কমিশনের পর্যবেক্ষকের সেজে বুথে বুথে ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা! নন্দীগ্রামে গ্রেপ্তার তৃনমূল কর্মী, আশি বুথে এজেন্ট দিতে পারেনি তৃনমূল, দাবি শুভেন্দুর

795
কমিশনের পর্যবেক্ষকের সেজে বুথে বুথে ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা! নন্দীগ্রামে গ্রেপ্তার তৃনমূল কর্মী, আশি বুথে এজেন্ট দিতে পারেনি তৃনমূল, দাবি শুভেন্দুর 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: জাল পরিচয়পত্র বানিয়ে নির্বাচন কমিশনের পর্যবেক্ষক সেজে ঘুরছেন বুথে বুথে! লাইনে দাঁড়ানো ভোটারদের প্রভাবিত করছেন এমনই অভিযোগে এক তৃনমূল কর্মীকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। দ্বিতীয় দফার ভোটে হাই-ভোল্টেজ লড়াইয়ের কেন্দ্র পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রামে এমনই ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে। অভিযোগ নির্বাচন কমিশনের পরিচয়পত্র জাল করে কমিশন নিযুক্ত ভুয়ো পর্যবেক্ষকের বেশে বুথে ঢুকে ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি যাচাই করার নামে ভোটারদের প্রভাবিত করছিলেন তিনি। খবর পেয়ে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

রাজারামচকে বুথ থেকে গ্রেপ্তার হওয়া ওই ব্যক্তিকে জিয়ারুল নামে চিহ্নিত করা গেছে। তার আচরণ সন্দেহ জনক মনে হওয়ায় তার পরিচয়পত্র দেখতে চান পুলিশ ও সিআরপিএফের আধিকারিকরা। দেখা যায় মুস্তাক আলি শাহের নামে কমিশনের জাল পরিচয়পত্র বানিয়ে সাদা বোলেরো গাড়ি চড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি। পরিচয়পত্রে রয়েছে কমিশনের প্রতীক। ধৃত জিয়ারুল একজন সক্রিয় তৃণমূলকর্মী বলে জানা গিয়েছে।

কমিশনের পর্যবেক্ষকের সেজে বুথে বুথে ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা! নন্দীগ্রামে গ্রেপ্তার তৃনমূল কর্মী, আশি বুথে এজেন্ট দিতে পারেনি তৃনমূল, দাবি শুভেন্দুর 2

কেন তিনি জাল পরিচয়পত্র নিয়ে ঘুরছেন জানতে চাইলে অভিযুক্ত বলেন, বুঝতে পারেননি তিনি। অভিযুক্ত জিয়ারুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি কোথা থেকে জাল পরিচয়পত্র পেলেন তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এদিকে এখনো অবধি মোটের ওপর নন্দীগ্রামে শান্তিপূর্ণ ভোট হচ্ছে বলেই মনে করছেন বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী। সকালেই নন্দীগ্রামের নন্দনায়কবাড়ে নিজের ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে এসে শুভেন্দু জানান, “সকাল থেকেই শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হচ্ছে। আমার তরফ থেকে তেমন কোনও অভিযোগ নেই। দু’টি বুথে আমার এজেন্টদের বাধা দেওয়া হয়েছিল। তবে, সমস্যা মিটে গিয়েছে। শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হোক। নিয়ম মেনেই হোক।” তিনি এও দাবি করেছেন যে , সব বুথেই তাঁর নির্বাচনী এজেন্ট রয়েছে। তবে, অন্তত ৮০টি বুথে তৃণমূল এজেন্ট দিতে পারেনি।

যদিও তৃণমূলের তরফে সেই অভিযোগ নাকচ করে দেওয়া হয়েছে। তৃণমূল নেতা স্বদেশ দাস সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, শুভেন্দু মিথ্যে বলে ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন। এদিকে, এদিন সাতসকালেই নন্দীগ্রাম থানায় গিয়ে হাজির হন মমতার নির্বাচনী এজেন্ট শেখ সুফিয়ান। সূত্রের খবর, পুলিশের কাছে একগুচ্ছ অভিযোগ জানিয়ে এসেছেন তিনি।