২রা মে থেকে ৬ই মে অবধি ভারী বজ্রপাত! কৃষক সহ সাধারণ মানুষকে সতর্ক করল আবহাওয়া দপ্তর

89
২রা মে থেকে ৬ই মে অবধি ভারী বজ্রপাত! কৃষক সহ সাধারণ মানুষকে সতর্ক করল আবহাওয়া দপ্তর 1

নিউজ ডেস্ক: দেশে বজ্রপাতে মৃত্যুর হার ক্রমশই বাড়ছে। প্রতি বছরই বিহার, উত্তরপ্রদেশ, ঝাড়খন্ডে বজ্রপাতে শত শত মানুষের মৃত্যুর ঘটনা রীতিমত চিন্তায় ফেলেছে আবহবিদ্‌দের। বিশেষ করে মাঠে কর্মরত কৃষক, ক্ষেতমজুর ও পথচারীরা বজ্রপাতের বলি হচ্ছেন। এরকমই বজ্রপাতের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে পশ্চিমবঙ্গেও। আগামী ২ তারিখ থেকে ৬ তারিখ পর্যন্ত অর্থাৎ রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার বজ্রপাতের সম্ভাবনার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্যের কৃষক ও অসাধারণ মানুষকে সতর্ক করল হাওয়া দপ্তর।

২রা মে থেকে ৬ই মে অবধি ভারী বজ্রপাত! কৃষক সহ সাধারণ মানুষকে সতর্ক করল আবহাওয়া দপ্তর 2

ইন্ডিয়ান মেট্রোলজিকাল ডিপার্টমেন্ট (IMD)-র বিজ্ঞানীরা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, গত ৩০ শে এপ্রিল আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী ২ থেকে ৬ মে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বজ্রপাত ও ঝড়ো হওয়া সহ মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। উত্তরবঙ্গের একাংশ সহ নদীয়া, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম ও উত্তর ২৪ পরগণা জেলার বিভিন্ন স্থানে লক্ষ্য করা যেতে পারে দুর্যোগ। আগামী ৩ থেকে ৫ মে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা।

২রা মে থেকে ৬ই মে অবধি ভারী বজ্রপাত! কৃষক সহ সাধারণ মানুষকে সতর্ক করল আবহাওয়া দপ্তর 3

আইএমডি-এর পক্ষ থেকে জনগনকে সতর্ক করতে বলা হয়েছে রাজ্যকে। এই পরামর্শ অনুসারে তৈরী রয়েছে বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর। একনজরে দেখে নেওয়া যাক সতর্কতামুলক বাণীগুলি-
বজ্রপাত সহ বৃষ্টি চলাকালীন খোলা আকাশের নিচে থাকবেন না।
অবশ্যই কোন পাকা বাড়িতে আশ্রয় নেবেন।
কোন গাছের তলায় বিশেষ করে দূরবর্তী বিচ্ছিন্ন কোন গাছের তলায় কোনভাবেই আশ্রয় নেবেন না।
চাষীদের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে যাতে কেউ দুর্যোগের সময়ে মাঠে বা খোলা আকাশের নিচে থাকবেন না।
রাজ্য সরকারের বিপর্যয় মোকাবিলা বিভাগের পক্ষ থেকে সকল জেলার জেলাশাসক, এস পি সহ পুলিশ এবং কৃষি দপ্তরের আধিকারিকদের অনুরোধ জানানো হয়েছে যে, তারা যেন নিম্নলিখিত বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেন-

(১) জনসচেতনতার জন্য প্রচার।                                      (২) জনগণের প্রাণ ও সম্পত্তি রক্ষা করার জন্য ক্যুইক রেসপন্স টিমকে প্রস্তুত রাখা।                                           (৩) সকল ব্যবস্থা গ্রহণের সময় কোভিড বিধি সার্বিক ভাবে পালন করা, যেমন- দূরত্ব বিধি মেনে চলা, মাস্ক পড়া ও হ্যান্ড স্যনিটাইজার ব্যবহার করা নিশ্চিত করা যায়।                   (৪) IMD- এর সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তির প্রতি নজর রাখা।
IMD প্রতিটি জেলার প্রাকৃতিক দুর্যোগের এক বা দু ঘন্টা আগে যে সতর্কীকরণ বার্তা পাঠাবে সেদিকে কঠোর নজর রাখা ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথা বলা হয়েছে।

Previous articleহেঁসেলিয়ানা: শুক্তো ; সুমিতা গোস্বামী
Next articleএকনজরে আজকের রাশিফল