ডেবরা সুপার স্পেশালিটিতে হদিস মিলল করোনা আক্রান্ত সবংয়ের সদ্য মা হওয়া তরুনীর, নতুন করে করোনা পজিটিভ ডেবরার ২ পুলিশ কর্মী

4129

নিজস্ব সংবাদদাতা: রবিবার খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালে এক আসন্ন প্রসবার করোনা পজিটিভ ধরা পড়ায় হৈচৈ শুরু হওয়ার সময়ই পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে করোনা পজিটিভ ধরা পড়ল এক সদ্য প্রসূতির। ঘটনাকে ঘিরে যথেষ্ট উদ্বেগে রয়েছেন হাসপাতালের চিকিৎসাকর্মীরা। সদ্যজাত শিশু সমেত করোনা আক্রান্ত মা কে পাঠানো হয়েছে শালবনী করোনা হাসপাতালে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে শনিবারই সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন সবংয়ের ওই তরুনী। শনিবার ভাল থাকলেও রবিবার হঠাৎ করেই অস্বস্তি বাড়তে শুরু করে ওই সদ্য মা হওয়া যুবতীর। তাঁর শ্বাসকষ্ট হতে থাকে এবং রক্তচাপ কমে যায়। শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যায় ও নাড়ির গতি কমে যায়। চিকিৎসকরা দ্রুত তাঁকে পর্যবেক্ষণ করতে শুরু করেন। সন্দেহ হওয়ায় তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয় এর আগে তাঁর জ্বর বা অন্য কিছু উপসর্গ ছিল কিনা? সদ্যজাত সন্তানের মা জানান, দুদিন আগে তাঁর জ্বর হয়েছিল। ঘটনা শুনেই চিকিৎসকরা তাঁর আ্যন্টিজেন পরীক্ষা করেন।

কিছুক্ষনের মধ্যেই জানা যায় যুবতী করোনা পজিটিভ। কালক্ষেপ না করেই সদ্যজাত সমেত মা কে তখুনি শালবনী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে পাঠানো হয়।
ঘটনায় রীতিমত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে নার্স ও চিকিৎসা কর্মীদের মধ্যে। কারন এঁদের অনেকেই চিকিৎসা বা অন্যান্য পরিষেবা দিতে গিয়ে ওই প্রসূতির সরাসরি সংস্পর্ষে এসেছিলেন। প্রশ্ন ওঠে যেখানে আ্যন্টিজেন পরীক্ষার সুযোগ রয়েছে সেখানে নিয়ম অনুযায়ী লেবার রুমে তোলার আগে প্রসূতির সেই টেস্ট করা হলনা কেন? ঘটনার পর বেশ কয়েকজন বন্ড দিয়ে নিজেদের প্রসূতি বা আসন্ন প্রসবাদের ছাড়িয়ে নিয়ে অন্য নার্সিং হোমে নিয়ে চলে যান।

আরও পড়ুন -  আরও এক মৃত্যু নিয়ে খড়গপুরে আক্রান্ত ১৪, এবার মারা গেলেন পাঁচবেড়িয়ার মহিলা

চিকিৎসা কর্মী ও নার্সদের অভিযোগ এক একই ঘটনা খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালে ঘটার পরেই সেখানে প্রসূতি বিভাগ বন্ধ করে দেওয়া হলেও ডেবরার এই ঘটনায় প্রসূতি বিভাগ বন্ধ করা হয়নি। ডেবরা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, খড়গপুর ও সংলগ্ন এলাকায় বিকল্প ব্যবস্থা রয়েছ, অনেক নার্সিংহোম বা হাসপাতাল রয়েছে কিন্তু ডেবরাতে সেরকম কিছু নেই তাই হাসপাতালই তাঁদের একমাত্র অবলম্বন। তাই প্রসূতি বিভাগ বন্ধ করা যাবেনা। তবে যে সব নার্স বা চিকিৎসাকর্মীরা মনে করছেন যে ওই প্রসূতির সংস্পর্ষে এসেছেন তাঁরা তাদের নমুনা পরীক্ষা করা হবে। যদিও নার্সদের পক্ষে বলা হয়েছে যে তাঁদের এমন কিছু বলা হয়নি।
অন্যদিকে এদিনই আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় ডেবরা থানার ২ পুলিশ কর্মীর পজিটিভ এসেছে। এই নিয়ে ডেবরা থানার প্রায় ৭ জন আক্রান্ত হলেন। পাশাপাশি পুলিশ কর্মী মারফৎ আক্রান্ত হয়েছেন পরিবারের সদস্যরা ।

ডেবরা সুপার স্পেশালিটিতে হদিস মিলল করোনা আক্রান্ত সবংয়ের সদ্য মা হওয়া তরুনীর, নতুন করে করোনা পজিটিভ ডেবরার ২ পুলিশ কর্মী 1