‘আমার রাম বাপু, তোমার রাম নাথু’ মহাত্মার প্রয়ান দিবসে শিলিগুড়িতে তুঙ্গে রাজনৈতিক তরজা

186
'আমার রাম বাপু, তোমার রাম নাথু' মহাত্মার প্রয়ান দিবসে শিলিগুড়িতে তুঙ্গে রাজনৈতিক তরজা 1

নিজস্ব সংবাদদাতা, শিলিগুড়ি : হিন্দু উগ্রবাদী নাথুরাম গডসের হাতে নিহত হয়েছিলেন গান্ধীজি। সেই কথা কে স্মরণ করিয়ে দিতেই শিলিগুড়িতে ‘আমার রাম বাপু, তোমার রাম নাথু’ শ্লোগান দিয়ে গান্ধীর ৭৪তম প্রয়াণ দিবস পালন করলেন সারা বাংলা তৃণমূল শিক্ষা বন্ধু সমিতির শিলিগুড়ি শাখা। এই উপলক্ষ্যে শিলিগুড়ি হেড পোস্ট অফিস মোড়ে একটি সর্ব ধর্ম প্রার্থনা সভার আয়োজন করা হয়।

'আমার রাম বাপু, তোমার রাম নাথু' মহাত্মার প্রয়ান দিবসে শিলিগুড়িতে তুঙ্গে রাজনৈতিক তরজা 2

কোর্ট মোড় সংলগ্ন রাস্তার ধারে এই সভা হওয়ায় ভিড় উপচে পড়ে। গান্ধী মূর্তির পাদদেশে এই সভার আয়োজন হয়। এই সভাকে ঘিরেই রাজনৈতিক তরজা তুঙ্গে উঠল এদিন। কেন এই অদ্ভুত শ্লোগান তার জবাবে পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, ‘মহাত্মা গান্ধী জাতির জনক। তিনি অহিংসার বার্তা দিয়ে সব ধর্মের মানুষকে এক বলে বিচার করতেন। কিন্তু কেন্দ্রের শাসক দল পিছিয়ে পড়া মানুষকে ব্রাত্য করে রেখেছে।’

'আমার রাম বাপু, তোমার রাম নাথু' মহাত্মার প্রয়ান দিবসে শিলিগুড়িতে তুঙ্গে রাজনৈতিক তরজা 3

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘রাম আমাদের সকলের প্রতীক। কিন্তু এখন রাম শব্দ তা অপব্যবহৃত হচ্ছে। বিভাজনের জন্যেই এমন করা হচ্ছে। বারবার ধর্মকে টেনে আনা হচ্ছে। ধর্ম মানুষের একান্তই নিজস্ব বিশ্বাস। কিন্তু আজকাল এই ধর্মকেই জোর করে চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে।’

তবে পাল্টা জবাব দিয়েছে বিজেপি। বিজেপির শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আনন্দময় বর্মন বলেন, ‘রাজ্য সরকার বিভিন্ন বোর্ড গঠন করেছে কীসের জন্য? মানুষকে আলাদা করার জন্য। এখানেই স্পষ্ট কে বিভাজন করছে। বিজেপির বিরোধিতায় গান্ধীজিকে টেনে আনা হচ্ছে।’

সভায় জেলা তৃণমূল সভাপতি রঞ্জন সরকার, শিক্ষাবন্ধু সমিতির জেলা সভাপতি সুপ্রকাশ রায়, ডা: প্রণব ভট্টাচার্য প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এদিন চেতনা কুষ্ঠ আশ্রম, সূর্যনগর ফ্রেন্ডস ইউনিয়ন ও অন্যান্য দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় গান্ধীজির প্রয়াণদিবস।

Previous articleঘন কুয়াশায় একে অপরের সঙ্গে সংঘর্ষে ৩টি গাড়ি, মৃত ১০
Next articleপরীক্ষার্থীদের ‘অসুবিধা’, চাক্কা জ্যাম কর্মসূচির সময় বদলাল ঝাড়খন্ড দিশম পার্টি