গ্রাম থেকে শহর সর্বত্রই আগ্রাসী করোনা! শালবনীতে গোষ্ঠী সংক্রমন, জেলায় ৫৫৯, খড়গপুর ১৭৫ ছুঁয়ে, গড়বেতা, বেলদা, ডেবরা, সবং, পিংলা, দাঁতন, কেশিয়াড়ীতে করোনার ছড়াছড়ি, ঘাটাল মহকুমায় ফের বাড়ল সংক্রমন

Kharagpur is at the forefront of district infections today. Inক্লাডিং rural areas about 175 people have been affected in Kharagpur and more than 160 in the city alone. On this day the infection of the city is very much in Inda area. A total of 15 people have been affected, 3 from Vidyasagarpur, 2 from Bamunpara, 1 each from Newtown, Goalapara and Saratpalli areas. The rest is the original Inder. In Malch area, 9 people including Malch Road, Sardapalli, Niranjanbar and Rakha Jungle were affected. 9 people including 1 person from Dineshnagar were attacked in Talbagicha. 5 in Bhabanipur including 6 in Chhota Tangra and 1 in North Bhabanipur. Attacked by John. At least 3 people were affected in Golbazar, Bhagwanpur, Subhash Palli and New Settlement areas. Two people were found infected Barobetia, Southside, Kharida, Rajgram, Gopalnagar, Joyhindnagar Neutrafic, Srikrishnapur, Sonamukhi. At least one victim was found in Puratanbazar, Golkhuli, New Development, Dhyansingh Maidan, Panchberia, Baraaima, Mirpur, IIT Kharagpur Campus South Inda, Bulbulchati, Jhapetapur, Sub-Divisional Hospital housing areas. But apart from this, there are a lot of railway accommodation and specific addresses are not mentioned. About 50 members of the railway family were affected by the corona on that day. Kharagpur Grameen players Bonapatna, Dharenda, Ghagra, Panchrulia 2, Bahurupa, Ambashol Hiradihi, No-Shooting Salua, Salua 2, Kalaikunda, Palsya were found infected.

192
Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: ভয়াল রূপ নিয়েছে করোনা। পশ্চিম মেদিনীপুরে কয়েকটি কমে এদিন ৫৫৯ জন আক্রান্ত পাওয়া গেলেও মারাত্মক অবস্থা এটাই যে শহরের সাথে সাথে গ্রাম আর মফস্বলে ভয়াল অবস্থা আকার নিয়েছে করোনা। ৭ই মে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের নথি অনুযায়ী আরটি/পিসিআর পরীক্ষায় ৩৪৩ জন, আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় ১৮৪ এবং ট্রুনাট পরীক্ষায় ৩২ জন পজিটিভ বলে সনাক্ত হয়েছেন। জেলার সংক্রমনে এদিন খড়গপুর সর্বাগ্রে রয়েছে। গ্রামীন অংশ ধরে খড়গপুরে প্রায় আক্রান্ত ১৭৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন আর শুধু শহরে এই সংখ্যাটা ১৬০ জনেরও বেশি।

Advertisement

এদিন শহরের সংক্রমন খুব বেশি ইন্দা এলাকায়। মোট ১৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন বিদ্যাসাগরপুরের ৩, বামুনপাড়ার ২, নিউটাউন, গোয়ালাপাড়া ও শরৎপল্লী এলাকার ১জন করে আক্রান্ত রয়েছেন। বাকিরা মুল ইন্দার। মালঞ্চ এলাকায় মালঞ্চরোড ২জন সহ , সারদাপল্লী, নিরঞ্জনবাড়, রাখাজঙ্গল মিলিয়ে ৯ জন আক্রান্ত। দীনেশনগরের ১জন সহ তালবাগিচায় আক্রান্ত ৯ জন। ছোটট্যাংরা ৬ জন ও নর্থ ভবানীপুরে ১জন সহ ভবানীপুরে আক্রান্ত ৫জন, নিমপুরা ও দেওয়ানমাড়ো মিলিয়ে এবং কৌশল্যায় ৪,
জন করে আক্রান্ত। গোলবাজার ভগবানপুর, সুভাষপল্লী ও নিউ সেটেলমেন্ট এলাকায় নূন্যতম ৩জন করে আক্রান্ত। ২জন করে আক্রান্ত পাওয়া গেছে বারোবেটিয়া,সাউথসাইড, খরিদা, রাজগ্রাম, গোপালনগর,জয়হিন্দনগর নিউট্রাফিক, শ্রীকৃষ্ণপুর, সোনামুখী ঝুলিতে। নূন্যতম একজন করে আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে পুরাতনবাজার, গোলখুলি, নিউ ডেভলাপমেন্ট, ধ্যানসিং ময়দান, পাঁচবেড়িয়া, বড়আয়মা, মিরপুর,আইআইটি খড়গপুর ক্যাম্পাস সাউথ ইন্দা, বুলবুলচটি, ঝাপেটাপুর, মহকুমা হাসপাতাল আবাসন এলাকায়। কিন্তু এর বাইরে রেলের অজস্র আবাসন ও নির্দিষ্ট ঠিকানা উল্লেখ করা হয়নি এমন আক্রান্ত রয়েছেন। এদিন রেলপরিবারের প্রায় ৫০ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।
খড়গপুর গ্রামীনের খেলাড় বনপাটনা, ধারেন্দা, ঘাগরা, পাঁচরুলিয়া ২জন, বহুরুপা, আম্বাশোল হিরাডিহি, নো-শ্যুটিং সালুয়া, সালুয়া ২জন, কলাইকুন্ডা, পলস্যা থেকে আক্রান্ত পাওয়া গেছে।

Advertisement
Advertisement

মেদিনীপুর শহরে আক্রান্ত প্রায় ৭০ জন। কোন এলাকায় কত নূন্যতম আক্রান্ত পাওয়া গেছে তা এলাকার পাশে উল্লেখ করা হল। মির্জা বাজার ৪. জগন্নাথ মন্দির ২. টাউন কলোনি. কুইকোটা ২, পাটনাবাজার, রামকৃষ্ণ নগর. সিপাই বাজার. বিধান নগর . দেশবন্ধু নগর. শরৎপল্লী ২ , কামারআড়া, পুলিশ লাইন.২ মধুসূদন নগর২, হোসনাবাদ ৫, সিপাহীবাজার ২, তোড়াপাড়া, রবীন্দ্রনগর,, অশোকনগর, বার্জটাউন ৩, ধর্মা, হবিবপুর ২, কালগাঙ, পুলিশ সুপার বাংলো, রাঙামাটি, বক্সীবাজার, মহাতাপপুর, ছোটবাজার, মেডিকেল ২, হরিসিনেমা চক, খাপরেল বাজার ২, মেদিনীপুর গ্রামীনের ভূতগেড়িয়া, কমলপুর ৪, কান্তপুর, পাঁচখুরি, দেউলডাঙা ৪, মসিনা, বেড়াপাল ২, উপরডাঙা ২, দেপাড়া ২, শ্রীরামপুর, লোধাসাই, খাসজঙ্গল থেকে ২জন আক্রান্ত পাওয়া গেছে।

গড়বেতা থানার গড়বেতা সদর ৪ , নয়াবসাত, বীরসিংহপুর ধাদিকা ৩ ওরগঞ্জা , অপর্নাপল্লী ২, মালবাঁধি, মংলাপোতা, লাপুরিয়া ২, আসাদগ্রাম, রাধানগর, রেলকলোনী, জুনশোল, মৌলাড়া, পানিকোটর রসকুন্ডু, ধান্যশোল, হলদিনালা, চন্দ্রকোনা রোড, রাধানগর, কেশিয়া, আমলাগোড়া ২, নিমডাঙা, গনগনি, রাউলিয়া, রেলগেট আমলাগোড়া, বীরসিংপুর খড়কুশমা ২, সন্ধিপুর, দুর্লভগঞ্জ, ছোট ডাবচা, বিলা সাতবাঁকুড়া, কুস্তরা থেকে ন্যূনতম ৪১ জন আক্রান্ত পাওয়া গেছে।

গোয়ালতোড় থানার গোয়ালতোড় সদর ২, রামতোড়া, ছাগুলিয়া, কদমডিহা, বীরপাথরি, পাটাশোল ২, কিয়াবনী ২,

শালবনী থানারয় এদিন ৩৬ জন আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে যার মধ্যে কমলা গ্রামেরই ১৬জন। গতকাল এখান থেকেই ৮ আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। প্রায় ১০০ পরিবারের এই গ্রামটিতে করোনা আতঙ্ক ছড়িয়েছে। অনেকেরই ঘরে জ্বরের প্রাদুর্ভাব। এই গ্রামের প্রচুর মানুষ ট‍্যাঁকশালে ঠিকাদারের অধীনে কাজ করেন ।কিছু মানুষ আবার রাজমিস্ত্রির কাজ করেন শহর ও মফস্বলে। বেশকিছু মানুষ নিয়মিত সবজি নিয়ে যান বাজারে। এই কোনোও এক বা একাধিক জায়গা থেকেই সংক্রমন ছড়িয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। কারন ট‍্যাঁকশাল এলাকায় সংক্রমনের হাল খুবই খারাপ। ইতিমধ্যেই এই ট‍্যাঁকশাল কলোনীতে ডজন ডজন আক্রান্ত পাওয়া গেছে। এদিনের রিপোর্টেও ৬জন আক্রান্ত ট‍্যাঁকশাল কলোনিতে। সবমিলিয়ে কমলা এলাকায় গোষ্ঠী সংক্রমনের লক্ষণ। প্রশাসন বিষয়টির ওপর নজর রাখছে।
এছাড়াও শালবনী সদরে ১২ জন, শালবনী গ্রামীণ হাসপাতালে ২, জামবনী, চকতারিণী, পিড়াকাটাতে আক্রান্ত পাওয়া গেছে। কেশপুরের বিরামবাড় পড়শুড়া, হিন্দলগঞ্জ, আনন্দপুরে নতুন আক্রান্ত মিলেছে।

গোটা খড়গপুর মহকুমা জুড়েই এদিন করোনার দাপট। কোন থানার কোন এলাকায় কত ন্যূনতম আক্রান্ত তা গ্রামের পাশে সংখ্যায় উল্লেখ করা হল।
নারায়নগড় থানার নারায়নগড় সদর, বড়কলঙ্কাই, রামপুরা, কাশিপুর, ডহরপুর, হান্দলা রাজগড় ২, পারুলিয়া ২,
মোহনপুর থানার কুসুমদা, গোমুন্ডা, ছোট বেলি, মোহনপুর ৫,
দাঁতন থানার ধনেশ্বরপুর ২, মোয়ারুই ললিতপুর ৩, শ্রীকৃষ্ণপুর তুরকা ২, লাকিবাড় সাউরি ৩, নাগপাড়া গাজীপুর ৩ , বড়া বাঘরা ২, বারাসতি ললিতপুর ২, কোরিয়া ২, গড়মোহনপুর ২, পাইকবাড় গাজিপুর ২।
বেলদার পাইকবেড়ি ভগবানপুর, ভগবানপুর, ধনেশ্বরপুর সাবড়া ২, পুয়ান হরিপুর, মহম্মদপুর, খালিনা, শ্যামসুন্দরপুর, অস্তি, বড়মাতকাতপুর, বেলদা, দেউলি ২,
কেশিয়াড়ি: কেশিয়াড়ি ২, এলাসাই ৩, বানদেউলি সিঙ্গাই যমুনা, খড়িপাড়া বেনাডিহা, গগনেশ্বর, করমা, কাশিপুর, ফান্দাড়ে আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে।

ডেবরা: ডেবরা, হরিহরপুর ২, বরাগড় ৩, জয়কৃষ্ণপুর, ধামতোড়, চকলালপুর, হামিরপুর ২, কাঁকা বাগিচা, বেলাগেড়িয়া, বাঘাগেড়িয়া, হিজলদা, জগন্নাথপুর পাঁচগেড়িয়া,
পিংলা: গোবর্ধনপুর ২, বাজাবেড়িয়া, পিংলা, রাজমা ২,
জামনা,
সবং: শুকতোড়া, সলাগেড়িয়া ২, দশগ্রাম, সবং ২, হরিরহাট,

ঘাটাল মহকুমার ৩ থানা এলাকায় আক্রান্ত ১০০ ছুঁয়েছে।
দাসপুর থানার দাসপুর সদরে ৩, সয়লা ৩, কিসমৎ কলোড়া, সোনাখালি ২, সৌলান, রাধাকৃষ্ণপুর, শ্যামসুন্দরপুর, কেলেগোদা ২, গোছাতি, দরিঅযোধ্যা ২ , সোনামুই, কিয়াজুড়ি ২, তাজপুর, তালাবেড়িয়া, জোতগোবর্ধন, বাঁকশাল, বৈকুণ্ঠপুর, গোবিন্দনগর ২, হাজরাবেড়, জোত ঘনস্যাম, রানীচকে আক্রান্ত পাওয়া গেছে।

ঘাটাল থানার ঘাটাল সদর ছাড়াও কোন্নগর ১০ , কুশপাতা ৫, হাসপাতাল, গড়প্রতাপনগর ৩ , খড়ার ২, রানীবাজার ৫, কুসমান ৩, মামুদপুর, ইড়পালা, উদয়গঞ্জ, শিবপুর, রথিপুর ৩, নিশ্চিন্দিপুর ৪, শ্রীপুর, প্রতাপপুর, সাদিচক, শ্রীরামপুর ২, গোপালপুর, জোতকনুরামগড়, কৃষ্ণপুর, মহারাজপুর,
চন্দ্রকোনার কুয়াপুর ৩, মিত্রসেনপুর, আগড়, ক্ষীরপাই পৌর এলাকা ৯ , দেওপুর, বামারিয়া হেমতপুর, শ্রীনগর, চাঁদপুর, ধরমপুর, রঘুনাথপুরে আক্রান্ত পাওয়া গেছে।