ঐতিহাসিক রায় কলকাতা হাইকোর্টের, করোনা আবহে সবধরনের বাজিই নিষিদ্ধ করলো আদালত

403
ঐতিহাসিক রায় কলকাতা হাইকোর্টের, করোনা আবহে সবধরনের বাজিই নিষিদ্ধ করলো আদালত 1
ঐতিহাসিক রায় কলকাতা হাইকোর্টের, করোনা আবহে সবধরনের বাজিই নিষিদ্ধ করলো আদালত 2

ওয়েব ডেস্ক : করোনা আবহে শুধুমাত্র শব্দ বাজি নয়, সব ধরনেরই আতসবাজি নিষিদ্ধ করল কলকাতা হাইকোর্ট। সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্টে আইনজীবীদের তরফে কালিপুজো, ছটপুজো, কার্তিক পুজো, জগদ্ধাত্রী পুজোয় যাতে দূর্গাপুজোর মতই মণ্ডপে প্রবেশের ক্ষেত্রে যাতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়, সেবিষয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার সেই মামলার শুনানিতে রায় দিল আদালত।

জানানো হল, দূর্গাপুজোর মতই পরবর্তী পুজোগুলিতে মণ্ডপের বাইরে ‘নো এন্টি’ বোর্ড ঝোলানোর নির্দেশ দিল আদালত। তবে শুধুমাত্র পুজো মণ্ডপে নিষেধাজ্ঞা জারি করাই নয়, করোনা আবহে আতসবাজি নিষিদ্ধ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। এবিষয়ে এদিন আইনজীবীর তরফে জানানো হয়, একেই বাজির গন্ধে বায়ু দূষণ হয় তারওপর, তা সরাসরি ফুসফুসে আক্রমণ করে। ফলে করোনা পরিস্থিতিতে এটি করোনা রোগীদের ক্ষেত্রে অনেক বেশি ক্ষতিকর। ফলে সেকথা মাথায় রেখেই এবছর করোনা পরিস্থিতিতে বাজি নিষিদ্ধ করলো আদালত।

ঐতিহাসিক রায় কলকাতা হাইকোর্টের, করোনা আবহে সবধরনের বাজিই নিষিদ্ধ করলো আদালত 3

এদিন বিচারপতি সঞ্জীব বন্দোপাধ্যায় বলেন, “এক্ষেত্রে রাজ্য সরকার যে আবেদন করেছে তা সবার মেনে চলা উচিত। বাজি ফাটালে বায়ুদূষণ হয়। তার প্রভাব মানুষের ফুসফুসে পড়ে।” প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতিতে দূর্গাপুজোর মতই কালীপুজো, কার্তিকপুজো, জগদ্ধাত্রীপুজো, ছটপুজো পালনের ক্ষেত্রেও একাধিক বিধিনিষেধ আরোপ করার দাবিতে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সেই মামলার শুনানিতে বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “দুর্গাপুজোয় সংক্রমণ রুখতে আদালত যে নির্দেশ দিয়েছিল তা বাস্তবায়নে রাজ্য সরকারের ভূমিকা অনুকরণীয়। কোথাও কোথাও তার ব্যতিক্রম হলেও মোটের ওপর ভাল কাজ করেছে সরকার।” এর পাশাপাশি এদিন দূর্গাপুজোয় ভিড় নিয়ন্ত্রণে রাজ্যের ভূয়সী প্রশংসা করে বিচারপতি বলেন, “রাজ্য সরকারের তৎপরতার জন্যই দুর্গাপুজোর পরেও করোনা সংক্রমণ বাড়েনি।”