হাথরস কান্ডকে সামনে রেখে বিধানসভা নির্বাচনে দলিত ভোটকে হাতে রাখতে গ্রামে গ্রামে কর্মসূচি তৃণমূলের

189
হাথরস কান্ডকে সামনে রেখে বিধানসভা নির্বাচনে দলিত ভোটকে হাতে রাখতে গ্রামে গ্রামে কর্মসূচি তৃণমূলের 1

ওয়েব ডেস্ক : সম্প্রতি হাথরস-কাণ্ডের প্রতিবাদে কলকাতার রাজপথে নেমেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেদিন কলকাতার প্রতিবাদ-মঞ্চ থেকে নিজেকে ‘দলিত মেয়ে’ বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেসময় মুখ্যমন্ত্রী এই বক্তব্য নিছক আবেগের বশে বলা কথা মনে করেছিলেন অনেকেই। কিন্তু আদতে তা নয়। জানা গিয়েছে, অন্যান্য রাজ্যে যেখানে জাতপাতের ভেদাভেদ রয়েছে, সেই একই সময় দাঁড়িয়ে এ রাজ্যের দলিতদের নিয়ে শাসকদলের নির্দিষ্ট কর্মসূচি রয়েছে। এদিকে ইতিমধ্যেই হাথরস-কাণ্ড নিয়ে যখন তোলপাড় গোটা দেশ তথা জাতীয় রাজনীতি, সেসময় এই ঘটনাকে সামনে রেখেই বিধানসভা নির্বাচনে এ রাজ্যের দলিতদের নিয়ে আলাদা করে ভাবছে তৃণমূল। এতদিন নির্বাচনে সংখ্যালঘু ভোট ও আদিবাসী ভোটকেই বেশি টার্গেট করা হত। তবে এবারের নির্বাচনে রাজ্যের দলিত ভোট নিয়েও ভাবনা-চিন্তা শুরু করল তৃণমূল। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে বিভিন্ন কর্মসূচি শুরু হয়েছে। সে অনুযায়ী শাসকদলের তরফে গোটা অক্টোবর মাস জুড়ে গ্রামে-গ্রামে ঘুরে চলবে দলিতদের নিয়ে নানা রকম কর্মসূচি।

হাথরস কান্ডকে সামনে রেখে বিধানসভা নির্বাচনে দলিত ভোটকে হাতে রাখতে গ্রামে গ্রামে কর্মসূচি তৃণমূলের 2

জানা গিয়েছে, ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে একেবারেই ভালো ফল করেনি শাসকদল। কিন্তু কেন তারা লোকসভায় ভালো ফল করতে পারল না? এই নিয়ে সেসময় ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা গিয়েছিল, এ রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে ৮৪ টি আসনেই দলিত ভোট পড়েছে৷ যা কিনা এরাজ্যের মোয় ভোটের নিরিখে ২৯%। ফলে এই ৮৪টি আসনে দলিতদের ভাল প্রভাব রয়েছে বলেই মনে করা হয়। একইসাথে গত লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল বিশ্লেষণ করতে গিয়ে দেখা যায় শাসকদলের পাওয়া ৮৪টি দলিত ভোটের মধ্যে মাত্র ৩৪ টি আসনে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি, আর তৃণমূল ৩৩টি আসনে। ফলে সে সময় থেকেই শাসকদলের তরফে সংখ্যা লঘু ও আদিবাসী ভোটের পাশাপাশি দলিত-ভোটকেও নিজেদের দিকে টেনে আনার কথা ভাবে তৃণমূল। এরপর দলিত ভোটকে হাটের মুঠোয় রাখতে গত মার্চেই শুরুও হয়েছিল ‘বাংলার গর্ব মমতা’ ক্যাম্পেইন। কিন্তু এর পর পরই করোনার কারণে লকডাউনের জেরে তা স্থগিত রাখা হয়।

হাথরস কান্ডকে সামনে রেখে বিধানসভা নির্বাচনে দলিত ভোটকে হাতে রাখতে গ্রামে গ্রামে কর্মসূচি তৃণমূলের 3

এদিকে ইতিমধ্যেই হাথরস কাণ্ড নিয়ে তোলপাড় গোটা দেশ। সেই পরিস্থিতিতে নির্বাচনের আগে এ রাজ্যের দলিতদের হাতে রাখতে গোটস অক্টোবর মাস জুড়ে বাংলার বিভিন্ন গ্রামে-গ্রামে দলিত নেতাদের উদ্দেশ্যে চলবে এই কর্মসূচি। জানা গিয়েছে, দলিত নেতারা সংশ্লিষ্ট গ্রামের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তৃণমূলের ভোট-প্রচার চালাবেন। প্রত্যেকের সঙ্গে দেখা করবেন। একইসাথে দলিতদের নানা প্রকল্পের বিষয়ে বুঝিয়ে তাদের ভোট আদায়ের চেষ্টা করবে।

Previous articleদীর্ঘদিন রেকর্ড পতনের পর পুজোর আগে দাম বাড়ছে সোনা-রুপোর
Next articleফের হাজিরা ছত্রধরের, হেফাজতে নিতে মরিয়া কেন্দ্রীয় সংস্থা ! কার প্রেসক্রিপশনে করোনা পরীক্ষা তৃনমূল নেতার? জানতে চায় NIA