বাড়তি সংক্রমনের মুখে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ালো IIT-KHARGPUR, ১৮ সেপ্টেম্বর অবধি বন্ধ ক্যাম্পাস

1599
Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: বাড়তি সংক্রমনের মুখে দাঁড়িয়ে দ্বিতীয় দফার লকডাউন বাড়িয়ে দিলেন IIT-KHARGPUR কর্তৃপক্ষ। রবিবার, ১৩ই সেপ্টেম্বর প্রথম দফার লকডাউন শেষ হওয়ার আগেই আগামী ৫দিনের বাড়তি এই লকডাউন ঘোষণা করা হল যা কার্যত আগামী শনি এবং রবিবারের ছুটির দিন ধরলে ৭দিন ধরেই চলবে।

Advertisement

উল্লেখ্য গত ৫তারিখ থেকে IIT-KHARGPUR যখন নিজের আ্যকাডেমিক ক্যাম্পাসের জন্য প্রথম এই লকডাউন শুরু করেছিল তখন ক্যাম্পাসের মধ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬জন চিকিৎসক সমেত ৩১ জন। বর্তমানে সেই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫০জনের কাছাকাছি। গত ২ দিনে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন এক অধ্যাপক সহ ৩জন। এই পরিস্থিতিতেই IIT র নিজস্ব লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এক আধিকারিক।

Advertisement
Advertisement

১২ই সেপ্টেম্বর জারি করা নোটিশে IIT-KHARGPUR কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ” করোনা সংক্রমনের বাড়বাড়ন্ত ও বিধানচন্দ্র রায় টেকনলজি হাসপাতালের চিকিৎসকদের পরামর্শ মত করোনা সংক্রমনের শৃঙ্খলা ভাঙার জন্য পরবর্তী আদেশ না জারি করা অবধি আগামী ১৮ই সেপ্টেম্বর অবধি এই নিয়ম কঠোর ভাবে বলবৎ করা হচ্ছে।” IIT-KHARGPUR য়ের তরফে অবশ্য এই প্রক্রিয়াকে লকডাউন বলা হচ্ছেনা। বলা হচ্ছে অত্যাবশ্যক পরিষেবা ছাড়া সমস্ত পরিষেবা বন্ধ রাখার প্রক্রিয়া।

শনিবার রাতে আইআইটির রেজিষ্ট্রার বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছেন, ১৮ সেপ্টেম্বর সম্পূর্ণ বন্ধ করা হচ্ছে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা সংক্রান্ত ও প্রশাসনিক কাজকর্ম। তবে বাড়িতে থেকেই অনলাইন পঠন-পাঠন চলবে। অধ্যাপক অধ্যাপিকারা বাড়িতে থেকেই ক্লাশ নেবেন। ক্যাম্পাসে যে পড়ুয়া, অধ্যাপক, কর্মী, সাফাইকর্মীরা রয়েছেন তাঁরা আপাতত থাকবেন। তবে বাইরে থেকে কেউ আসবেন না। আর নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী কিনতে কিছুক্ষণের জন্য খোলা হবে আইআইটি-র টেকনোলজি মার্কেট। ওষুধের দোকান বাদে দুপুর ২টো পর্যন্ত একবেলা খোলা থাকবে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দোকান। তবে বাজারে সামাজিক দূরত্ব, মাস্ক ব্যবহার না হলে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। ওষুধ দোকান খোলা থাকবে সকাল ৭টা থেকে ৯টা অবধি।

হাসপাতাল পরিষেবাও খুবই সীমিত পরিসরে পাওয়া যাবে। জরুরি ভিত্তিতে দেওয়া পরিষেবা এবং বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরিষেবা ছাড়া বাকি পরিষেবা সীমিত করা হয়েছে। বাইরে থেকে হাসপাতালের পরিষেবার সুযোগ যারা পান তাঁদের বাইরে চিকিৎসক বা ওষুধ নিয়ে বিল জমা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। আগের মতই পরিচারিকা ইত্যাদি নেওয়ার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা বজায় আছে। জরুরি ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষর অনুমোদন নিতে হবে। বাইরে থেকে রিকশা, ভাড়ার গাড়ি, আটো ক্যাম্পাসে প্রবেশ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ক্যাম্পাসের ভেতরে ব্যক্তিগত চারচাকা খুব জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহার করতে হলেও ২জনের বেশি বসতে পারবেননা। বাইকে চালক ছাড়া দ্বিতীয় কারও বসার অনুমতি থাকছেনা। সব মিলিয়ে ফের আরেক সপ্তাহের লকডাউনে IIT-KHARGPUR।