জ্বলদর্চির নববর্ষ আসলে শুশ্রূষাকাব্য

760
Advertisement

মৃণালকান্তি সামন্ত: পৃথিবীময় মৃত্যুর প্রতিধ্বনি, মানসিক অস্থিরতায় ক্লিষ্ট মানবতা।জীবন বাঁচানোর চেষ্টায় বিজ্ঞান যখন সময়ের বিভেদ ব্যতিরেকে তৎপর,এমন সময় মানবতাকে অক্সিজেন যোগানোর দায়িত্ব নিয়ে সদাজাগ্রত ‘জ্বলদর্চি’।এবারের নববর্ষ সংখ্যা যেন পাঠক-শ্রোতা’র কাছে ‘হাইডক্সিক্লোরোকুইন’।স্রষ্টা বন্দি হলেও সৃষ্টি সহজাত।পত্রিকার প্রথমাংশে সন্দীপ কাঞ্জিলালের লেখায় নববর্ষ উদযাপনের যে পদ্ধতি-প্রয়াস তথা জয়গানের উল্লেখ রয়েছে তা যেন বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্যের প্রকাশ।

Advertisement

বর্তমান পরিস্থিতির কারণে নববর্ষের বৈঠকি  আড্ডা বন্ধ থাকলেও, স্মৃতির সরণি বেয়ে রঙিন চিত্রগুলো যেন বৈঠকি আড্ডায় মশগুল করেছে আমাদেরকে।এছাড়া পত্রিকার বিস্তীর্ণ অংশ জুড়ে রয়েছে এক বিশেষ ব্যক্তিত্ব অচিন্ত মারিক সম্পর্কিত কথন।আধো আধো বুলিতে অ আ  ক খ বলতে শেখা অচিন্ত মারিক জীবনের বিভিন্ন অংশের অসম্পূর্ণতাকে অতিক্রম করে আজকের সম্পূর্ণ তথা পরিপূর্ণ অচিন্ত মারিক।পত্রিকায় প্রকাশিত তাঁর সৃষ্টিসম্ভার পরিপূর্ণতাকেই প্রমাণ করে। ব্যক্তিগত পরিচয়সূত্রে জ্ঞাত অচিন্ত মারিক মহাশয়ের সৃজনীসত্তা  আমাকে মুগ্ধ করে।খ্যাতনামা ব্যক্তিবর্গ যেমন অনুত্তম ভট্টাচার্য,হরিপদ মণ্ডল,সুধাংশুশেখর মুখোপাধ্যায় প্রমুখ অচিন্ত মারিকের জীবনের বিভিন্ন অংশে আলোকপাত করেছেন।জীবনের খণ্ড খণ্ড অংশে আলোকপাত — ব্যক্তি তথা স্রষ্টার পরিপূর্ণতাকে প্রকাশ করতে পারে না। কিন্তু এই খণ্ড খণ্ড প্রকাশই স্রষ্টার সৃষ্টি সম্পর্কে পাঠকের জানার আগ্রহকে ত্বরান্বিত করে।ব্যক্তি অচিন্ত মারিক সহজ সরল প্রাঞ্জল ভাবে ধরা দেয় অনুপ মাহাত’র সাক্ষাৎকার লেখনীতে।সকল বিজ্ঞাপনই মুখ ঢেকে দেয় না। সম্পাদকের প্রাণপণ  আকুতি ভাইসব কেউ যাবেন না,উপলব্ধি করুন মানবতার অন্তর ও বাহির। মানবতাকে জাগিয়ে রাখুন,জাগিয়ে রাখতে অনুপ্রাণিত করুন।প্রকাশিত হয়েছে ভিডিও। নববর্ষের বৈঠকী আড্ডার। সবাই যে যার ঘরে বসেই করেছেন সৃজন।

Advertisement
Advertisement

আড্ডায় অংশ নিয়েছেন চন্দন সেন, তপন বন্দ্যোপাধ্যায় জয়ন্ত ঘোষাল, সুব্রত রায়চৌধুরী, স্মৃতি সাহা, সঞ্জীব ভট্টাচার্য, অরূপ দণ্ডপাট, মধুপ দে, সিদ্ধার্থ সাঁতারা, নরেন হালদার, অনুপ মাহাত, ভবেশ মাহাতো, তাপস কুমার দত্ত, প্রলয় বিশ্বাস, গার্গী ভট্টাচার্য, অমিতেশ চৌধুরী, অচিন্ত মারিক ও ঋতরূপ ত্রিপাঠী। ভিডিও সম্পাদনা করেছেন রূপক কুমার হাতী। জ্বলদর্চি ফেসবুকে পাবেন ভিডিওটি। সবাই বাড়িতেই থাকুন, সুস্থ থাকুন। সৃষ্টিশীল কাজে থাকুন। শুভ নববর্ষ।
(কবি মৃণালকান্তি সামন্ত : শিক্ষক ও গবেষক। )