মনোনয়ন জমা দিতে গিয়ে প্রার্থী দেখলেন তাঁর বদলে প্রার্থী অন্য! বর্ধমানের গলসিতে এমনই আজব কান্ড বিজেপিতে

190
মনোনয়ন জমা দিতে গিয়ে প্রার্থী দেখলেন তাঁর বদলে প্রার্থী অন্য! বর্ধমানের গলসিতে এমনই আজব কান্ড বিজেপিতে 1

নিউজ ডেস্ক: আত্মহত্যার হুমকি দিয়েও মিলল না ফল, প্রার্থীর অজান্তেই ছিনিয়ে নেওয়া হল তাঁর প্রার্থী পদ। এমনই আজব কাণ্ড ঘটেছে বঙ্গ বিজেপিতে। পূর্ব বর্ধমানের গলসি বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেছিল তপন বাগদির নাম। কিন্তু মনোনয়ন জমা দিতে গিয়ে প্রার্থী জানতে পারেন তিনি নয়, ঐ কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয়েছে বিকাশ বিশ্বাসকে। ফলে শূন্য হাতেই ফিরে আসতে হয় তপনকে।

সোমবার জাঁকজমক ভাবে র‍্যালি করে মনোনয়ন পত্র জমা দিতে এসেও বিজেপি প্রার্থী তপন জানান, মনোনয়ন পত্র জমা দিতে এসেছেন এবং জমা দিয়ে যাবেন। তবে কিছুক্ষন বাদেই তপন বাবু রিটার্নিং অফিসারের অফিস থেকে বেরিয়ে যান মনোনয়ন পত্র জমা না দিয়েই। এই বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, কিছু কাগজের ত্রুটি থাকার জন্য জমা হয়নি। শেষে নিরাশ হয়ে সূন্য হাতেই ফিরতে হয় তপন ও তাঁর সমর্থকদের।

মনোনয়ন জমা দিতে গিয়ে প্রার্থী দেখলেন তাঁর বদলে প্রার্থী অন্য! বর্ধমানের গলসিতে এমনই আজব কান্ড বিজেপিতে 2

তবে আচমকা এইভাবে প্রার্থী পদ পরিবর্তন কেন? সূত্রের খবর, শ্লীলতাহানীর অভিযোগ থাকায় গলসির বিজেপি প্রার্থীকে নির্বাচনী লড়াই থেকে সরে দাঁড়াতে বলেছিলেন দলের স্থানীয় নেতারা। কিন্তু তা মানতে রাজি হননি প্রার্থী। শনিবার বর্ধমান প্রেসকর্ণারে সাংবাদিকদের সামনে বিজেপি প্রার্থী জানান, বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব তার নাম ঘোষণা করার পর এলাকার সমস্ত কর্মীরা উচ্ছ্বসিত, আনন্দিত। ইতিমধ্যে প্রায় তার বিধানসভা কেন্দ্রে ৭৫ শতাংশ প্রচার কাজ তিনি শেষ করে ফেলেছেন।

এদিন তিনি অভিযোগ করেন, এত কিছুর পরেও বিজেপির জেলা নেতৃত্ব সহ বর্ধমান, দুর্গাপুর কেন্দ্রের সাংসদ আলুওয়ালিয়া তাঁকে তাঁর প্রার্থী পদ থেকে সরে যেতে চাপ সৃষ্টি করছেন। এদিন গলসি বিধানসভার বিজেপির কার্যকর্তাদের পাশে নিয়েই তিনি এই অভিযোগ করেন। সেইসঙ্গেই তিনি জানান, তাঁর বিধানসভা এলাকায় সকলেই জেনে গিয়েছেন তিনি এবারের প্রার্থী। এমতাবস্থায় যদি তাঁকে প্রার্থী পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়, তবে তিনি মৃত্যু বরণ করবেন বলেই জানান এদিন। প্রয়োজন হলে তিনি বিজেপির জেলা মুখ‍্য কার্যালয়ে এসে মৃত‍্যু বরন করবেন বলেও এদিন একপ্রকার হুমকি দেন প্রার্থী।

তবে সেই হুমকিতেও কাজ হল না, অবশেষে মনোনয়ন জমা দিতে এসেই গলসির বিজেপি প্রার্থী জানতে পারেন, তার প্রার্থী পদ বাতিল করে দল প্রার্থী করেছে বিকাশ বিশ্বাসকে, যিনি একজন শিক্ষক। এদিন বিজেপি প্রার্থী তপন জানান, দিন তিনেক আগে বর্ধমান-দুর্গাপুরের সাংসদ এসএস আলুওয়ালিয়া পার্টি অফিসে ডেকে পাঠিয়েছিলেন গলসির বিজেপি প্রার্থী তপন বাগদিকে। সেদিনই তাঁকে প্রচার না করতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তাঁর প্রার্থী পদ যে বাতিল হতে চলেছে, এমন কিছু জানানো হয়নি তাকে, তাই মনোনয়ন জমা দিতে এসেছিলেন।

আর এই ঘটনায় অবাক নতুন প্রার্থী বিকাশ বিশ্বাসও। তাঁকে যে শেষমুহূর্তে লড়াইয়ে নামানো হবে, তা কল্পনাও করেননি তিনি। তবে বিজেপির নতুন প্রার্থী পানাগড়ের বাসিন্দা কাঁকসা হাইস্কুলের শিক্ষক বিকাশ বিশ্বাস দীর্ঘদিন ধরে বিজেপি করছেন। তিনি জানান, “বেশ কয়েকদিন ধরে তপন দার হয়ে প্রচার করছি। তাঁর সঙ্গে দেখা করব, তাঁকে সঙ্গে নিয়েই প্রচার করব।“ উল্লেখ্য, ২২ এপ্রিল গলসিতে ভোট।