বউ য়ের সাথে ঝগড়া! গল্প ফেঁদে কোয়ারান্টাইনে ঘাটালের যুবক

475
Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: মহারাষ্ট্রের জলগাঁও থেকে পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালে এসে হাজির যুবক! মঙ্গলবার বেলা ১০টা নাগাদ ঘাটালের শীতলপুর গ্রামে ৩৫বছরের যুবক মিলন কারফা কে গ্রামে ফিরতে দেখে একই সঙ্গে বিস্ময় আর আতঙ্ক গ্রাস করে গ্রামের মানুষকে। বিস্ময়ের কারন লকডাউনের বাজার , ট্রেন, বাস বন্ধ অথচ সুদুর জলগাঁও থেকে হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে যুবক ঘাটালে এসে পৌঁছাল কী করে? আর আতঙ্কের কারন মহারাষ্ট্র এখন দেশের মধ্যে করোনা আক্রান্তের মধ্যে শীর্ষ স্থানে। আর এই মহারাষ্ট্র থেকেই এসে ঘাটাল লাগোয়া দাসপুরের গ্রামে কোভিড-১৯ আক্রান্ত এক যুবক, শুধু তাই নয় তার সাথে আক্রান্ত তার বাবা ও স্ত্রীও।

Advertisement

গ্রামবাসীদের বিস্ময়কে তুড়ি মেরে উড়িয়ে জলগাঁও তে সোনার কাজ করা ওই যুবক মিলন জানায়, ” রাস্তায় কখনও সবজির গাড়ি, কখনও অন্য পণ্যবাহী লরিতে চেপে কখনও আবার পায়ে হেঁটে আমি এসেছি।” বিস্ময় কাটার পর বীরের সম্মান পাওয়া উচিৎ ছিল হয়ত যুবকের কিন্তু পরিবর্তে গ্রামবাসীরা আতঙ্কিত হয়ে পুলিশে খবর দিল। পুলিশ আর স্বাস্থ্যকর্মীরা এসে চ্যাংদোলা করে অ্যাম্বুলেন্সে তুলে যুবককে নিয়ে সোজা মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজের কোয়ারান্টাইন হাসপাতালে ভর্তি করে দিয়েছে। আপতত ১৪দিন সেখানেই ঠাঁই যুবকের।

Advertisement
Advertisement

গল্পটা এই পর্যন্ত মিটে যায় যদি না ওই যুবকের হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দেওয়ার মধ্যে সন্দেহ না থাকে। সাধারন গ্রামবাসী বিষয়টা মেনে নিলেও মানতে পারেননি ‘ দ্য খড়গপুর পোষ্ট’ য়ের ঘাটাল সংবাদদাতা। ঘটনার আরও গভীরে গিয়ে তদন্ত শুরু করেন তিনি। যোগাযোগ করা হয় ওই যুবকের পরিবারের সঙ্গে আর তখনই বেরিয়ে আসে আরেক গল্প। মিলন কারফার ভাই শত্রুঘ্ন জানালেন, ” লক ডাউন শুরুর তিনমাস আগেই দাদা ঘরে ফিরেছিল। ক’দিন পরেই বৌদির সঙ্গে কোনও এক বিষয় নিয়ে দাদার ঝগড়া হয় । দাদা রাগ করে দাসপুর থানার খুকুড়দহ এলাকার এক আত্মীয় বাড়ি চলে যায়। যখন দাদার রাগ পড়ে তখন লকডাউন শুরু হয়ে গেছে ফলে আর ফিরতে পারেনি। কাল সকাল বেলায় প্রায় ১৫কিলোমিটার পথ হেঁটেই দাদা ঘরে ফিরে। বাকিটা দাদা হিরো সাজার ইচ্ছা! বানিয়ে বানিয়ে গল্প বলে নিজের ফাঁদে নিজে পড়েছে।”

গতকাল রাতেই মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজে মুখের লালারস পরীক্ষা করা হয়েছে। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা মূখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক গিরিশ চন্দ্র বেরা জানিয়েছেন, ‘সমস্ত নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে কিন্তু আমরা কোনও ঝুঁকি নিতে চাইনা। আপাতত ১৪দিন ওঁকে কোয়ারান্টানেই থাকতে হবে।” বোঝ কান্ড! বউয়ের সঙ্গে ঝগড়ার কত দাম?