দ্য খড়গপুর পোষ্টের দাবি মিলিয়ে ডেবরায় প্রার্থী হুমায়ুন কবীর! সবংয়ে মানস, পিংলায় অজিত, নারায়নগড়ে সূর্যই, বহিরাগতের আঁচ পেয়ে বিদ্রোহ শুরু মেদিনীপুরে, দেখে নিন প্রার্থী তালিকা

1044
দ্য খড়গপুর পোষ্টের দাবি মিলিয়ে ডেবরায় প্রার্থী হুমায়ুন কবীর! সবংয়ে মানস, পিংলায় অজিত, নারায়নগড়ে সূর্যই, বহিরাগতের আঁচ পেয়ে বিদ্রোহ শুরু মেদিনীপুরে, দেখে নিন প্রার্থী তালিকা 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: দ্য খড়গপুর পোষ্ট প্রথম জানিয়েছিল ডেবরায় তৃনমূলের প্রার্থী হতে চলেছেন প্রাক্তন আইপিএস হুমায়ুন কবীর। যদিও সেই দাবি উড়িয়ে দিয়েছিলেন অনেকেই। রাজনীতিতে নবাগত স্বয়ং কবীরই সেই খবরকে ফেক নিউজ বলেছিলেন। কিন্তু শুক্রবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করে দিলেন যে প্রার্থী হচ্ছেন সেই হুমায়ুন কবীরই। আসলে ডেবরায় দিদির দূত হয়ে আসাটাই ছিল হুমায়ুনের প্রকাশ্য রাজনৈতিক অভিষেক যা হয়ত তিনি বুঝতেই পারেননি।দ্য খড়গপুর পোষ্টের দাবি মিলিয়ে ডেবরায় প্রার্থী হুমায়ুন কবীর! সবংয়ে মানস, পিংলায় অজিত, নারায়নগড়ে সূর্যই, বহিরাগতের আঁচ পেয়ে বিদ্রোহ শুরু মেদিনীপুরে, দেখে নিন প্রার্থী তালিকা 2

সেদিন ডেবরায় দলীয় নেতাদের সঙ্গে, ছাত্র-যুবর নেতৃত্বের সঙ্গে, ব্যবসায়ী এবং শিক্ষক, অধ্যাপক, বিভিন্ন পেশার ব্যক্তিত্বের সঙ্গে তাঁর আলাপচারিতার যে কর্মসূচি পিকে করে দিয়েছিল তাই নির্দিষ্ট করেছিল যে ডেবরায় প্রার্থী হতে চলেছেন তিনি। কোনও ভবিষ্যৎবাণী নয় যুক্তিনিষ্ঠ রাজনৈতিক বিশ্লেষণে এটাই প্রথম জানিয়েছিল দ্য খড়গপুর পোষ্ট। যা, শেষ অবধি মিলে গেল।

দ্য খড়গপুর পোষ্টের দাবি মিলিয়ে ডেবরায় প্রার্থী হুমায়ুন কবীর! সবংয়ে মানস, পিংলায় অজিত, নারায়নগড়ে সূর্যই, বহিরাগতের আঁচ পেয়ে বিদ্রোহ শুরু মেদিনীপুরে, দেখে নিন প্রার্থী তালিকা 3

আমরা কয়েকঘন্টা আগেই বলেছিলাম বাবার পতাকা ছেড়ে ঝাড়গ্রামে প্রয়াত নরেন হাঁসদার কন্যা অভিনেত্রী বীরবাহার তৃনমূলের পতাকা ধরাটা প্রার্থী হওয়ারই ইঙ্গিত। সেই ইঙ্গিত মিলিয়ে প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী প্রাক্তন সাংসদ উমা সরেনকে সরিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন বীরবাহা। ১২ঘন্টার মধ্যে দলে যোগ দিয়ে প্রার্থী হওয়াটা তৃনমূলে রেকর্ড হয়ে রইল।

সবংয়ে রাজ্যসভার সাংসদ মানস ভূইঁয়াকে ফিরিয়ে আনা ছাড়া তৃনমূলের পক্ষে অন্য কোনও বিকল্প ভাবা সম্ভবই হয়নি কারন দলের অবস্থা এখানে খুবই খারাপ। আদি তৃনমূলের আটানব্বই ভাগই মিশে গেছে বিজেপিতে। রাজনীতি নয় বহুদিনের পুরানো বিধায়ক হিসাবে ডাঃ ভূইঁয়া কতটা ম্যানেজ করতে পারেন সেটাই এখানে আসল খেলা। সেক্ষেত্রে রাজ্যসভার সাংসদকে নির্ভর করতে সিপিএমের নিজস্ব ভোট ব্যাঙ্ক অটুট থাকার ওপর।

পিংলায় নতুন প্রার্থী তৃনমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি, বিধানসভায় এনার জেতার রেকর্ড নেই। প্রচন্ড টাফ ফাইট পিংলায় সঙ্গে সৌমেন মহাপাত্র গোষ্ঠীর একাংশের তীব্র বিরোধিতা। অন্যদিকে নারায়নগড়ে প্রবল গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কাঁটা বিছানো পথেই যাত্রা শুরু ২০১১র পরাজিত প্রার্থী সূর্যকান্ত অট্টর।

তবে ‘খেলা হবে’ খেলা জমিয়ে দিয়েছে মেদিনীপুর শহর। প্রয়াত বিধায়ক মৃগেন মাইতির পর এই পদের দাবিদার হয়ে অনেকখানি এগিয়ে গেছিলেন দলের যুবনেতা নির্মাল্য চক্রবর্তী, শেষ মুহূর্তে দল বদলে সৌমেন খান এগিয়েছিলেন কিছুটা অন্যদিকে দলের সাম্প্রতিক ভাবনায় ছিল মেদিনীপুর শহরের কোনও চিকিৎসকের। কিন্তু শেষ অবধি এই আসনে যে বহিরাগত প্রার্থী দেওয়া হচ্ছে সেই খবর পৌঁছে যায় কোনও কোনও নেতার কাছ থেকে।

আর এরপরই শহরে বিদ্রোহী কোনও গোষ্ঠীর পোষ্টার পড়ে যায় বহিরাগত প্রার্থী নয়, ভূমিপুত্র চাই। পোষ্টারে কোনও দল, কারও নাম না থাকলেও এই পোষ্টার যে শাসকদলেরই কারও দেওয়া তা প্রমাণ হয়ে যায় প্রার্থী তালিকায়। কারন অন্য কোনও দল বাইরে থেকে প্রার্থী দিচ্ছে এমন কোনও খবর নেই। শহরবাসীর নামে এই পোষ্টার পড়ার কয়েকঘন্টা পরেই দেখা যায় অভিনেত্রী জুন মালিয়াকে আনা হয়েছে মেদিনীপুর শহরের প্রার্থী করে। আপাততঃ এই আগুন নিভিয়ে রাস্তায় নামতে হবে তৃণমূলকে। দেখে নিন দুই মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামের তৃনমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকা:      পূর্ব মেদিনীপুর                         তমলুক- ডঃ সৌমেন কুমার মহাপাত্র
পাশকুড়া পূর্ব- বিপ্লব রায়চৌধুরী
পাশকুড়া পশ্চিম- ফিরোজা বিবি
ময়না- সংগ্রাম কুমার দোলুই
নন্দকুমার- সুকুমার দে
মহিষাদল- তিলক চক্রবর্তী
হলদিয়া (এস সি)- স্বপন নস্কর
নন্দীগ্রাম- মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
চন্ডীপুর- সোহম চক্রবর্তী (অভিনেতা)
পটাশপুর- উত্তম বারিক
কাঁথি উত্তর- তরুন কুমার জানা
ভগবানপুর- অর্ধেন্দু মাইতি
খেজুরি (এস সি)- পার্থ প্রতিম দাস
কাঁথি দক্ষিণ- জ্যোতির্ময় কর
রামনগর- অখিল গিরি
এগরা- তরুন মাইতি
পশ্চিম মেদিনীপুর
দাঁতন- বিক্রম চন্দ্র প্রধান
কেশিয়াড়ি (এস টি)- পরেশ মূর্‌মূ
খড়গপুর সদর- প্রদীপ সরকার
নারায়ণগড়- সূর্যকান্ত আট্টা
সবং- মানস রঞ্জন ভুঁইয়া
পিংলা- অজিত মাইতি
খড়গপুর- দীনেন রায়
ডেবরা- হুমায়ুন (প্রাক্তন আইপিএস)
দাসপুর- মমতা ভুঁইয়া
ঘাটাল (এস সি)- শঙ্কর দোলই
চন্দকণা (এস সি)- অরুপ ধরা
গড়বেতা- উত্তরা সিংহ (হাজরা)
শালবনি- শ্রীকান্ত মাহাত
কেশপুর (এস সি)- শিউলি সাহা
মেদিনীপুর- জুন মালিয়া (অভিনেত্রী)

ঝাড়গ্রাম                                                    নয়াগ্রাম (এস টি)- দুলাল মূর্‌মূ
গোপীবল্লভপুর- ডঃ খগেন্দ্রনাথ মাহাত
ঝাড়গ্রাম- বীরবাহা হাসদাঁ
বিনপুর (এস টি)- দেবনাথ হাসদাঁ