পরপর তিন-দিনে দুটি বিষাক্ত কালাচ ও গোখরো এবং একটি নির্বিষ দাঁড়াশ সাপ উদ্ধার করলেন দেবরাজ চক্রবর্তী

277

নিজস্ব সংবাদদাতা: মেদিনীপুর লোকালয় থেকে পরপর সাপ উদ্ধার করে সাপদের যেমন প্রাণে বাঁচাচ্ছেন ,তেমনি সাপ উদ্ধার করে এলাকার জনগণকে সাপের আতঙ্ক থেকে রেহাই দিচ্ছেন সর্পপ্রেমী যুবক দেবরাজ চক্রবর্তী। পরপর তিন-দিনে মেদিনীপুর শহর এলাকায় দুটি বিষাক্ত সাপ ও একটি নির্বিষ দাঁড়াশ সাপ উদ্ধার করলেন মেদিনীপুরের বন‍্যপ্রাণ প্রেমী ও সর্পপ্রেমী যুবক দেবরাজ চক্রবর্তী। মঙ্গলবার রাত এগারোটা নাগাদ কাজ সেরে মহতাবপুরে নিজের বাড়ির টিউবওয়েল হাত মুখ ধুয়ে যাওয়ার সময় পশুপ্রেমী যুবক শিবু রানা লক্ষ্য করেন একটি বিষাক্ত কালাচ সাপ ওখানে উপস্থিত রয়েছে।যেটা প্রায় তাঁকে ছুঁয়ে একধারে অবস্থান করছে। একটু এদিক ওদিক পা ফেললেই বিপদে পড়তেন শিবু রানা। তিনি তৎক্ষণাৎ ফোনে সর্প উদ্ধারের কাজে বিশেষজ্ঞ যুবক দেবরাজ চক্রবর্তীর সাথে ফোনে যোগাযোগ করেন।পরপর তিন-দিনে দুটি বিষাক্ত কালাচ ও গোখরো এবং একটি নির্বিষ দাঁড়াশ সাপ উদ্ধার করলেন দেবরাজ চক্রবর্তী 1

আরও পড়ুন -  অত্যাধিক স্যানিটাইজারে হতে পারে ত্বকের ক্ষতি, দাবি বিশেষজ্ঞদের

মিনিট ১৫’র মধ্যে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সাপটিকে উদ্ধার করেন দেবরাজ বাবু। এছাড়াও খবর পেয়ে বুধবার বিদ‍্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়য়ের দক্ষিণদিকের গেট ও গোপ কলেজের মাঝামাঝি এলাকায় একটি সেলুন দোকান থেকে​ একটি গোখরো উদ্ধার করেন দেবরাজ বাবু। এই গোখরেটি একটু জখম ছিল। উদ্ধারের পর এর চিকিৎসা হয়। এছাড়াও বৃহস্পতিবার শহরের নিমতলা চক এলাক থেকে একটি নির্বিষ দাঁড়াশ সাপ উদ্ধার করেন দেবরাজ বাবু। দুটি সাপকে জঙ্গলে ছেড়ে দিয়েছেন দেবরাজ বাবু। বাকী জখম গোখরোর চিকিৎসা এখনও চলছে। সুস্থ হলেই জঙ্গলে ছেড়ে দেবেন দেবরাজ বাবু। দেবরাজ চক্রবর্তী বাবুর কথায়, কোথাও সাপ বেরোলে তাকে মারবেন না, তাঁকে খবর দিলে তিনি সাপ উদ্ধার করে নিরাপদ জায়গায় ছেড়ে দেবেন। তিনি আরও বলেন জীবজগতের বৈচিত্র্য ও ভারসাম্য রক্ষায় সাপ বাঁচিয়ে রাখা জরুরি।

পরপর তিন-দিনে দুটি বিষাক্ত কালাচ ও গোখরো এবং একটি নির্বিষ দাঁড়াশ সাপ উদ্ধার করলেন দেবরাজ চক্রবর্তী 2