ভুলবশত দিশা সালিয়ানের কেস ডিটেলস ডিলিট হয়ে গিয়েছে, বিহার পুলিশকে জানালো মুম্বাই পুলিশ

416

ওয়েব ডেস্ক : সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ানের আত্মহত্যার ৭ দিন পরেই সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনা সামনে এসেছিল। সে অনুযায়ী সুশান্তের মৃত্যু সাথে তাঁর প্রাক্তন ম্যানেজার দিশার মৃত্যুর যোগ থাকতে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে। ফলে সেইমতো তদন্তের স্বার্থে মুম্বাই পুলিশের কাছে দিশা সালিয়ানের কেস ডিটেলস চেয়েছিল বিহার পুলিশ। কিন্তু প্রত্যুত্তরে মুম্বাই পুলিশের তরফে যা জানানো হল তা শুনে রীতিমতো হতবাক বিহার পুলিশ। মুম্বাই পুলিশের তরফে জানানো হয়, দিশা সালিয়ানের কেস ডিটেলস ভুল করে ‘ডিলিট’ হয়ে গিয়েছে। সেগুলো উদ্ধার করা যাচ্ছে না!

জানা গিয়েছে, দিশা সালিয়ানের মৃত্যু সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় জানতে রবিবার মালওয়ানি থানায় হাজির হয়েছিল বিহার পুলিশ। সেসময় থানার এক আধিকারিক তাঁদের হাতে দিশার কেস ডিটেলস-এর ফোল্ডার শেয়ার করতে যাচ্ছিলেন। সেই সময় ঠিক সিনেমার মতো ওই আধিকারিকের কাছে একটি ফোন আসে। এরপরই নাটকীয়ভাবে এক মূহুর্তে সবকিছু বদলে যায়। বলা হয় দিশার কেস ডিটেলস যে ফোল্ডারে ছিল, সেটি ভুলবশত ডিলিট হয়ে গিয়েছে, উদ্ধার করা যাচ্ছে না। মুম্বাই পুলিশের কথা শুনে ফোল্ডারটি উদ্ধারের জন্য বিহার পুলিশ সাহায্য করতে চাইলেও তাঁদের হাতে ল্যাপটপ দিতে রাজি হয়নি। এরপর সেখান থেকে বেরিয়ে বিহারে পুলিশের দলটি দিশা সালিয়ানের বাড়ি গেলে সেখানে তাঁর পরিবারের কেউ ছিলেন না বলে জানা যাচ্ছে।

এর কয়েকঘন্টা পরে ফের মালওয়ানি পুলিশের তরফে বিহার পুলিশের কাছে ফোন যায়। সেসময় জানানো হয় দিশা সালিয়ানের মৃত্যুর ঘটনায় কোনও তথ্যই ডিলিট হয়নি। সবই তাঁদের কাছে রয়েছে। তবে এই মামলা আপাতত তদন্তাধীন। তবে দিশার পরিবারের তরফে এখনও পর্যন্ত কারোর বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ করা হয়নি। এদিকে সুশান্ত মামলার তদন্তে রবিবারই পাটনা থেকে মুম্বই এসে পৌঁছেছেন এসপি বিনয় তিওয়ারি। এবার থেকে তাঁর নেতৃত্বেই সুশান্তের মামলার তদন্ত হবে বলে জানা গিয়েছে। তবে কেন মালওয়ানি পুলিশের তরফে দিশার কেস ডিটেলস নেই বলার কয়েকঘন্টার মধ্যে ফোন করে সমস্ত কেস ডিটেলস আছে বলে জানানো হল? কে-ই বা সেসময় মালওয়ানি পুলিশের ওই আধিকারিককে ফোন করেছিলেন? তিনি এমন কি বা বললেন যাতে দিশার কেস ডিটেলস বিহার পুলিশের হাতে তুলে দিতে গিয়েও দিল না ওই আধিকারিক? এধরণের একাধিক প্রশ্নের উত্তর এখন অধরা। সেসবেরই উত্তর খুঁজছেন বিহার পুলিশ।

আরও পড়ুন -  মাধ্যমিকের দ্বিতীয় দিনেও ফাঁস হয়ে গেল কি ইংরাজির প্রশ্নও ! ক্ষু্দ্ধ শিক্ষামন্ত্রী তলব করলেন পর্ষদ সভাপতিকে

প্রসঙ্গত, সুশান্তের মৃত্যুর মাত্র ৭ দিন আগেই মৃত্যু হয় তাঁর প্রাক্তন ম্যানেজার দিশার। গত ৮ জুন দিশা সালিয়ান আত্মহত্যা করেছে বলে জানা যায়। জানা গিয়েছে, দিশার মৃত্যুর পরই সুশান্ত ভীষণভাবে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিল। একথা সুশান্ত তাঁর দিদি মীতুকেও জানিয়েছিলেন। এবিষয়ে সুশান্তের এক বন্ধু জানিয়েছেন, ”দিশার মৃত্যুর ঘটনায় ওরা আমার নাম জড়িয়ে দেবে না তো! ওরা আমাকে এবার ছাড়বে না, আমাকে তাড়া করবে।” সেসময় দিদি মীতুকে বারংবার এমনটাই বলছিলেন সুশান্ত। কিন্তু বারংবার বিভিন্ন ক্ষেত্রে ‘ওরা’ কথাটি উঠে আসলেও এই ‘ওরা’ আসলে কারা, তা এখনও পর্যন্ত ধোঁয়াশায় মধ্যেই রয়েছে।

ভুলবশত দিশা সালিয়ানের কেস ডিটেলস  ডিলিট হয়ে গিয়েছে, বিহার পুলিশকে জানালো মুম্বাই পুলিশ 1