সহকর্মীর সাথে বচসার জেরে সার্ভিস রিভালবার দিয়ে গুলি চালালো জওয়ান, মৃত ২ সহকর্মী

291
সহকর্মীর সাথে বচসার জেরে সার্ভিস রিভালবার দিয়ে গুলি চালালো জওয়ান, মৃত ২ সহকর্মী 1

ওয়েব ডেস্ক : সহকর্মীর সাথে বচসার জেরে আচমকা নিজের সার্ভিস রিভালবার দিয়ে গুলি চালালো এক বিএসএফ জওয়ান। সেই গুলিতে মৃত্যু হল ২ সহকর্মীর। সোমবার মধ্যরাতে এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে উত্তর দিনাজপুরের ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে। ঘটনায় বিএসএর ১৪৬ নং ব্যাটেলিয়নে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। তবে কেন আচমকা ওই জওয়ান তার ২ সহকর্মীর উপর গুলি চালালো তা নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই বিএসএফ ক্যাম্পে তীব্র চাপানোতরের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গিয়েছে, রায়গঞ্জের ভাতুন পঞ্চায়েত এলাকার বসতপুর গ্রামের মালদাখণ্ড বিএসএফ ক্যাম্প। সোমবার গভীররাতে ওই এলাকায় টহল দিচ্ছিলেন জওয়ানরা। প্রতিদিনের মতো এদিনও ভোর সাড়ে ৩টে নাগাদ ছুটি নিতে যায় উত্তম সূত্রধর নামে এক জওয়ান। সেসময় ছুটি নেওয়া নিয়ে কমান্ডান্ট মহেন্দ্র সিং ভাট্টির সঙ্গে কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন অভিযুক্ত জওয়ান উত্তম সূত্রধর। একসময় দুপক্ষের মধ্যে বচসা চরম পর্যায়ে পৌঁছলে আচমকাই কমান্ডান্ট মহেন্দ্র সিং ভাট্টিকে লক্ষ্য করে নিজের সার্ভিস রিভলবার থেকে গুলি চালান উত্তম। ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয় কমান্ডান্ট মহেন্দ্র সিং ভাট্টি। তবে যেটা সব চেয়ে চাঞ্চক্যকর বিষয় তা হল মহেন্দ্র সিং ভাট্টি ছাড়াও মৃত্যু হয়েছে অনুজ কুমার নামে আরও এক কনস্টেবলের। এর এখানেই বাড়ছে সন্দেহ। মহেন্দ্র সিং ভাট্টির সাথে বচসা বাধায় তাকে গুলি করে অভিযুক্ত জওয়ানের উত্তম সূত্রধর। তবে অনুজ কুমার নামে ওই কনস্টেবলকে কেন গুলি করল ওই জওয়ান তা নিয়েই প্রশ্ন।

সহকর্মীর সাথে বচসার জেরে সার্ভিস রিভালবার দিয়ে গুলি চালালো জওয়ান, মৃত ২ সহকর্মী 2

ঘটনার পর মঙ্গলবার সকালে খবর পেয়ে রায়গঞ্জের বিন্দোলের মালিবাড়ি পুলিশ ফাঁড়ি থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী সীমান্তের মালদাখণ্ড বিএসএফ ক্যাম্পে পৌঁছায়। তবে ঘটনার কয়েক ঘন্টা কেটে গেলেও এখনও পর্যন্ত মৃতদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। এদিকে ঘটনার পরই পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেন অভিযুক্ত উত্তম সূত্রধর। তাকে ইতিমধ্যেই আটক করে তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে ক্যাম্প লাগোয়া স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা ওই ২ জওয়ানের রক্তাক্ত দেহ দেখে আতকে ওঠেন। এবিষয়ে গ্রামেরই এক বাসিন্দা জানান, যেহেতু গভীররাতে ঘটনাটি ঘটেছে, সেকারণে জওয়ানদের মধ্যে কী নিয়ে সমস্যা চলছিল তা জানা নেই। তবে এমন ঘটনা এই এলাকায় এর আগে দেখা যায়নি।
তবে শুধুমাত্র ডিউটি শেষে ছুটি নেওয়া নিয়ে বচসার জেরেই এমন কাণ্ড ঘটালো উত্তম সূত্রধর নামে ওই জওয়ান৷ নাকি দুই সহকর্মীকে লক্ষ্য করে গুলি চালানোর পিছনে আরও অন্য কোনও কারণ রয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি আরও একটি বিষয় ভাবাচ্ছে পুলিশকর্মীদের৷ কমান্ডান্টের সঙ্গে বচসার জেরে তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছেন উত্তম সূত্রধর, এটা অনেকটাই পরিষ্কার তদন্তকারীদের কাছে৷ কিন্তু অপর কনস্টেবল অনুজ কুমারকে লক্ষ্য করে কেন গুলি চালালো উত্তম? কিংবা আদৌ অনুজ কুমারকে উত্তম গুলি চালিয়েছেন কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে বলেই জানা যাচ্ছে।

Previous articleসাপ্তাহিক লকডাউনে বন্ধ থাকছে রেল পরিষেবা, বাতিল ট্রেনগুলির তালিকা ঘোষণা করল রেল কর্তৃপক্ষ
Next articleএবার অরন্য শহরেও দীর্ঘ কন্টেনমেন্ট জোন! আগামী ৭দিন বন্ধ করে দেওয়া হল জুবলি মার্কেট