জন করে আক্রান্ত। ১জন করে আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে শ্রীপুর, রানীবাজার, দীর্ঘগ্রাম,
রানীবাজার এলাকায়।