পরলৌকিক ক্রিয়ায় অংশ নিতে গিয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা; পিকআপ ভ্যান উল্টে ৯ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু, মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধির আশঙ্কা

218
পরলৌকিক ক্রিয়ায় অংশ নিতে গিয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা; পিকআপ ভ্যান উল্টে ৯ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু, মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধির আশঙ্কা 1

নিউজ ডেস্ক: আত্মীয়ের পরলৌকিক ক্রিয়া সম্পন্ন করতে গিয়ে মৃত্যুর কবলে পড়লেন গোটা পরিবার। পিকআপ ভ্যান উল্টে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, কমপক্ষে ৯ জনের, বাড়তে পারে মৃতের সংখ্যা। গুরুতর জখম ১৩ জন। আহতরা সকলেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। কোরাপুট জেলার মুর্তাহান্ডির কাছে রবিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে। পিকআপ ভ্যান উল্টে ভয়াবহ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

 

পরলৌকিক ক্রিয়ায় অংশ নিতে গিয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা; পিকআপ ভ্যান উল্টে ৯ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু, মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধির আশঙ্কা 2

জানা গিয়েছে, ওই পিকভ্যাপ ভ্যানে কমপক্ষে ৩০ জন ছিলেন। তাঁরা ওডিশার কোটপাড়ায় এক আত্মীয়ের পরলৌকিক ক্রিয়া সম্পন্ন করে ছত্তিশগড়ের বস্তার জেলার নগরনারে ফিরছিলেন। সে সময় ৩২৬ নম্বর জাতীয় সড়কে মুর্তাহান্ডি এলাকায় পিকঅ্যাপ ভ্যানটি উল্টে যায়। পুলিশের অনুমান, গাড়ির বেপরোয়া গতির জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে।

কোরাপুটের পুলিশ সুপার বরুণ গুন্টুপল্লী বলেন, ‘মৃতদের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। অন্তত ১৩ জন যাত্রী মাথায় গুরুতর চোট পেয়েছেন। তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রত্যেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।’ আর পুলিশ সুপার এই তথ্য জানানোর পরপরই আরও এক যাত্রী মৃত্যুর মুখে ঢলে পড়েন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, পিকআপ ভ্যানটি তার ক্ষমতার চেয়ে বেশি লোককে বহন করছিল। দুর্ঘটনার সময় অনেকেই ওই ভ্যানে দাঁড়িয়ে ছিলেন।

এছাড়াও রবিবার বিকেলে এমনই আরও এক দুর্ঘটনা ঘটে সুন্দরগড় জেলার কণিকা জঙ্গলে। জঙ্গল থেকে হঠাৎ বেরিয়ে আসা একটি বন্য শুকরের সঙ্গে সঙ্ঘর্ষ হওয়ায় পিকঅ্যাপ ভ্যানটি উল্টে যায়। ভ্যানটিতে অন্তত ১৬ জন শ্রমিক ছিল। তাঁদের মধ্যে চারজন গুরুতর জখম হন।

সরকারি রেকর্ড অনুযায়ী, ২০২০ সালে ওডিশায় ৪,৮০০ জনের মৃত্যু হয়েছে দুর্ঘটনায়। ২০১৯–এ দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ৫,৩৩৩। গত বছর যেখানে ওডিশায় মোট দুর্ঘটনা হয় ৯,৫০০টি, ২০১৯–এ সেই সংখ্যা ছিল অনেকটাই বেশি। ১১ হাজার ৬৫টি দুর্ঘটনা হয় ২০১৯ সালে।

একের পর এক দুর্ঘটনা দেশের বিভিন্ন রাজ্যে এবারে ভয়াবহ দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটল
ওডিশায়। আর এই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল কমপক্ষে ৯ জনের। জখম ১৩ ব্যক্তিদের কোরাপুটের লক্ষ্মণ নায়েক মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেছেন। ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, ‘ওড়িশার কোরাপুটে ভয়াবহ দুর্ঘটনায় স্বজন হারাদের সাথে আমি সমব্যাথী। আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি।‘

Previous articleপ্রয়াত সাংবাদিকের স্ত্রীকে চাকরিপ্রদান
Next articleরাজীবের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক; সুরক্ষা জোড়দার করতে Z ক্যাটাগরি নিরাপত্তা পেলেন রাজ্যের সদ্য প্রাক্তন মন্ত্রী