অনলাইন পাঠক্রমই ভরসা, উন্নত নেট ওয়ার্কের জন্য নিজস্ব টাওয়ার বসালো আইআইটি খড়গপুর

549
অনলাইন পাঠক্রমই ভরসা, উন্নত নেট ওয়ার্কের জন্য নিজস্ব টাওয়ার বসালো আইআইটি খড়গপুর 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: পরিস্থিতি কবে স্বাভাবিক হবে বলা যাচ্ছেনা। পরীক্ষা ছাড়াই আইআইটি খড়গপুর বসন্তকালীন পাঠক্রম শেষ করেছে। অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নের পর সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু হওয়ার কথা শরৎকালীন পাঠক্রম। কিন্তু করোনা সংক্রমণের পর কবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি আগের মতো কাজ করতে পারবে, সেটা এখনও স্পষ্ট নয়। তাই দীর্ঘদিন এখন পড়ুয়া, শিক্ষকদের ভরসা করতে হবে অনলাইন ক্লাসের ওপরেই। আসমুদ্র হিমাচলে ১৪হাজার পড়ুয়া ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে ভারতের এই প্রাচীনতম প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের।

কিন্তু যদি নেটওয়ার্কিং সিস্টেম ঠিক না থাকে, তাহলে ক্লাস হবে কি করে?‌ যথেষ্ট পরিমাণ ইন্টারনেট না পেলে, ছাত্র, শিক্ষক কারোর পক্ষেই অনলাইন ক্লাস করা সম্ভব নয়। সেই কারণেই নিজস্ব নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার জন্য নিজেদের ক্যাম্পাসের ভেতরেই একটি ফোর্থ জেনারেশন মোবাইল টাওয়ার বসিয়ে ফেলল আইআইটি খড়গপুর।

অনলাইন পাঠক্রমই ভরসা, উন্নত নেট ওয়ার্কের জন্য নিজস্ব টাওয়ার বসালো আইআইটি খড়গপুর 2

দেশের ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসের দিন হয়ে গেল ওই বিশেষ মোবাইল টাওয়ার। যাতে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষকরা কোনও রকম ইন্টারনেটের প্রতিবন্ধকতা ছাড়াই ক্লাস নিতে পারেন, সেই জন্য এই ব্যবস্থা করেছে ইন্ডাস টাওয়ারস। এদিন এই টাওয়ারের উদ্বোধনে আইআইটি খড়গপুরের ডিরেক্টর প্রফেসর বীরেন্দ্র কুমার তিওয়ারি সহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

ইন্ডাস টাওয়ারসের পক্ষ থেকে পশ্চিমবঙ্গ সার্কেলের সিইইও নিরজ সিং জানিয়েছেন, ‘‌করোনা সংকটকালে শিক্ষার মাধ্যম প্রায় সর্বত্র অনলাইন। আমরা খুশি সাধারণ মানুষের এই সংকটের সময়ে পাশে দাঁড়াতে পেরে। দীর্ঘদিন ধরে টেলিকম সংস্থাগুলির হয়ে সার্ভিস দিয়ে আসছে ইন্ডাস। আশা করা যায় আইআইটির সঙ্গে এই গাঁটছড়া দীর্ঘদিনের হবে। নতুন টাওয়ারের ফলে শিক্ষক ও ছাত্রদের মধ্যে আরও সহজে যোগাযোগ করতে পারবেন শিক্ষক ও পড়ুয়ারা।

এতদিন অবধি আইআইটির অভ্যন্তরে কোনও মোবাইল টাওয়ার ছিলনা। বেসরকারি কোনও কোম্পানিকেই ক্যাম্পাসের ভেতরে টাওয়ার বসানোর অনুমতি দেয়নি আইআইটি খড়গপুর কর্তৃপক্ষ। যে কারনে আইআইটির বিপুলসংখ্যক জনগোষ্ঠীর বাজার পেতে ক্যাম্পাসের বাইরের এলাকায় বেসরকারি জায়গায় মোবাইল টাওয়ার বসিয়েছে মোবাইল পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাগুলি। করোনা পরিস্থিতি বদলে দিল সেই নিয়মকে। যদিও এই টাওয়ার পুরোপুরি অন-লাইন পাঠক্রমের জন্যই ব্যবহৃত হবে বলে জানিয়েছেন আইআইটি কর্তৃপক্ষ।। ছবি-প্রতীকী

 

Previous articleবিশ্বভারতীর মেলার মাঠে পাঁচিল তোলা নিয়ে রণক্ষেত্র, প্রধানমন্ত্রীর দফতরে নালিশ উপাচার্যের
Next articleক্রান্তিকালের মনীষা-৩ ।। অনিন্দিতা মাইতি নন্দী