লকডাউন মানতে নারাজ নিহাং শিখ যুবকের দল কেটেই নিল পাঞ্জাব পুলিশ আধিকারিকের হাত

304
Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: লকডাউনে কড়াকড়ি বরাদস্ত হয়নি তাই পুলিশের হাতই কেটে নিল নিহাং শিখ ধর্মাবলম্বী চার যুবকের একটি দল। রবিবার সাত সকাল পাঞ্জাবের একটি সবজি মান্ডিতে নিহাং শিখেদের আক্রমনে পাঞ্জাব পুলিশের এক এএসআইয়ে বাঁ হাত কবজি থেকে কেটে শুধু নিচে পড়ে যায়নি ওদের আক্রমনে গুরতর জখম হয়েছেন পাঞ্জাব পুলিশের এক ইনসপেক্টর ও আরও এক সাব ইনসপেক্টর। খোলা তরোয়াল হাতে ওই যুবকদের হামলায় কারও বাহু ও কাঁধে , কারও পায়ে গুরুতর ক্ষত হয়েছে। এরপরই গাড়ি নিয়ে চম্পট দেয় ওই দলটি। রবিবার দুপুর অবধি এই ঘটনায় ৭জন কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে পাঞ্জাব পুলিশ জানিয়েছে।

Advertisement

রবিবার সকাল ছ’টা পনের নাগাদ এই ঘটনা ঘটেছে পাঞ্জাবের পাতিয়ালা জেলার সানউর সবজি মাণ্ডিতে। কবজি থেকে হাতের সামনের অংশ কেটে পড়া পাঞ্জাব পুলিশের ওই এএসআই হরজিৎ সিংকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।পরে তাঁকে চণ্ডীগড়ের পিজিআইএমইআর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তাঁর অস্ত্রোপচার শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাতিয়ালার পুলিশ সুপার মনদীপ সিং সিধু। অন্য দিকে ইনসপেক্টর বিলকার সিং এসআই রাজ সিংকে ভর্তি করা হয়েছে স্থানীয় রাজিন্দর হাসপাতালে।

Advertisement
Advertisement

পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, প্রথমেই ওই গাড়িটি দ্রুত বেগে সবজি মন্ডির সামনে থাকা পাঞ্জাব পুলিশের স্থাপন করা গার্ডরেলের ব্যারিকেড ভেঙে ঢুকে পড়ে। এরপরই উপস্থিত পুলিশ কর্মীরা তাদের দিকে ছুটে যায় গাড়ির দিকে। পুলিশ জানতে চায় তাদের কাছে কার্ফ্যু পাশ আছে কিনা ? শুরু হয় বচসা। এরই মধ্যে উন্মত্ত তরবারি হাতে নেমে আসে যুবকের দল। অতর্কিতে হামলা চালায় পুলিশ কর্মীদের ওপর। ওদের একজনের কোপে হাত কেটে পড়ে যায় হরজিতের। এরপরই ওই গাড়িতেই ঘটনাস্থল থেকে খিচডি সাহিব গুরদুয়ারার দিকে চম্পট দেয় যুবকের দল। আক্রান্ত পুলিশ দের ব্যস্ত সহকর্মীরা দ্রুত তাঁদের নিয়ে হাসপাতালের দিকে যায়। তখুনি দেখা যায় পড়ে থাকা কাটা হাতটি নিয়েও তাঁরা যাচ্ছেন , যদি জোড়া লাগানো যায় এই আশায়।

উল্লেখ্য দেশের কয়েকটি অংশের সঙ্গে পাঞ্জাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। গতকাল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের আগে পাঞ্জাব সরলার আরও দু’সপ্তাহ লকডাউন ঘোষণা করে দিয়েছিল। কোথাও যাতে লকডাউন না ভাঙা হয় সে ব্যাপারে পুলিশকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। লকডাউন শিথিল হলে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। সেই মতোই খবর পেয়ে জটলা হঠাতে গেছিল পুলিশ। আর তাতেই রক্তারক্তি কাণ্ড বেঁধে গেল পাতিয়ালার সবজি বাজারে।
পঞ্জাবের পুলিশ প্রধান দিনকর গুপ্তা টুইট করে জানিয়েছেন, ‘‘একদল লোক কয়েক জন পুলিশ আধিকারিক এবং পাতিয়ালার সবজি মান্ডির এক মান্ডি বোর্ড আধিকারিকের উপরে হামলা চালায়। এএসআই হরজিৎ সিংহ, যাঁর হাত কেটে গিয়েছে তাঁকে চণ্ডীগড়ের পিজিআইয়ে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।”

দ্বিতীয় আরও একটি টুইটে তিনি জানান‌, ‘‘আমি পিজিআইয়ের ডিরেক্টরের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি শীর্ষস্থানীয় প্লাস্টিক সার্জেনদের নিয়োগ করেছেন অস্ত্রোপচারের জন্য। অস্ত্রোপচার সদ্য শুরু হয়েছে। অভিযুক্ত নিহাং দলকে গ্রেফতার করে পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে।” এরপরই জোরদার চিরুনি তল্লাশি শুরু করে প্রথমে চার ও পরে আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পাঞ্জাব পুলিশ।