এবার আক্রান্ত হলেন ডেবরার ওসি! মহাষষ্টিতেই সংক্রমিত হলেন করোনা যোদ্ধা

1537
এবার আক্রান্ত হলেন ডেবরার ওসি! মহাষষ্টিতেই সংক্রমিত হলেন করোনা যোদ্ধা 1

শশাঙ্ক প্রধান: সবং পিংলার পর এবার করোনা আক্রান্ত হলেন ডেবরা থানার ওসি তথা ভারপ্রাপ্ত পুলিশ আধিকারিক বিশ্বরঞ্জন ব্যানার্জী। জানা গেছে গত কয়েকদিন ধরেই তাঁর শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি ছিল। সঙ্গে অল্প কাশি ছিল এবং শরীরে ব্যথা অনুভব করছিলেন। কয়েকদিন সেই উপসর্গের উপশম না হওয়ায় বৃহস্পতিবার ডেবরা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে আ্যন্টিজেন পরীক্ষা করান তিনি। সেখানেই তাঁর শরীরে করোনার অস্তিত্ব ধরা পড়ে। বর্তমানে তিনি থানায় নিজের অবসনেই হোম আইসোলেশনে রয়েছেন চিকিৎসকের পর্যবেক্ষনে।

উল্লেখ্য মাত্র কয়েকদিন আগেই করোনা আক্রান্ত হয়েছেন খড়গপুর টাউন থানার ইন্সপেক্টর ইনচার্জ রাজা মুখার্জী। বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন তিনি। পূজার সময় আইন শৃঙ্খলা সামলানোর মত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টির পুরো পরিকল্পনাটি মূলত থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিকের নেতৃত্বে হয়ে থাকে। সেক্ষেত্রে তাঁর অনুপস্থিতি একটা সমস্যা হয়েই দাঁড়ায়। স্বাভাবিক ভাবেই খড়গপুরের মত ডেবরাতেও এই পুজোয় তাঁর অনুপস্থিতি সামান্য হলেও অনুভূত হবে।

এবার আক্রান্ত হলেন ডেবরার ওসি! মহাষষ্টিতেই সংক্রমিত হলেন করোনা যোদ্ধা 2

এদিকে এই নিয়ে ডেবরা পুলিশ মহকুমার অন্তর্গত তিনটি থানার ওসি ই একে একে আক্রান্ত হলেন। এর আগে আগে আক্রান্ত হয়েছিলেন সবং থানার ওসি সুব্রত বিশ্বাস এবং পিংলার ওসি শঙ্খ চ্যাটার্জী। দুজনেই বর্তমানে সুস্থ হয়ে বহাল তবিয়তে নিজ নিজ এলাকায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তবে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে যায় সবং থানার মেজোবাবু বা সেকেন্ড অফিসার অতনু প্রামানিকের ক্ষেত্রে। কোভিড আক্রান্ত হয়ে মাত্র ৩৯ বছরে প্রাণ হারান তিনি। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় তিনিই প্রথম করোনা যোদ্ধা যিনি শহীদ হয়েছিলেন। পশ্চিম মেদিনীপুর পুলিশের পক্ষ থেকে তাঁর স্মৃতির উদ্দেশ্যে জেলা পুলিশের একটি বিশেষ বিভাগের ভবনের নামকরন করা হয়।

আরও পড়ুন -  বাজল ভোটের দামামা, ২০২১ বিধানসভার নির্বাচনের প্রাক্কালে সর্বদলীয় বৈঠক ডাকল নির্বাচন কমিশন

উল্লেখ্য করোনা সংক্রমনের প্রথম দিকে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার এই ডেবরা থানা এলাকাতেই একের পর এক পুলিশ কর্মীর আক্রান্ত হয়ে পড়েছিলেন। সেই সময় বাস্তব পরিকল্পনার মধ্যে দিয়ে কর্মী সঙ্কটের মধ্যেও ডেবরা থানা এলাকার আইন শৃংখলার সমস্যা হতে দেননি বিশ্বরঞ্জন ব্যানার্জী। পরিযায়ী শ্রমিকদের ঢল সামলানো থেকে শুরু করে লকডাউন পর্যায়ে নিঃস্ব পরিবার গুলির পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করে গেছেন। দীর্ঘ প্রায় সাত মাস সেই অমানুষিক পরিশ্রমের পর অবশেষে আক্রান্ত তিনিও।

আরও পড়ুন -  কাটোয়ার চাণ্ডুলী গ্রামের প্রাচীন ঐতিহ্য নবান্ন উৎসব

ডেবরা পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ আলোক আচার্য্য, ঘাটালের সাংসদ দেবের প্রতিনিধি সিতেশ ধাড়া প্রমুখ ডেবরা থানা এলাকার ব্যক্তিরা উদ্বেগ প্রকাশ করে আশা প্রকাশ করে জানিয়েছেন, অবিলম্বে সুস্থ হয়ে ফিরবেন ওসি।  “দ্য খড়গপুর পোষ্ট” য়ের পক্ষ থেকেও করোনা যোদ্ধা বিশ্বরঞ্জন ব্যানার্জীর সুস্থতা কামনা করা হচ্ছে।